ইরানের সামরিক মহড়ায় মার্কিন ঘাঁটিতে সতর্কতা জারি

  অনলাইন ডেস্ক ২৯ জুলাই ২০২০, ২১:৪৬:১৯ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: বিবিসি

ইরানের সামরিক মহড়া চলার সময় পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলোতে মোতায়েন মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে সতর্কাবস্থা জারি করা হয়েছিল।

ওই সময় সেনাদেরকে বাংকারে থাকারও নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল বলে খবর বেরিয়েছে।

মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর নবী মোহাম্মদ (সা.)-১৪ নামে অনুষ্ঠিত এই মহড়াটিতে ব্যালিস্টিক ও ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে।

এ সময় হরমুজ প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহী রণতরীর আদলে সাজানো একটি ‘কৃত্রিম’ যুদ্ধজাহাজ মিসাইল ছুড়ে ধ্বংস করেছে ইরান।

বিবিসি জানিয়েছে, এই মহড়ার সময় এতো বেশি গোলাগুলি হয় যে, ওই অঞ্চলের দুইটি সামরিক ঘাঁটিতে সাময়িক সতর্কাবস্থা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র।

টুইটারে দেয়া এক পোস্টে বিবিসি’র সাংবাদিক নাফিসে কোহনাভার্দ জানিয়েছেন, ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়ার কারণে সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত এবং কাতারে মোতায়েন সেনাদেরকে স্বল্পসময়ের জন্য উচ্চ সতর্কতায় রাখা হয়েছিল।

পারস্য উপসাগরে নিয়মিত চলাচলকারী মার্কিন বিমানবাহনী রণতরীর মতো করে বানানো ওই মডেলটির ডেকে কৃত্রিম যুদ্ধবিমানও রাখা ছিল।

মহড়ায় বিভিন্ন দিক থেকে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়। এর মধ্যে কয়েকটি ওই রণতরীর মডেলটি লক্ষ্য করে ছোড়া হয়।

ইরানের বিপ্লবী গার্ডের কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে বলেছেন , এ মহড়ার মধ্য দিয়ে বিমান ও নৌবাহিনীর আক্রমণ করার সক্ষমতা তুলে ধরা হয়েছে।

পারস্য উপসাগরে ওয়াশিংটন ও তেহরানের মধ্যে ক্রমাগত উত্তেজনা বৃদ্ধির মধ্যেই এ মহড়াটি চালাল ইরান।

একে ‘ইরানের দায়িত্বজ্ঞানহীন এবং বেপরোয়া’ আচরণ বলে নিন্দা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী। সেই সঙ্গে এই আচরণকে ভীতি প্রদর্শন এবং চাপ প্রয়োগের চেষ্টা বলে বর্ণনা করেছেন তারা।

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত