বিস্ফোরণে প্রাণ হারালেন লেবাননের কাতায়েব পার্টির মহাসচিব
jugantor
বিস্ফোরণে প্রাণ হারালেন লেবাননের কাতায়েব পার্টির মহাসচিব

  অনলাইন ডেস্ক  

০৫ আগস্ট ২০২০, ০৬:৪৯:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

লেবাননের রাজধানী বৈরুতের পর পর দুই বিস্ফোরণের ঘটনায় কমপক্ষে ৭৮ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত ৪ হাজার জন মানুষ আহত হয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে রয়েছেন দেশটির রাজনৈতিক দল কাতায়েবের মহাসচিব নজর নাজারিয়ান। খবর সিএনএনের। 

এছাড়া মধ্যপ্রাচ্যের গণমাধ্যম আল আরবিয়া ইংলিশও এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। 

সংবাদমাধ্যমটির এক প্রতিবেদনে প্রকাশ, কাতায়েব রাজনৈতিক দলের মুখপাত্র তাদের জানিয়েছে মহাসচিব  কাতায়েব রাজনৈতিক দলের মুখপাত্র বৈরুত বন্দর এলাকা কাঁপানো সেই বিস্ফোরণের সময় আহত হন এবং পরে মারা যান।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় এ বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণটি এতোটাই শক্তিশালী ছিল যে ১৫০ কিলোমিটার দূরের দেশ সাইপ্রাসের একটি এলাকা কেঁপে উঠেছিল।
 
বিস্ফোরণের সময় নজর নাজারিয়ান বৈরুতের পার্টির সদর দফতরে ছিলেন। যা ঘটনাস্থলের কাছাকাছি অবস্থিত।

বিস্ফোরণের কারণ হিসাবে লেবাননের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বিষয়ক প্রধান বলেছেন, এটি একটি দুর্ঘটনা। পরিকল্পিতভাবে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়নি। বন্দর এলাকায় রাখা অত্যন্ত বিপজ্জনক বিস্ফোরক রাসায়নিক পদার্থের গুদামে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে।

সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গুদামে ২৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের মত বিস্ফোরক অনিরাপদভাবে রাখা ছিল। কোনো কারণে সেখানে আগুন লাগে আর তা বিস্ফোরিত হয়।

অনিরাপদভাবে কোনো গুদামে ২,৭৫০ টন বিপজ্জনক বিস্ফোরক মজুত রাখার বিষয়টি একেবারেই অগ্রহণযোগ্য বলে জানিয়েছেন লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন ।

ভয়াবহ ধ্বংসযজ্ঞ থেকে প্রাণ বাঁচাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাহায্য চেয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব বলেছেন, এটি একটি মহাবিপর্যয়। দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বুধবার দেশটিতে জাতীয় শোক দিবস ঘোষণা করেছে লেবানন সরকার।

বিস্ফোরণে প্রাণ হারালেন লেবাননের কাতায়েব পার্টির মহাসচিব

 অনলাইন ডেস্ক 
০৫ আগস্ট ২০২০, ০৬:৪৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লেবাননের রাজধানী বৈরুতের পর পর দুই বিস্ফোরণের ঘটনায় কমপক্ষে ৭৮ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত ৪ হাজার জন মানুষ আহত হয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে রয়েছেন দেশটির রাজনৈতিক দল কাতায়েবের মহাসচিব নজর নাজারিয়ান। খবর সিএনএনের।

এছাড়া মধ্যপ্রাচ্যের গণমাধ্যম আল আরবিয়া ইংলিশও এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সংবাদমাধ্যমটির এক প্রতিবেদনে প্রকাশ, কাতায়েব রাজনৈতিক দলের মুখপাত্র তাদের জানিয়েছে মহাসচিব কাতায়েব রাজনৈতিক দলের মুখপাত্র বৈরুত বন্দর এলাকা কাঁপানো সেই বিস্ফোরণের সময় আহত হন এবং পরে মারা যান।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় এ বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণটি এতোটাই শক্তিশালী ছিল যে ১৫০ কিলোমিটার দূরের দেশ সাইপ্রাসের একটি এলাকা কেঁপে উঠেছিল।

বিস্ফোরণের সময় নজর নাজারিয়ান বৈরুতের পার্টির সদর দফতরে ছিলেন। যা ঘটনাস্থলের কাছাকাছি অবস্থিত।

বিস্ফোরণের কারণ হিসাবে লেবাননের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বিষয়ক প্রধান বলেছেন, এটি একটি দুর্ঘটনা। পরিকল্পিতভাবে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়নি। বন্দর এলাকায় রাখা অত্যন্ত বিপজ্জনক বিস্ফোরক রাসায়নিক পদার্থের গুদামে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে।

সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গুদামে ২৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের মত বিস্ফোরক অনিরাপদভাবে রাখা ছিল। কোনো কারণে সেখানে আগুন লাগে আর তা বিস্ফোরিত হয়।

অনিরাপদভাবে কোনো গুদামে ২,৭৫০ টন বিপজ্জনক বিস্ফোরক মজুত রাখার বিষয়টি একেবারেই অগ্রহণযোগ্য বলে জানিয়েছেন লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন ।

ভয়াবহ ধ্বংসযজ্ঞ থেকে প্রাণ বাঁচাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাহায্য চেয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব বলেছেন, এটি একটি মহাবিপর্যয়। দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বুধবার দেশটিতে জাতীয় শোক দিবস ঘোষণা করেছে লেবানন সরকার।

 

ঘটনাপ্রবাহ : লেবাননে বিস্ফোরণ

আরও খবর