বৈরুত বিস্ফোরণে ইসরাইল জড়িত থাকতে পারে!
jugantor
বৈরুত বিস্ফোরণে ইসরাইল জড়িত থাকতে পারে!

  অনলাইন ডেস্ক  

০৫ আগস্ট ২০২০, ২১:১৬:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বৈরুত বিস্ফোরণে ইসরাইল জড়িত থাকতে পারে!
ছবি: সংগৃহীত

লেবাননের বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পেছনে দখলদার ইসরাইলের হাত থাকতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন ইরাকের সংসদের প্রভাবশালী সদস্য মোহাম্মাদ আল বালদাওয়ি।  

তিনি বলেন, এটা ঠিক যে এই ভয়াবহ বিস্ফোরণের কারণ উদঘাটনের তদন্ত শেষ করতে অনেক সময় লাগবে। কিন্তু বিভিন্ন কারণে মনে হচ্ছে এর সঙ্গে ইসরাইল জড়িত রয়েছে।  খবর ইরনার। 

বুধবার স্থানীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মোহাম্মাদ আল বালদাওয়ি এসব কথা বলেছেন।  তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি এটা নিছক কোনো দুর্ঘটনা নয়, এর পেছনে কারো না কারো হাত রয়েছে।’

ইরাকের এই সংসদ সদস্য বলেন, ইসরাইল এ ধরণের জঘন্য কাজ করে অভ্যস্ত। তারা নিরপরাধ মানুষ মেরে আনন্দ পায়। অতীতে বিভিন্ন দেশে এ ধরণের অনেক ঘটনাই ইসরাইল ঘটিয়েছে। তারা ১৯৮১ সালে ইরাকের শান্তিপূর্ণ পরমাণু স্থাপনায় বোমা হামলা চালিয়েছে।  গত বছরও ইরাকের সামরিক বাহিনী হাশ্‌দ আশ শাবির অস্ত্র গুদামে হামলা করেছে।

মুহাম্মাদ আল বালদাওয়ি বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ইসরাইলকে এ জন্য অভিযুক্ত করা যেতে পারে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার লেবাননের রাজধানী বৈরুতে একটি ওয়্যার হাউজে পর পর বিস্ফোরণের ঘটনায় অন্তত ১০০ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত ৪ হাজার জন মানুষ আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বিকাল ৬টার পর পর বিস্ফোরণে বৈরুত ছাড়াও আশপাশের অনেক শহর কেঁপে ওঠে।

কম্পন অনুভূত হয় ২৪০ কিলোমিটার দূরের দ্বীপরাষ্ট্র সাইপ্রাসেও, সেখানকার বাসিন্দারা এ ঘটনাকে ভূমিকম্প বলে মনে করেছিলেন।

বন্দরের এক বিস্ফোরক দ্রব্যের গুদামে মঙ্গলবারের ওই বিস্ফোরণের সূত্রপাত হয় আগুনের মাধ্যমে; বিস্ফোরণের পর ধোঁয়ার মেঘ কয়েক কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে।

বৈরুত বিস্ফোরণে ইসরাইল জড়িত থাকতে পারে!

 অনলাইন ডেস্ক 
০৫ আগস্ট ২০২০, ০৯:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বৈরুত বিস্ফোরণে ইসরাইল জড়িত থাকতে পারে!
ছবি: সংগৃহীত

লেবাননের বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পেছনে দখলদার ইসরাইলের হাত থাকতে পারে বলে মন্তব্য করেছেনইরাকের সংসদের প্রভাবশালী সদস্য মোহাম্মাদ আল বালদাওয়ি।

তিনি বলেন, এটা ঠিক যে এই ভয়াবহ বিস্ফোরণের কারণ উদঘাটনের তদন্ত শেষ করতে অনেক সময় লাগবে। কিন্তু বিভিন্ন কারণে মনে হচ্ছে এর সঙ্গে ইসরাইল জড়িত রয়েছে। খবর ইরনার।

বুধবার স্থানীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মোহাম্মাদ আল বালদাওয়ি এসব কথা বলেছেন। তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি এটা নিছক কোনো দুর্ঘটনা নয়, এর পেছনে কারো না কারো হাত রয়েছে।’

ইরাকের এই সংসদ সদস্য বলেন, ইসরাইল এ ধরণের জঘন্য কাজ করে অভ্যস্ত। তারা নিরপরাধ মানুষ মেরে আনন্দ পায়। অতীতে বিভিন্ন দেশে এ ধরণের অনেক ঘটনাই ইসরাইল ঘটিয়েছে। তারা ১৯৮১ সালে ইরাকের শান্তিপূর্ণ পরমাণু স্থাপনায় বোমা হামলা চালিয়েছে। গত বছরও ইরাকের সামরিক বাহিনী হাশ্‌দ আশ শাবির অস্ত্র গুদামে হামলা করেছে।

মুহাম্মাদ আল বালদাওয়ি বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ইসরাইলকে এ জন্য অভিযুক্ত করা যেতে পারে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার লেবাননের রাজধানী বৈরুতে একটি ওয়্যার হাউজে পর পর বিস্ফোরণের ঘটনায় অন্তত ১০০ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত ৪ হাজার জন মানুষ আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বিকাল ৬টার পর পর বিস্ফোরণে বৈরুত ছাড়াও আশপাশের অনেক শহর কেঁপে ওঠে।

কম্পন অনুভূত হয় ২৪০ কিলোমিটার দূরের দ্বীপরাষ্ট্র সাইপ্রাসেও, সেখানকার বাসিন্দারা এ ঘটনাকে ভূমিকম্প বলে মনে করেছিলেন।

বন্দরের এক বিস্ফোরক দ্রব্যের গুদামে মঙ্গলবারের ওই বিস্ফোরণের সূত্রপাত হয় আগুনের মাধ্যমে; বিস্ফোরণের পর ধোঁয়ার মেঘ কয়েক কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : লেবাননে বিস্ফোরণ

আরও খবর