আয়ারল্যান্ডে ৪ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে ‘টিকটক’
jugantor
আয়ারল্যান্ডে ৪ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে ‘টিকটক’

  আইটি ডেস্ক  

০৭ আগস্ট ২০২০, ২১:৫৮:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

চীনের বাইটড্যান্স মালিকানাধীন ক্ষুদ্র ভিডিও শেয়ারিংয়ের জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম টিকটক ইউরোপে ডেটা সেন্টার খুলতে যাচ্ছে।

সেজন্য তারা দ্বীপরাষ্ট্র আয়ারল্যান্ডকে বেছে নিয়েছে তারা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, বৃহস্পতিবার টিকটকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আয়ারল্যান্ডে ডেটা সেন্টার বানানোর পরিকল্পনা করছে তারা। এতে ৪৯ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মূদ্রায় প্রায় ৪ হাজার ২৪০ কোটি টাকা) বিনিয়োগে করবে প্রতিষ্ঠানটি। আর পরিকল্পনা সফল হলে এটিই হবে টিকটকের প্রথম ডেটা সেন্টার।

এ বিষয়ে টিকটকের প্রধান তথ্য নিরাপত্তা কর্মকর্তা রোল্যান্ড ক্লাউটিয়ার বলেছেন, আমরা আশা করছি আয়ারল্যান্ডে টিকটকের ডেটা সেন্টারটি ২০২২ সালের শুরুতেই খোলা হবে এবং কার্যকর হবে। এটি শুরু হলে শত শত মানুষের নতুন কর্মসংস্থান তৈরি করবে। পাশাপাশি লোডিংয়ের সময় কমাবে এবং ইউরোপীয় গ্রাহকের ডেটা নিরাপদে মজুদ করবে।

প্রসঙ্গত, ডেটা সেন্টারের জন্য টিকটকের আয়ারল্যান্ডকে বেছে নেয়ার পেছনে যুক্তি রয়েছে। কারণ ডেটা সেন্টারের জন্য ইউরোপের সবচেয়ে বড় কেন্দ্র এই আয়ারল্যান্ড। অ্যামাজন, ফেসবুক এবং গুগলের মতো বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানেরও অনেক কার্যক্রম চলে এই দেশ থেকে।

আয়ারল্যান্ডে ৪ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে ‘টিকটক’

 আইটি ডেস্ক 
০৭ আগস্ট ২০২০, ০৯:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চীনের বাইটড্যান্স মালিকানাধীন ক্ষুদ্র ভিডিও শেয়ারিংয়ের জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম টিকটক ইউরোপে ডেটা সেন্টার খুলতে যাচ্ছে।

সেজন্য তারা দ্বীপরাষ্ট্র আয়ারল্যান্ডকে বেছে নিয়েছে তারা। 

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, বৃহস্পতিবার টিকটকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আয়ারল্যান্ডে ডেটা সেন্টার বানানোর পরিকল্পনা করছে তারা। এতে ৪৯ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মূদ্রায় প্রায় ৪ হাজার ২৪০ কোটি টাকা) বিনিয়োগে করবে প্রতিষ্ঠানটি। আর পরিকল্পনা সফল হলে এটিই হবে টিকটকের প্রথম ডেটা সেন্টার।

এ বিষয়ে টিকটকের প্রধান তথ্য নিরাপত্তা কর্মকর্তা রোল্যান্ড ক্লাউটিয়ার বলেছেন, আমরা আশা করছি আয়ারল্যান্ডে টিকটকের ডেটা সেন্টারটি ২০২২ সালের শুরুতেই খোলা হবে এবং কার্যকর হবে। এটি শুরু হলে শত শত মানুষের নতুন কর্মসংস্থান তৈরি করবে। পাশাপাশি লোডিংয়ের সময় কমাবে এবং ইউরোপীয় গ্রাহকের ডেটা নিরাপদে মজুদ করবে।

প্রসঙ্গত, ডেটা সেন্টারের জন্য টিকটকের আয়ারল্যান্ডকে বেছে নেয়ার পেছনে যুক্তি রয়েছে। কারণ ডেটা সেন্টারের জন্য ইউরোপের সবচেয়ে বড় কেন্দ্র এই আয়ারল্যান্ড। অ্যামাজন, ফেসবুক এবং গুগলের মতো বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানেরও অনেক কার্যক্রম চলে এই দেশ থেকে।