‘ভারী বৃষ্টির কারণে প্রাচীরের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে টুকরো টুকরো হয়ে যায় বিমান’
jugantor
‘ভারী বৃষ্টির কারণে প্রাচীরের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে টুকরো টুকরো হয়ে যায় বিমান’

  অনলাইন ডেস্ক  

০৮ আগস্ট ২০২০, ০৩:৪৮:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারী বৃষ্টির কারণেই দুবাইফেরত ১৯১ যাত্রী নিয়ে ভারতের কেরালার কোঝিকোড বিমান বন্দরের রানওয়েতে ছিটকে পড়ে দুই টুকরো হয়ে যায় এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের একটি ফ্লাইটটি। এতে বিমানটির পাইলটসহ ১৭ নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, এনডিটিভি

কেরালার বনমন্ত্রী কে রাজু এনডিটিভিকে জানিয়েছেন, ভারী বৃষ্টির কারণে বিমানটি স্কিচড হয়ে একটি প্রাচীরের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে টুকরো টুকরো হয়ে পড়েছিল। দুর্ঘটনাটি অত্যন্ত গুরুতর। উদ্ধার অভিযান চলছে। সব যাত্রী সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এরোড্রোমে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনের বলা হয়েছে, শুক্রবার রাত সোয়া ৮টার কেরালার কোঝিকোড় বিমানবন্দরে রানওয়েতে ল্যান্ড করার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। অবতরণের সময় রানওয়েতে পিছলে গিয়ে একটি খাদে পড়ে যায় বিমানটি।

এনডিটিডি আরও জানিয়েছে, এদিন দুপুরে দুবাই থেকে বিমান কেরালার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে। কেরালার কোঝিকোড বিমান বন্দরে রানওয়েতে ছিটকে পড়ে। ওই অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের মধ্যেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনার পরে বিমানটিতে আগুন লাগেনি। উদ্ধার কাজ চলছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এ ১৭ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। উদ্ধার কাজ চলছে।

বিমানটি বন্দে ভারত প্রকল্পের অংশ। এটি করোনাভাইরাস মহামারীর সময়ে বিদেশ থেকে ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনার উদ্দেশে চলাচল করছে।

ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ফ্লাইটর‍্যাডার ২৪ অনুসারে, বিমানটি বিমানবন্দরে বেশ কয়েকবার চক্কর কেটেছিল এবং অবতরণের জন্য দু'বার চেষ্টাও করেছিল।

‘ভারী বৃষ্টির কারণে প্রাচীরের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে টুকরো টুকরো হয়ে যায় বিমান’

 অনলাইন ডেস্ক 
০৮ আগস্ট ২০২০, ০৩:৪৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারী বৃষ্টির কারণেই দুবাইফেরত ১৯১ যাত্রী নিয়ে ভারতের কেরালার কোঝিকোড বিমান বন্দরের রানওয়েতে ছিটকে পড়ে দুই টুকরো হয়ে যায় এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের একটি ফ্লাইটটি। এতে বিমানটির পাইলটসহ ১৭ নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, এনডিটিভি

কেরালার বনমন্ত্রী কে রাজু এনডিটিভিকে জানিয়েছেন, ভারী বৃষ্টির কারণে বিমানটি স্কিচড হয়ে একটি প্রাচীরের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে টুকরো টুকরো হয়ে পড়েছিল। দুর্ঘটনাটি অত্যন্ত গুরুতর। উদ্ধার অভিযান চলছে। সব যাত্রী সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এরোড্রোমে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনের বলা হয়েছে, শুক্রবার রাত সোয়া ৮টার কেরালার কোঝিকোড় বিমানবন্দরে রানওয়েতে ল্যান্ড করার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। অবতরণের সময় রানওয়েতে পিছলে গিয়ে একটি খাদে পড়ে যায় বিমানটি।

এনডিটিডি আরও জানিয়েছে, এদিন দুপুরে দুবাই থেকে বিমান কেরালার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে। কেরালার কোঝিকোড বিমান বন্দরে রানওয়েতে ছিটকে পড়ে। ওই অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের মধ্যেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনার পরে বিমানটিতে আগুন লাগেনি। উদ্ধার কাজ চলছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এ ১৭ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। উদ্ধার কাজ চলছে।

বিমানটি বন্দে ভারত প্রকল্পের অংশ। এটি করোনাভাইরাস মহামারীর সময়ে বিদেশ থেকে ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনার উদ্দেশে চলাচল করছে।

ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ফ্লাইটর‍্যাডার ২৪ অনুসারে, বিমানটি বিমানবন্দরে বেশ কয়েকবার চক্কর কেটেছিল এবং অবতরণের জন্য দু'বার চেষ্টাও করেছিল।