বুরকিনা ফাসোতে পশুর হাটে বন্দুকধারীদের গুলি, নিহত ২০
jugantor
বুরকিনা ফাসোতে পশুর হাটে বন্দুকধারীদের গুলি, নিহত ২০

  অনলাইন ডেস্ক  

০৮ আগস্ট ২০২০, ১৩:৫১:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

উত্তর আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোর একটি পশুর হাটে অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের হামলায় কমপক্ষে ২০ জন নিহত হয়েছেন।

দেশটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

তবে দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় ওই গ্রামটিতে হামলার দায় এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী স্বীকার করেনি। হত্যাকারীদের ধরতে সেনাবাহিনীর তল্লাশি অভিযান চলছে।খবর আল জাজিরা ও সিনহুয়ার।

ওই অঞ্চলের গভর্নর কর্নেল সাইদো সানো শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ফাদা এন’গোরমা অঞ্চলের নামোনগো গ্রামের পশুর হাটে আচমকা সাধারণ মানুষের ওপর হামলা চালায় অজ্ঞাত সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা। এতে প্রাথমিকভাবে ২০ জন নিহতের খবর নিশ্চিত করলেও বহু হতাহত হয়েছেন জানান তিনি।

এর আগে গত মে মাসে কোম্পিয়েনগার পূর্বাঞ্চলের এক গ্রামের পশুর হাটে হামলা চালিয়ে ২৫ জনকে হত্যা করে বন্দুকধারীরা।

২০১৭ সাল থেকে আল কায়েদা ও আইএসআইএলের সঙ্গে সম্পৃক্ত সশস্ত্র গোষ্ঠীর সঙ্গে লড়াই করছে বুরকিনা ফাসো। এই সশস্ত্র গোষ্ঠীদের বিরুদ্ধে বুরকিনা ফাসোর দুর্বল সামরিক বাহিনীকে সহায়তা করতে অঞ্চলটিতে রয়েছে ৫ হাজার ফরাসি সেনা।

গত পাঁচ বছরে ৯০০ বেশি মানুষ সশস্ত্র সংগঠনগুলোর হাতে মারা যায়, ৮ লাখ ৬০ হাজারের মতো লোক বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়েছে।

জাতিসংঘ জানিয়েছে, গত বছর বুরকিনা ফাসো, মালি ও নাইজারের ৪ হাজার মানুষ সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয়েছেন।

বুরকিনা ফাসোতে পশুর হাটে বন্দুকধারীদের গুলি, নিহত ২০

 অনলাইন ডেস্ক 
০৮ আগস্ট ২০২০, ০১:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

উত্তর আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোর একটি পশুর হাটে অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের হামলায় কমপক্ষে ২০ জন নিহত হয়েছেন।

দেশটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

তবে দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় ওই গ্রামটিতে হামলার দায় এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী স্বীকার করেনি। হত্যাকারীদের ধরতে সেনাবাহিনীর তল্লাশি অভিযান চলছে।খবর আল জাজিরা ও সিনহুয়ার।

ওই অঞ্চলের গভর্নর কর্নেল সাইদো সানো শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ফাদা এন’গোরমা অঞ্চলের নামোনগো গ্রামের পশুর হাটে আচমকা সাধারণ মানুষের ওপর হামলা চালায় অজ্ঞাত সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা। এতে প্রাথমিকভাবে ২০ জন নিহতের খবর নিশ্চিত করলেও বহু হতাহত হয়েছেন জানান তিনি।

এর আগে গত মে মাসে কোম্পিয়েনগার পূর্বাঞ্চলের এক গ্রামের পশুর হাটে হামলা চালিয়ে ২৫ জনকে হত্যা করে বন্দুকধারীরা।

২০১৭ সাল থেকে আল কায়েদা ও আইএসআইএলের সঙ্গে সম্পৃক্ত সশস্ত্র গোষ্ঠীর সঙ্গে লড়াই করছে বুরকিনা ফাসো। এই সশস্ত্র গোষ্ঠীদের বিরুদ্ধে বুরকিনা ফাসোর দুর্বল সামরিক বাহিনীকে সহায়তা করতে অঞ্চলটিতে রয়েছে ৫ হাজার ফরাসি সেনা।

গত পাঁচ বছরে ৯০০ বেশি মানুষ সশস্ত্র সংগঠনগুলোর হাতে মারা যায়, ৮ লাখ ৬০ হাজারের মতো লোক বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়েছে।

জাতিসংঘ জানিয়েছে, গত বছর বুরকিনা ফাসো, মালি ও নাইজারের ৪ হাজার মানুষ সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয়েছেন।