লজ্জাজনকভাবে হেরে যাওয়ার পর ট্রাম্পের নতুন হুমকি
jugantor
ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাব
লজ্জাজনকভাবে হেরে যাওয়ার পর ট্রাম্পের নতুন হুমকি

  অনলাইন ডেস্ক  

১৬ আগস্ট ২০২০, ১২:২২:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

লজ্জাজনকভাবে হেরে যাওয়ার পর ট্রাম্পের নতুন হুমকি

তেহরানের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করতে একতরফাভাবে একটি বিতর্কিত ধারা ব্যবহারের অঙ্গীকার করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।-খবর গার্ডিয়ান

এর আগে ইসলামি প্রজাতন্ত্রটির বিরুদ্ধে জাতিসংঘের এই অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার সময়সীমা বাড়াতে মার্কিন চেষ্টার ভরাডুবি হয়েছে। যেটাকে লজ্জাজনক পরাজয় বলে আখ্যায়িত করেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

নিউজার্সি গলফ ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ট্রাম্প বলেন, আমরা সাবেক অবস্থায় ফিরে যাব। আগামী সপ্তাহে আপনারা তা দেখতে পাবেন।

ট্রাম্পের আপত্তিকর যুক্তি হল, যুক্তরাষ্ট্র ২০১৫ সালের ইরানি পরমাণু চুক্তির অংশীদার হিসেবেই আছে। যে কারণে যুক্তরাষ্ট্র যদি দেখে, ইরান কোনো শর্ত লঙ্ঘন করেছে, তাহলে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করতে জোর করতে পারবে।

যদিও ওই চুক্তি থেকে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। নিষেধাজ্ঞা বহালে ওয়াশিংটন জবরদস্তি করতে পারবে কিনা; তা নিয়ে সন্দিহান ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ট্রাম্পের আগের অবস্থায় ফিরে যাওয়ার হুমকিতে কাউন্সিল এ যাবতকালের সবচেয়ে খারাপ কূটনৈতিক সংকটের ভেতরে পড়ে যাবে।

শনিবার হাসান রুহানি বলেন, শুক্রবার কাউন্সিলের ভোটে যুক্তরাষ্ট্রের লজ্জাজনক পরাজয় ঘটেছে।

কাউন্সিলের ১১ সদস্য ভোট দেয়া থেকে বিরত ছিল। যার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি ও ব্রিটেন আছে। আর চীন ও রাশিয়া মার্কিন প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র কেবল নিজের ও ডমিনিক্যান রিপাবলিকের ভোট পেয়েছে।

রুহানি বলেন, আমি মনে করতে চাই না, ইসলামিক প্রজাতন্ত্র ইরানকে ধাক্কা দিতে কয়েক মাস ধরে যুক্তরাষ্ট্র একটি প্রস্তাব প্রস্তুত করেছে, যার পক্ষে মাত্র একটি ভোট পড়েছে। কিন্তু বড় সফলতা হচ্ছে, মার্কিন ষড়যন্ত্রের লজ্জাজনক পরাজয় ঘটেছে।

ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাব

লজ্জাজনকভাবে হেরে যাওয়ার পর ট্রাম্পের নতুন হুমকি

 অনলাইন ডেস্ক 
১৬ আগস্ট ২০২০, ১২:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লজ্জাজনকভাবে হেরে যাওয়ার পর ট্রাম্পের নতুন হুমকি
ছবি: সংগৃহীত

তেহরানের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করতে একতরফাভাবে একটি বিতর্কিত ধারা ব্যবহারের অঙ্গীকার করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।-খবর গার্ডিয়ান

এর আগে ইসলামি প্রজাতন্ত্রটির বিরুদ্ধে জাতিসংঘের এই অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার সময়সীমা বাড়াতে মার্কিন চেষ্টার ভরাডুবি হয়েছে। যেটাকে লজ্জাজনক পরাজয় বলে আখ্যায়িত করেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

নিউজার্সি গলফ ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ট্রাম্প বলেন, আমরা সাবেক অবস্থায় ফিরে যাব। আগামী সপ্তাহে আপনারা তা দেখতে পাবেন।

ট্রাম্পের আপত্তিকর যুক্তি হল, যুক্তরাষ্ট্র ২০১৫ সালের ইরানি পরমাণু চুক্তির অংশীদার হিসেবেই আছে। যে কারণে যুক্তরাষ্ট্র যদি দেখে, ইরান কোনো শর্ত লঙ্ঘন করেছে, তাহলে নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করতে জোর করতে পারবে।

যদিও ওই চুক্তি থেকে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। নিষেধাজ্ঞা বহালে ওয়াশিংটন জবরদস্তি করতে পারবে কিনা; তা নিয়ে সন্দিহান ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ট্রাম্পের আগের অবস্থায় ফিরে যাওয়ার হুমকিতে কাউন্সিল এ যাবতকালের সবচেয়ে খারাপ কূটনৈতিক সংকটের ভেতরে পড়ে যাবে।

শনিবার হাসান রুহানি বলেন, শুক্রবার কাউন্সিলের ভোটে যুক্তরাষ্ট্রের লজ্জাজনক পরাজয় ঘটেছে।

কাউন্সিলের ১১ সদস্য ভোট দেয়া থেকে বিরত ছিল। যার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি ও ব্রিটেন আছে। আর চীন ও রাশিয়া মার্কিন প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র কেবল নিজের ও ডমিনিক্যান রিপাবলিকের ভোট পেয়েছে। 

রুহানি বলেন, আমি মনে করতে চাই না, ইসলামিক প্রজাতন্ত্র ইরানকে ধাক্কা দিতে কয়েক মাস ধরে যুক্তরাষ্ট্র একটি প্রস্তাব প্রস্তুত করেছে, যার পক্ষে মাত্র একটি ভোট পড়েছে। কিন্তু বড় সফলতা হচ্ছে, মার্কিন ষড়যন্ত্রের লজ্জাজনক পরাজয় ঘটেছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট