অবশেষে আমিরাত-ইসরাইল চুক্তি নিয়ে মুখ খুলল সৌদি
jugantor
অবশেষে আমিরাত-ইসরাইল চুক্তি নিয়ে মুখ খুলল সৌদি

  অনলাইন ডেস্ক  

২০ আগস্ট ২০২০, ১১:০১:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান

মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় আরব পিস ইনিশিয়েটিভের বিষয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ রয়েছে সৌদি আরব। এ ছাড়া অন্য কোনো চুক্তি না মানার ঘোষণা দিয়েছে দেশটি।

বুধবার জার্মানির বার্লিনে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ে তার দেশের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। খবর আল আরাবিয়ার।

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাসের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনায় ইরানের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানোরও আহ্বান জানান তিনি।

সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইসরাইলের গৃহীত একতরফা বিভিন্ন পদক্ষেপে পরিস্থিতি অশান্ত হওয়ার পাশাপাশি ফিলিস্তিনিদের আরও সংকটে ফেলছে।

এ ছাড়া ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড দখল করার জন্য ইহুদিবাদী রাষ্ট্রটির যে কোনো ধরনের একতরফা ব্যবস্থা গ্রহণে দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানকে হেয় করার শামিল বলে মনে করে সৌদি আরব।

ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে শান্তিচুক্তি করা ছাড়া ইসরাইলকে স্বীকৃতি বা দেশটির কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করা হবে না বলেও জানিয়ে দেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত ২০১২ সালে সৌদি আরব মধ্যপ্রাচ্যে আরব পিস ইনিশিয়েটিভের প্রস্তাব দেয়।

ওই প্রস্তাব অনুযায়ী, ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি এবং ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে দখলকৃত ভূখণ্ড থেকে ইসরাইলের দখলদারিত্ব পুরোপুরি প্রত্যাহারের বিনিময়ে দেশটির সঙ্গে আরব বিশ্বের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রস্তাব দেয় রিয়াদ।

অবশেষে আমিরাত-ইসরাইল চুক্তি নিয়ে মুখ খুলল সৌদি

 অনলাইন ডেস্ক 
২০ আগস্ট ২০২০, ১১:০১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান
সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান। ছবি: আল আরাবিয়া

মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় আরব পিস ইনিশিয়েটিভের বিষয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ রয়েছে সৌদি আরব। এ ছাড়া অন্য কোনো চুক্তি না মানার ঘোষণা দিয়েছে দেশটি।  

বুধবার জার্মানির বার্লিনে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহান মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ে তার দেশের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। খবর আল আরাবিয়ার।  

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাসের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনায় ইরানের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানোরও আহ্বান জানান তিনি।  

সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইসরাইলের গৃহীত একতরফা বিভিন্ন পদক্ষেপে পরিস্থিতি অশান্ত হওয়ার পাশাপাশি ফিলিস্তিনিদের আরও সংকটে ফেলছে।  

এ ছাড়া ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড দখল করার জন্য ইহুদিবাদী রাষ্ট্রটির যে কোনো ধরনের একতরফা ব্যবস্থা গ্রহণে দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানকে হেয় করার শামিল বলে মনে করে সৌদি আরব।

ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে শান্তিচুক্তি করা ছাড়া ইসরাইলকে স্বীকৃতি বা দেশটির কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করা হবে না বলেও জানিয়ে দেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। 

প্রসঙ্গত ২০১২ সালে সৌদি আরব মধ্যপ্রাচ্যে আরব পিস ইনিশিয়েটিভের প্রস্তাব দেয়। 

ওই প্রস্তাব অনুযায়ী, ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি এবং ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে দখলকৃত ভূখণ্ড থেকে ইসরাইলের দখলদারিত্ব পুরোপুরি প্রত্যাহারের বিনিময়ে দেশটির সঙ্গে আরব বিশ্বের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রস্তাব দেয় রিয়াদ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : শতাব্দীর সেরা সমঝোতা