লেবাননের রাজনীতিবিদদেরও প্রতি ম্যাক্রনের হুশিয়ারি
jugantor
লেবাননের রাজনীতিবিদদেরও প্রতি ম্যাক্রনের হুশিয়ারি

  অনলাইন ডেস্ক  

০২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৪৯:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

লেবাননের রাজনীতিবিদদেরও প্রতি ম্যাক্রনের হুশিয়ারি

দেশ পুনর্গঠনের কাজ তিন মাসের মধ্যে শুরু করতে না পারলে লেবাননের রাজনীতিবিদদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়ার হুমকি দিয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রন।

বৈরুতে বিস্ফোরণের দুদিন পর বিশ্বনেতাদের মধ্যে ম্যাক্রনই প্রথম লেবানন সফরে যান। সোমবার বিকালে তিনি আবারও বৈরুত গেছেন। এক মাসের কম সময়ের মধ্যে এটি তার দ্বিতীয়বার বৈরুত সফর।

এদিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিবিষয়ক সাময়িকী পলিটিকোকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ম্যাক্রন বলেন, বর্তমান প্রশাসনের জন্য এটিই সর্বশেষ সুযোগ। আমি জানি, আমি ঝুঁকিপূর্ণ বাজি ধরেছি... আমি হাতে থাকা একটি জিনিসই কাজে লাগাচ্ছি, তা হলো আমার রাজনৈতিক ক্ষমতা।

তিনি জানান, তিনি লেবাননের নেতাদের কাছে আগামী ছয় থেকে ১২ মাসের মধ্যে একটি নির্বাচন আয়োজনসহ বিশ্বাসযোগ্য প্রতিশ্রুতি এবং নিয়মিত তদারকির মাধ্যমে একটি কার্যকর উন্নয়ন ব্যবস্থা চান।

সোমবার ম্যাক্রন বৈরুত পৌঁছানোর কয়েক ঘণ্টা আগে মুস্তাফা আদিবকে দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।

লেবাননের অভিজাত মহলের দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে আন্তর্জাতিক চাপ বাড়াতে এবং দেশটির রাজনৈতিক সংস্কার ও অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে মূল ভূমিকায় থেকে কাজ করছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট।

এবারের সফরে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ধ্বংসস্তূপে পরিণত হওয়া বৈরুত বন্দর পরিদর্শনে যাবেন। এ ছাড়া তিনি লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন এবং অন্যান্য ক্ষেত্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সঙ্গেও বৈঠক করবেন।

ওদিকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর পরই আদিব দ্রুত একটি সরকার গঠন এবং শাসনব্যবস্থায় তাৎক্ষণিক সংস্কারের ডাক দিয়েছেন। তিনি আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সঙ্গেও একটি চুক্তি করতে চান।

লেবাননের রাজনীতিবিদদেরও প্রতি ম্যাক্রনের হুশিয়ারি

 অনলাইন ডেস্ক 
০২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৪৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লেবাননের রাজনীতিবিদদেরও প্রতি ম্যাক্রনের হুশিয়ারি
ছবি: এএফপি

দেশ পুনর্গঠনের কাজ তিন মাসের মধ্যে শুরু করতে না পারলে লেবাননের রাজনীতিবিদদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়ার হুমকি দিয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রন।

বৈরুতে বিস্ফোরণের দুদিন পর বিশ্বনেতাদের মধ্যে ম্যাক্রনই প্রথম লেবানন সফরে যান। সোমবার বিকালে তিনি আবারও বৈরুত গেছেন। এক মাসের কম সময়ের মধ্যে এটি তার দ্বিতীয়বার বৈরুত সফর।

এদিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিবিষয়ক সাময়িকী পলিটিকোকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ম্যাক্রন বলেন, বর্তমান প্রশাসনের জন্য এটিই সর্বশেষ সুযোগ। আমি জানি, আমি ঝুঁকিপূর্ণ বাজি ধরেছি... আমি হাতে থাকা একটি জিনিসই কাজে লাগাচ্ছি, তা হলো আমার রাজনৈতিক ক্ষমতা। 

তিনি জানান, তিনি লেবাননের নেতাদের কাছে আগামী ছয় থেকে ১২ মাসের মধ্যে একটি নির্বাচন আয়োজনসহ বিশ্বাসযোগ্য প্রতিশ্রুতি এবং নিয়মিত তদারকির মাধ্যমে একটি কার্যকর উন্নয়ন ব্যবস্থা চান।

সোমবার ম্যাক্রন বৈরুত পৌঁছানোর কয়েক ঘণ্টা আগে মুস্তাফা আদিবকে দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।

লেবাননের অভিজাত মহলের দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে আন্তর্জাতিক চাপ বাড়াতে এবং দেশটির রাজনৈতিক সংস্কার ও অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে মূল ভূমিকায় থেকে কাজ করছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট।

এবারের সফরে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ধ্বংসস্তূপে পরিণত হওয়া বৈরুত বন্দর পরিদর্শনে যাবেন। এ ছাড়া তিনি লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন এবং অন্যান্য ক্ষেত্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সঙ্গেও বৈঠক করবেন।

ওদিকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর পরই আদিব দ্রুত একটি সরকার গঠন এবং শাসনব্যবস্থায় তাৎক্ষণিক সংস্কারের ডাক দিয়েছেন। তিনি আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সঙ্গেও একটি চুক্তি করতে চান।

 

ঘটনাপ্রবাহ : লেবাননে বিস্ফোরণ