মাস্ক ব্যবহার না করলে কফিনে ঢুকিয়ে শাস্তি
jugantor
মাস্ক ব্যবহার না করলে কফিনে ঢুকিয়ে শাস্তি

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:৫৬:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

মাস্ক ব্যবহার না করলে কফিনে ঢুকিয়ে শাস্তি

ইন্দোনেশিয়ায় কেউ যদি মাস্ক বা স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী ব্যবহার না করে তাদের জরিমানা ও শাস্তি দেয়ার নতুন নিয়ম করা হয়েছে।

শাস্তি হিসেবে উন্মুক্ত কফিনের ভেতরে এক থেকে ১০০ পর্যন্ত গণনা করতে দেয়া হবে। কমপক্ষে এক মিনিট তাদের অন্যায় কাজ নিয়ে অনুশোচনা করতে বলা হবে।

জাকার্তার এক কর্মকর্তা জানান, করোনায় প্রতিদিন বিশ্বে বহু মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। এতেও যদি মানুষ সচেতন না হয় তাহলে বিষয়টা খুবই দুঃখজনক।

বিবিসি জানিয়েছে, মাস্কের প্রতি মানুষের অনীহার এ সমস্যা নিরসনে জাকার্তার পূর্বাঞ্চলীয় কালিসারি এলাকার কর্তৃপক্ষ কফিনে শোয়ানোর অভিনব কৌশলটি নিয়েছে।

ইস্ট জাকার্তা পাবলিক অর্ডিনেন্স এজেন্সির প্রধান বুধি নোভিয়ান সাংবাদিকদের বলেন, তারা আসলে বোঝাতে চাইছেন যে করোনায় সংক্রমিত হলে মৃত্যুঝুঁকি স্বাভাবিক কিছু নয়। তবে সাজা দেয়ার অভিনব কায়দাটি নিয়ে বিতর্কও সৃষ্টি হয়েছে।

কারণ, ইন্দোনেশিয়ায় প্রচলিত আইনে এ ধরনের কোনো সাজার উল্লেখ নেই। তাই গণহারে এই সাজা না দিয়ে প্রচলতি আইনানুসারে জরিমানা করতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন বুধি নোভিয়ান।

মাস্ক ব্যবহার না করলে কফিনে ঢুকিয়ে শাস্তি

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মাস্ক ব্যবহার না করলে কফিনে ঢুকিয়ে শাস্তি
ছবি: সংগৃহীত

ইন্দোনেশিয়ায় কেউ যদি মাস্ক বা স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী ব্যবহার না করে তাদের জরিমানা ও শাস্তি দেয়ার নতুন নিয়ম করা হয়েছে। 

শাস্তি হিসেবে উন্মুক্ত কফিনের ভেতরে এক থেকে ১০০ পর্যন্ত গণনা করতে দেয়া হবে। কমপক্ষে এক মিনিট তাদের অন্যায় কাজ নিয়ে অনুশোচনা করতে বলা হবে। 

জাকার্তার এক কর্মকর্তা জানান, করোনায় প্রতিদিন বিশ্বে বহু মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। এতেও যদি মানুষ সচেতন না হয় তাহলে বিষয়টা খুবই দুঃখজনক। 

বিবিসি জানিয়েছে, মাস্কের প্রতি মানুষের অনীহার এ সমস্যা নিরসনে জাকার্তার পূর্বাঞ্চলীয় কালিসারি এলাকার কর্তৃপক্ষ কফিনে শোয়ানোর অভিনব কৌশলটি নিয়েছে। 

ইস্ট জাকার্তা পাবলিক অর্ডিনেন্স এজেন্সির প্রধান বুধি নোভিয়ান সাংবাদিকদের বলেন, তারা আসলে বোঝাতে চাইছেন যে করোনায় সংক্রমিত হলে মৃত্যুঝুঁকি স্বাভাবিক কিছু নয়। তবে সাজা দেয়ার অভিনব কায়দাটি নিয়ে বিতর্কও সৃষ্টি হয়েছে।  

কারণ, ইন্দোনেশিয়ায় প্রচলিত আইনে এ ধরনের কোনো সাজার উল্লেখ নেই। তাই গণহারে এই সাজা না দিয়ে প্রচলতি আইনানুসারে জরিমানা করতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন বুধি নোভিয়ান।
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস