ফিলিস্তিনের স্থায়ী সমাধান চান বাদশাহ সালমান
jugantor
ফিলিস্তিনের স্থায়ী সমাধান চান বাদশাহ সালমান

  অনলাইন ডেস্ক  

০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:৫৭:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদি বাদশা সালমান

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে টেলিফোনে আরব পিস ইনিশিয়েটিভ নিয়ে আলাপ করেছেন সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ। এ সময় তিনি ফিলিস্তিন সঙ্কটের স্থায়ী ও সুষ্ঠু সমাধান চেয়েছেন। সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাত দিয়ে সোমবার এ খবর জানিয়েছে আরব নিউজ।

সৌদি আরবের আকাশপথ ইসরাইলকে ব্যবহারের অনুমতি দেয়ায় রোববার বাদশাহর সঙ্গে টেলিফোনে আলাপ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

২০০২ সালে সৌদি আরব মধ্যপ্রাচ্যে আরব পিস ইনিশিয়েটিভের প্রস্তাব দেয়। এই প্রস্তাব অনুযায়ী, ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি এবং ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে দখলিকৃত ভূখণ্ড থেকে ইসরায়েলের দখলদারিত্ব পুরোপুরি প্রত্যাহারের বিনিময়ে দেশটির সঙ্গে আরব বিশ্বের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রস্তাব দেয় রিয়াদ।

সৌদি প্রেস এজেন্সি বলছে, ট্রাম্পের সঙ্গে টেলিফোনে আলাপকালে ফিলিস্তিনি স্বার্থের স্থায়ী ও সুষ্ঠু সমাধানে পৌঁছাতে এবং শান্তি ফিরিয়ে আনার উদ্যোগে সৌদি আরবের সমর্থনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদশাহ সালমান।

এ ছাড়া দুই নেতার সঙ্গে জি২০ সম্মেলন নিয়েও আলোচানা হয়।

গত সপ্তাহে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে নিয়মিত সরাসরি বিমান চলাচল শুরুর ঘোষণা দেন। তার এই ঘোষণার পর ইসরাইল-আমিরাতের সব ধরনের বিমানের জন্য নিজেদের আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি দেয় সৌদি আরব।

হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে সৌদি বাদশাহর সঙ্গে ট্রাম্পের টেলিফোনে আলাপের বিষয়টি জানানো হয়েছে। এতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ইসরাইলের বিমানের জন্য সৌদি আরবের আকাশপথ খুলে দেয়ায় বাদশাহর প্রশংসা করেন।

বাদশাহ সালমান ফিলিস্তিন ইস্যু সুষ্ঠু সমাধানে সৌদি আরব বদ্ধপরিকর বলেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে জানিয়েছে।

ফিলিস্তিনের স্থায়ী সমাধান চান বাদশাহ সালমান

 অনলাইন ডেস্ক 
০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সৌদি বাদশা সালমান
সৌদি বাদশা সালমান। ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে টেলিফোনে আরব পিস ইনিশিয়েটিভ নিয়ে আলাপ করেছেন সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ। এ সময় তিনি ফিলিস্তিন সঙ্কটের স্থায়ী ও সুষ্ঠু সমাধান চেয়েছেন। সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাত দিয়ে সোমবার এ খবর জানিয়েছে আরব নিউজ। 

সৌদি আরবের আকাশপথ ইসরাইলকে ব্যবহারের অনুমতি দেয়ায় রোববার বাদশাহর সঙ্গে টেলিফোনে আলাপ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

২০০২ সালে সৌদি আরব মধ্যপ্রাচ্যে আরব পিস ইনিশিয়েটিভের প্রস্তাব দেয়। এই প্রস্তাব অনুযায়ী, ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি এবং ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে দখলিকৃত ভূখণ্ড থেকে ইসরায়েলের দখলদারিত্ব পুরোপুরি প্রত্যাহারের বিনিময়ে দেশটির সঙ্গে আরব বিশ্বের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রস্তাব দেয় রিয়াদ।

সৌদি প্রেস এজেন্সি বলছে, ট্রাম্পের সঙ্গে টেলিফোনে আলাপকালে ফিলিস্তিনি স্বার্থের স্থায়ী ও সুষ্ঠু সমাধানে পৌঁছাতে এবং শান্তি ফিরিয়ে আনার উদ্যোগে সৌদি আরবের সমর্থনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদশাহ সালমান।

এ ছাড়া দুই নেতার সঙ্গে জি২০ সম্মেলন নিয়েও আলোচানা হয়। 

গত সপ্তাহে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে নিয়মিত সরাসরি বিমান চলাচল শুরুর ঘোষণা দেন। তার এই ঘোষণার পর ইসরাইল-আমিরাতের সব ধরনের বিমানের জন্য নিজেদের আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি দেয় সৌদি আরব। 

হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে সৌদি বাদশাহর সঙ্গে ট্রাম্পের টেলিফোনে আলাপের বিষয়টি জানানো হয়েছে। এতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ইসরাইলের বিমানের জন্য সৌদি আরবের আকাশপথ খুলে দেয়ায় বাদশাহর প্রশংসা করেন।

বাদশাহ সালমান ফিলিস্তিন ইস্যু সুষ্ঠু সমাধানে সৌদি আরব বদ্ধপরিকর বলেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে জানিয়েছে। 

 

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ