নীল নদের তীরে ২৫০০ বছর পুরোনো অক্ষত কফিনের সন্ধান
jugantor
নীল নদের তীরে ২৫০০ বছর পুরোনো অক্ষত কফিনের সন্ধান

  অনলাইন ডেস্ক  

০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:৫৯:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

মিসরে নীল নদের তীরে সন্ধান মিলেছে আড়াই হাজার বছর পুরোনো বেশ কিছু কফিনের। এর সব একেবারেই অক্ষত।

মিসরের পর্যটন ও প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আল আনানির বরাতে রোববার এ তথ্য জানায় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস।

সংবাদমাধ্যমটি জানায়, নীল নদের তীরে গিজা শহরের সাকারা নেক্রোপলিস এলাকায় একটি প্রত্নতাত্ত্বিক সাইট থেকে এসব কফিন উদ্ধার হয়। সেখানে ১১ মিটার গভীর সুরক্ষিত খাদের ভেতরে ১৩টির বেশি কফিনের সংগ্রহ পাওয়া যায়। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা পরিদর্শনে যান মিসরের পর্যটন ও প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আল আনানি এবং প্রত্নতত্ত্ব কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তাফা ওয়াজিরি।

মিসরীয় সভ্যতার অমূল্য এসব নিদর্শন আবিষ্কারের পরপরই সাইটটিতে পরিদর্শনে যান মিসরের পর্যটন ও প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আল আনানি এবং প্রত্নতত্ত্ব কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তাফা ওয়াজিরি।

এ বিষয়ে মন্ত্রী খালেদ আল আনানি বলেন, ‘আসাসিফ সমাধিস্থলে আবিষ্কারের পর এটাই বেশি সংখ্যক কফিনের সন্ধানের ঘটনা।’

এমন আবিস্কারে অভিভূত প্রত্নতত্ত্ব কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তাফা ওয়াজিরি।

তিনি বলেন, ‘সাকারায় আবিষ্কৃত বর্ণিল কাঠের কফিনগুলো একটি দুর্দান্ত সংগ্রহ, আড়াই হাজার বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরেও এগুলোর রং এবং শিলালিপি এখনো ভাল অবস্থানে আছে।’

নীল নদের তীরে ২৫০০ বছর পুরোনো অক্ষত কফিনের সন্ধান

 অনলাইন ডেস্ক 
০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মিসরে নীল নদের তীরে সন্ধান মিলেছে আড়াই হাজার বছর পুরোনো বেশ কিছু কফিনের। এর সব একেবারেই অক্ষত। 

মিসরের পর্যটন ও প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আল আনানির বরাতে রোববার এ তথ্য জানায় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস। 

সংবাদমাধ্যমটি জানায়, নীল নদের তীরে গিজা শহরের সাকারা নেক্রোপলিস এলাকায় একটি প্রত্নতাত্ত্বিক সাইট থেকে এসব কফিন উদ্ধার হয়। সেখানে ১১ মিটার গভীর সুরক্ষিত খাদের ভেতরে ১৩টির বেশি কফিনের সংগ্রহ পাওয়া যায়। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা পরিদর্শনে যান মিসরের পর্যটন ও প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আল আনানি এবং প্রত্নতত্ত্ব কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তাফা ওয়াজিরি। 

মিসরীয় সভ্যতার অমূল্য এসব নিদর্শন আবিষ্কারের পরপরই সাইটটিতে পরিদর্শনে যান মিসরের পর্যটন ও প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আল আনানি এবং প্রত্নতত্ত্ব কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তাফা ওয়াজিরি।

এ বিষয়ে মন্ত্রী খালেদ আল আনানি বলেন, ‘আসাসিফ সমাধিস্থলে আবিষ্কারের পর এটাই বেশি সংখ্যক কফিনের সন্ধানের ঘটনা।’

এমন আবিস্কারে অভিভূত প্রত্নতত্ত্ব কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তাফা ওয়াজিরি। 

তিনি বলেন, ‘সাকারায় আবিষ্কৃত বর্ণিল কাঠের কফিনগুলো একটি দুর্দান্ত সংগ্রহ, আড়াই হাজার বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরেও এগুলোর রং এবং শিলালিপি এখনো ভাল অবস্থানে আছে।’