কাতারের বিরুদ্ধে সৌদি জোটের অবরোধ প্রত্যাহার হচ্ছে!
jugantor
কাতারের বিরুদ্ধে সৌদি জোটের অবরোধ প্রত্যাহার হচ্ছে!

  অনলাইন ডেস্ক  

১০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:০৭:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় অবশেষে কাতারের বিরুদ্ধে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোটের দীর্ঘ তিন বছরের অবরোধের অবসান ঘটতে যাচ্ছে।

আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এ অবরোধ প্রত্যাহার হতে পারে বলে বুধবার ইঙ্গিত দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এ সংক্রান্ত আলোচনায় এরই মধ্যে অগ্রগতি হয়েছে। এতে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর মধ্যে নমনীয়তাও দেখা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক শীর্ষ কূটনীতিক ডেভিড শেনকার অবশ্য জানিয়েছেন, আলোচনায় এখনও এমন কোনো মৌলিক পরিবর্তন হয়নি; যাতে করে দ্রুত সমাধানের দিকে অগ্রসর হওয়া যায়।

এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এ ইস্যুতে ডেভিড শেনকার বলেন, আমি পুরো কূটনৈতিক আলোচনায় যেতে চাই না। তবে কিছুটা অগ্রগতি তো হয়েছেই। আমার মনে হয়, অবরোধ উঠে যেতে কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতিতে প্রভাব বিস্তারে সৌদি আরবের আঞ্চলিক প্রতিপক্ষ ইরানের বিরুদ্ধে একটি ঐক্যবদ্ধ ফ্রন্ট গঠনের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে সৌদি জোটের কাতারবিরোধী অবরোধে ওই চেষ্টায় ফাটল ধরে।

তেহরানের বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হওয়ার বদলে দোহার মতো প্রভাবশালী মিত্রের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে রিয়াদ। এমন বাস্তবতায় সৌদি জোটের কাতারবিরোধী অবরোধ তুলে নেয়ার ব্যাপারে মধ্যস্থতার উদ্যোগ নেয় যুক্তরাষ্ট্র ও কুয়েত। দৃশ্যত ওই মধ্যস্থতা সফল হচ্ছে বলে ধরে নেয়া যায়।

ওয়াশিংটন মনে করে এ অঞ্চলে তার মিত্রদের মধ্যে বিবাদ ইরানকেই লাভবান করবে। ফলে যে কোনো মূল্যে নিজের মিত্রদের ইরানবিরোধী একই প্ল্যাটফরমে রাখতে চায় ট্রাম্প প্রশাসন।

কাতারের বিরুদ্ধে সৌদি জোটের অবরোধ প্রত্যাহার হচ্ছে!

 অনলাইন ডেস্ক 
১০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় অবশেষে কাতারের বিরুদ্ধে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোটের দীর্ঘ তিন বছরের অবরোধের অবসান ঘটতে যাচ্ছে।

আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এ অবরোধ প্রত্যাহার হতে পারে বলে বুধবার ইঙ্গিত দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এ সংক্রান্ত আলোচনায় এরই মধ্যে অগ্রগতি হয়েছে। এতে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর মধ্যে নমনীয়তাও দেখা গেছে।
 
যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক শীর্ষ কূটনীতিক ডেভিড শেনকার অবশ্য জানিয়েছেন, আলোচনায় এখনও এমন কোনো মৌলিক পরিবর্তন হয়নি; যাতে করে দ্রুত সমাধানের দিকে অগ্রসর হওয়া যায়।

এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এ ইস্যুতে ডেভিড শেনকার বলেন, আমি পুরো কূটনৈতিক আলোচনায় যেতে চাই না। তবে কিছুটা অগ্রগতি তো হয়েছেই। আমার মনে হয়, অবরোধ উঠে যেতে কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতিতে প্রভাব বিস্তারে সৌদি আরবের আঞ্চলিক প্রতিপক্ষ ইরানের বিরুদ্ধে একটি ঐক্যবদ্ধ ফ্রন্ট গঠনের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে সৌদি জোটের কাতারবিরোধী অবরোধে ওই চেষ্টায় ফাটল ধরে।

তেহরানের বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হওয়ার বদলে দোহার মতো প্রভাবশালী মিত্রের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে রিয়াদ। এমন বাস্তবতায় সৌদি জোটের কাতারবিরোধী অবরোধ তুলে নেয়ার ব্যাপারে মধ্যস্থতার উদ্যোগ নেয় যুক্তরাষ্ট্র ও কুয়েত। দৃশ্যত ওই মধ্যস্থতা সফল হচ্ছে বলে ধরে নেয়া যায়।

ওয়াশিংটন মনে করে এ অঞ্চলে তার মিত্রদের মধ্যে বিবাদ ইরানকেই লাভবান করবে। ফলে যে কোনো মূল্যে নিজের মিত্রদের ইরানবিরোধী একই প্ল্যাটফরমে রাখতে চায় ট্রাম্প প্রশাসন।