মালয়েশিয়ায় বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে প্রধান প্রধান সড়ক
jugantor
মালয়েশিয়ায় বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে প্রধান প্রধান সড়ক

  আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে  

১১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২১:৪৭:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় বয়ে গেছে মুষলধারে বৃষ্টি। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা থেকে শুরু হওয়া প্রচুর বৃষ্টিপাতের কারণে রাজধানী কুয়ালালামপুরের প্রধান প্রধান সড়ক ও এলাকা বন্যায় তলিয়ে গেছে। ফলে সাধারণের চলাচলে মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটেছে।

সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোর মধ্যে রয়েছে- জালান ডাং ওয়াঙ্গি, মসজিদ জামেক, জালান ক্যাম্পবেল, আমপাং মহাসড়ক এবং ওয়াংসা মাজু এলআরটি স্টেশন।

বিষয়টি নিয়ে সিটি ফায়ার অ্যান্ড রেসকিউ বিভাগের মুখপাত্রের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সংশ্লিষ্টরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন এবং সময়ে সময়ে প্রেস আপডেট করছেন।

এদিকে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা নগরীতে বন্যার পরিমাণ সম্পর্কে ছবি ও ভিডিও আপলোড করেছেন। কিছু চিত্রে দেখা গেছে জালান টুন এইচএসলির অংশগুলো প্লাবিত হয়েছে।

অন্য একটি ভিডিওতে জালান ডাং ওয়াঙ্গি, মসজিদ জামেক ডুবে থাকলেও বৃষ্টির পানি নামতে শুরু করেছে। মালয়েশিয়া সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসছে। তবে ক্ষতির পরিমাণ এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জানা যায়নি।

মালয়েশিয়ায় বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে প্রধান প্রধান সড়ক

 আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে 
১১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় বয়ে গেছে মুষলধারে বৃষ্টি। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা থেকে শুরু হওয়া প্রচুর বৃষ্টিপাতের কারণে রাজধানী কুয়ালালামপুরের প্রধান প্রধান সড়ক ও এলাকা বন্যায় তলিয়ে গেছে। ফলে সাধারণের চলাচলে মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটেছে।

সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোর মধ্যে রয়েছে- জালান ডাং ওয়াঙ্গি, মসজিদ জামেক, জালান ক্যাম্পবেল, আমপাং মহাসড়ক এবং ওয়াংসা মাজু এলআরটি স্টেশন।

বিষয়টি নিয়ে সিটি ফায়ার অ্যান্ড রেসকিউ বিভাগের মুখপাত্রের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সংশ্লিষ্টরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন এবং সময়ে সময়ে প্রেস আপডেট করছেন।

এদিকে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা নগরীতে বন্যার পরিমাণ সম্পর্কে ছবি ও ভিডিও আপলোড করেছেন। কিছু চিত্রে দেখা গেছে জালান টুন এইচএসলির অংশগুলো প্লাবিত হয়েছে।

অন্য একটি ভিডিওতে জালান ডাং ওয়াঙ্গি, মসজিদ জামেক ডুবে থাকলেও বৃষ্টির পানি নামতে শুরু করেছে। মালয়েশিয়া সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসছে। তবে ক্ষতির পরিমাণ এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জানা যায়নি।