চীনা নজরদারিতে মোদি-সোনিয়া-মমতা ও টেন্ডুলকার!
jugantor
চীনা নজরদারিতে মোদি-সোনিয়া-মমতা ও টেন্ডুলকার!

  অনলাইন ডেস্ক  

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:০৪:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

চীনা নজরদারিতে মোদি-সোনিয়া-মমতা ও টেন্ডুলকার!

ভারতের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে বিভিন্ন ক্ষেত্রের অন্তত ১০ হাজার বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের ওপর নজরদারি চালাচ্ছে চীন।

এদের মধ্যে কংগ্রেস প্রধান সোনিয়া গান্ধী, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তারকা ক্রিকেটার শচিন টেন্ডুলকারও রয়েছেন।

চীনের একটি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা নিয়মিত তাদের ওপর নজরদারি চালাচ্ছে বলে দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের অনুসন্ধানী রিপোর্টে উঠে এসেছে। লাদাখ ও দক্ষিণ চীন সাগরের উত্তেজনার মধ্যেই এমন খবর সামনে প্রকাশিত হল।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজনীতি থেকে বিনোদন, ক্রীড়া থেকে সংবাদমাধ্যম— এমনকি, ভারতের অপরাধী ও জঙ্গিদের সম্পর্কেও বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করছে চীনের ‘শেনহুয়া ডেটা ইনফরমেশন টেকনোলজি কোম্পানি লিমিটেড’।

চীন সরকার, চীনা কমিউনিস্ট পার্টি, চীনের সেনাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সরকারি প্রতিষ্ঠান ও সংস্থাকেও তথ্য সরবরাহ করে সংস্থাটি। ফলে তাদের সেই তথ্য বেইজিংয়ের হাতেও পৌঁছেছে বলে আশঙ্কা করছেন ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ও কূটনীতিকরা।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের দাবি, নজরদারির তালিকায় রয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও তার পরিবারের সদস্যরা, সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহসহ শীর্ষ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, নির্মলা সীতারামন, স্মৃতি ইরানি, পীযূষ গয়ালের মতো কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরাও নজরদারির আওতায় রয়েছেন। শচিনের মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটারের তথ্যও সংগ্রহ করে চীনা সংস্থাটি।

চীনা নজরদারিতে মোদি-সোনিয়া-মমতা ও টেন্ডুলকার!

 অনলাইন ডেস্ক 
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চীনা নজরদারিতে মোদি-সোনিয়া-মমতা ও টেন্ডুলকার!
ছবি: আনন্দবাজার পত্রিকা

ভারতের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে বিভিন্ন ক্ষেত্রের অন্তত ১০ হাজার বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের ওপর নজরদারি চালাচ্ছে চীন। 

এদের মধ্যে কংগ্রেস প্রধান সোনিয়া গান্ধী, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তারকা ক্রিকেটার শচিন টেন্ডুলকারও রয়েছেন। 

চীনের একটি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা নিয়মিত তাদের ওপর নজরদারি চালাচ্ছে বলে দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের অনুসন্ধানী রিপোর্টে উঠে এসেছে। লাদাখ ও দক্ষিণ চীন সাগরের উত্তেজনার মধ্যেই এমন খবর সামনে প্রকাশিত হল। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজনীতি থেকে বিনোদন, ক্রীড়া থেকে সংবাদমাধ্যম— এমনকি, ভারতের অপরাধী ও জঙ্গিদের সম্পর্কেও বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করছে চীনের ‘শেনহুয়া ডেটা ইনফরমেশন টেকনোলজি কোম্পানি লিমিটেড’। 

চীন সরকার, চীনা কমিউনিস্ট পার্টি, চীনের সেনাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সরকারি প্রতিষ্ঠান ও সংস্থাকেও তথ্য সরবরাহ করে সংস্থাটি। ফলে তাদের সেই তথ্য বেইজিংয়ের হাতেও পৌঁছেছে বলে আশঙ্কা করছেন ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ও কূটনীতিকরা।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের দাবি, নজরদারির তালিকায় রয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও তার পরিবারের সদস্যরা, সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহসহ শীর্ষ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। 

প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, নির্মলা সীতারামন, স্মৃতি ইরানি, পীযূষ গয়ালের মতো কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরাও নজরদারির আওতায় রয়েছেন। শচিনের মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটারের তথ্যও সংগ্রহ করে চীনা সংস্থাটি। 
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : সীমান্তে চীন-ভারত উত্তেজনা

আরও খবর