মন্ত্রিসভা গঠনে মনোযোগী ইশিহিডি সোগা
jugantor
মন্ত্রিসভা গঠনে মনোযোগী ইশিহিডি সোগা

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:২১:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

জাপানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাওয়া ইশিহিডি সোগা দেশ শাসনের ক্ষেত্রে তার পূর্বসূরি শিনজো অ্যাবের নীতিই বহাল রাখতে যাচ্ছেন। 

জাপানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাওয়া ইশিহিডি সোগা দেশ শাসনের ক্ষেত্রে তার পূর্বসূরি শিনজো অ্যাবের নীতিই বহাল রাখতে যাচ্ছেন।

প্রতিশ্রুতি অনুসারে মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ও দলীয় কর্মকর্তাদের স্ব স্ব পদে রাখার কথা জানিয়েছেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবের দীর্ঘসময়ের অনুগত সহকারী ও মন্ত্রিপরিষদ সচিব সোগা সোমবার ক্ষমতাসীন লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (এলডিপি) প্রধান হিসেবে ব্যাপক ভোটে বিজয়ী হয়েছেন।

অ্যাবের শুরু করা বিভিন্ন কর্মসূচি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। যার মধ্যে অ্যাবের ‘অর্থনৈতিক কৌশল’ অ্যাবেনোমিক্স অন্যতম।

দায়িত্বগ্রহণের পর অতিসংক্রামক করোনাভাইরাসের মোকাবেলার পাশাপাশি তাকে অনেক প্রতিকূলতার মুখোমুখি হতে হবে।

মহামারীর কারণে দেশটির অর্থনীতিও বিপর্যয়ের মধ্যে পড়ে গেছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণ দরকার বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

বিশ্বের তৃতীয় অর্থনীতির দেশটিতে বয়স্ক মানুষের সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে। জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশেরই বয়স ৬৫ বছরের বেশি।

খবরে বলা হয়, বাণিজ্যমন্ত্রী তারো আসো ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী টোসিমিটসু তাদের নিজেদের দায়িত্বেই বহাল থাকছেন। দলীয় মহাসচিব টোশিহিরো নিকাইও তার পদে থাকছেন।

তবে ইয়াসুটোসি নিশিমুরাকে ফের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হতে পারে বলে সম্ভাবনার কথা বলা হচ্ছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী কাটসুনোবু কাটোকে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দায়িত্ব দেয়া হতে পারে। জাপানের করোনাভাইরাস মোকাবেলা চেষ্টার কারণে তার চেহারা মানুষের কাছে পরিচিত হয়ে গেছে।

তিনি সোগার খুবই ঘনিষ্ঠ একজন মানুষ। তার অধীন উপ-প্রধান মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দায়িত্ব পালন করেছেন সোগা।

সোমবার যখন তাকে জিজ্ঞাসা করা হয় যে তার জায়গায় কে বসবেন, তখন তিনি বলেন, অনেক ভিন্ন ভিন্ন জিনিসই দরকার।

মন্ত্রিসভা গঠনে মনোযোগী ইশিহিডি সোগা

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:২১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জাপানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাওয়া ইশিহিডি সোগা দেশ শাসনের ক্ষেত্রে তার পূর্বসূরি শিনজো অ্যাবের নীতিই বহাল রাখতে যাচ্ছেন। 
ছবি: সংগৃহীত

জাপানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাওয়া ইশিহিডি সোগা দেশ শাসনের ক্ষেত্রে তার পূর্বসূরি শিনজো অ্যাবের নীতিই বহাল রাখতে যাচ্ছেন। 

প্রতিশ্রুতি অনুসারে মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ও দলীয় কর্মকর্তাদের স্ব স্ব পদে রাখার কথা জানিয়েছেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। 

বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবের দীর্ঘসময়ের অনুগত সহকারী ও মন্ত্রিপরিষদ সচিব সোগা সোমবার ক্ষমতাসীন লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (এলডিপি) প্রধান হিসেবে ব্যাপক ভোটে বিজয়ী হয়েছেন।

অ্যাবের শুরু করা বিভিন্ন কর্মসূচি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। যার মধ্যে অ্যাবের ‘অর্থনৈতিক কৌশল’ অ্যাবেনোমিক্স অন্যতম।

দায়িত্বগ্রহণের পর অতিসংক্রামক করোনাভাইরাসের মোকাবেলার পাশাপাশি তাকে অনেক প্রতিকূলতার মুখোমুখি হতে হবে। 

মহামারীর কারণে দেশটির অর্থনীতিও বিপর্যয়ের মধ্যে পড়ে গেছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণ দরকার বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

বিশ্বের তৃতীয় অর্থনীতির দেশটিতে বয়স্ক মানুষের সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে। জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশেরই বয়স ৬৫ বছরের বেশি।

খবরে বলা হয়, বাণিজ্যমন্ত্রী তারো আসো ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী টোসিমিটসু তাদের নিজেদের দায়িত্বেই বহাল থাকছেন। দলীয় মহাসচিব টোশিহিরো নিকাইও তার পদে থাকছেন।

তবে ইয়াসুটোসি নিশিমুরাকে ফের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হতে পারে বলে সম্ভাবনার কথা বলা হচ্ছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী কাটসুনোবু কাটোকে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দায়িত্ব দেয়া হতে পারে। জাপানের করোনাভাইরাস মোকাবেলা চেষ্টার কারণে তার চেহারা মানুষের কাছে পরিচিত হয়ে গেছে। 

তিনি সোগার খুবই ঘনিষ্ঠ একজন মানুষ। তার অধীন উপ-প্রধান মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দায়িত্ব পালন করেছেন সোগা।

সোমবার যখন তাকে জিজ্ঞাসা করা হয় যে তার জায়গায় কে বসবেন, তখন তিনি  বলেন, অনেক ভিন্ন ভিন্ন জিনিসই দরকার।