ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ
jugantor
ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:৫০:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ

ফ্রান্সের প্রধান নগরীগুলোতে বার ও রেস্তোরাঁগুলোতে নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপের একদিন পর বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ডসংখ্যক কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বার ও রেস্তোরাঁয় বিধিনিষেধ আরোপে স্থানীয় রাজনীতিবিদ এবং ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ফ্রান্সের গণস্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ১৬ হাজার ৯৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রথম ধাপে মার্চ-এপ্রিলে টেস্টে সংক্রমিতদের আংশিকমাত্র প্রতিফলিত হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনের কেন্দীয় সরকার বুধবার করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে মার্সেইতে সব বার ও রেস্তোরাঁ বন্ধসহ বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। এর আগে প্যারিসসহ অন্যত্র বিধিনিষেধ আরোপ করে।

নতুন আরোপিত বিধিনিষেধের কারণে প্যারিস ও মার্সেইয়ের মেয়র বার মালিকদের পক্ষ থেকে সমালোচনা এবং আইনি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী জেন কাসটেক্স বৃহস্পতিবার নিষেধাজ্ঞার কারণে বার ও রেস্তোরাঁ বন্ধ হওয়ায় ব্যবসায়ীদের সহযোগিতার ঘোষণা দিয়েছেন।

তিন সপ্তাহে প্যারিসের হাসপাতালে করোনা রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ বেড়ে ১৫০ থেকে ৩৩০ জনে দাঁড়িয়েছে।

চলতি মাসের শেষ নাগাদ এই সংখ্যা ৬০০ জনে পৌঁছাতে পারে।

ইনসেনটিভ কেয়ারে রোগীর সংখ্যা তিন সপ্তাহ আগের ৫০ জন থেকে বেড়ে বুধবার ১৩২ জনে দাঁড়িয়েছে। আগামী সপ্তাহে এ সংখ্যা ২০০ জন ছাড়িয়ে যেতে পারে।

ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফ্রান্সে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ
ছবি: এএফপি

ফ্রান্সের প্রধান নগরীগুলোতে বার ও রেস্তোরাঁগুলোতে নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপের একদিন পর বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ডসংখ্যক কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

বার ও রেস্তোরাঁয় বিধিনিষেধ আরোপে স্থানীয় রাজনীতিবিদ এবং ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ফ্রান্সের গণস্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ১৬ হাজার ৯৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রথম ধাপে মার্চ-এপ্রিলে টেস্টে সংক্রমিতদের আংশিকমাত্র প্রতিফলিত হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনের কেন্দীয় সরকার বুধবার করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে মার্সেইতে সব বার ও রেস্তোরাঁ বন্ধসহ বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। এর আগে প্যারিসসহ অন্যত্র বিধিনিষেধ আরোপ করে।

নতুন আরোপিত বিধিনিষেধের কারণে প্যারিস ও মার্সেইয়ের মেয়র বার মালিকদের পক্ষ থেকে সমালোচনা এবং আইনি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী জেন কাসটেক্স বৃহস্পতিবার নিষেধাজ্ঞার কারণে বার ও রেস্তোরাঁ বন্ধ হওয়ায় ব্যবসায়ীদের সহযোগিতার ঘোষণা দিয়েছেন।

তিন সপ্তাহে প্যারিসের হাসপাতালে করোনা রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ বেড়ে ১৫০ থেকে ৩৩০ জনে দাঁড়িয়েছে। 

চলতি মাসের শেষ নাগাদ এই সংখ্যা ৬০০ জনে পৌঁছাতে পারে।

ইনসেনটিভ কেয়ারে রোগীর সংখ্যা তিন সপ্তাহ আগের ৫০ জন থেকে বেড়ে বুধবার ১৩২ জনে দাঁড়িয়েছে। আগামী সপ্তাহে এ সংখ্যা ২০০ জন ছাড়িয়ে যেতে পারে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস