হোয়াটসঅ্যাপে মাদকসংক্রান্ত গ্রুপের অ্যাডমিন দীপিকা!
jugantor
হোয়াটসঅ্যাপে মাদকসংক্রান্ত গ্রুপের অ্যাডমিন দীপিকা!
শনিবার নারকোটিক্স দফতরে জিজ্ঞাবাদ

  অনলাইন ডেস্ক  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৪০:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

বলিউডের এই মুহূর্তের সবচেয়ে ‘দামী’ অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের ঘনিষ্ঠ বেশ কয়েক জনকে জেরা করে চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছে ভারতের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)।

এ কারণে শনিবার মাদককাণ্ডে জিজ্ঞাবাদের জন্য এনসিবি দফতরে হাজির হচ্ছেন বলিউডের এ অভিনেত্রী। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বলিউড তারকা সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে নামী-দামী অনেক তারকারই ডাক পড়ছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থায়।

গোয়েন্দা সংস্থা বলছে, সুশান্তের সাবেক ট্যালেন্ট ম্যানেজার জয়া সাহা, দীপিকার ম্যানেজার কারিশ্মা প্রকাশ এবং দীপিকা নিজেও একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত ছিলেন, যেখানে নিয়মিত মাদক সংক্রান্ত আলোচনা চলত।

এনসিবি ভরছে, জেরায় জয়া জানিয়েছেন ওই গ্রুপের অ্যাডমিন ছিলেন দীপিকাই। জয়া গ্রুপটি তৈরি করেছিলেন এবং মেম্বার ছিলেন কারিশ্মা।

এই তথ্য প্রকাশ্যে আসতেই বহুল চর্চিত ‘ডি’ এবং ‘কে’র মাদক সংক্রান্ত যে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছিল তা যে আদপে দীপিকা এবং করিশ্মারই সেই তথ্য ক্রমশ জোরালো হয়ে উঠছে।

এর আগে প্রায় ৭ ঘণ্টা করিশ্মাকে জেরা করেছে এনসিবি। এ সময় নতুন তথ্য ফাঁস করেছেন কারিশ্মা। শনিবার আবার তাকে ডেকে পাঠিয়েছে এনসিবি। এদিন মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হতে পারে দীপিকা এবং কারিশ্মাকে।

হোয়াটসঅ্যাপে মাদকসংক্রান্ত গ্রুপের অ্যাডমিন দীপিকা!

শনিবার নারকোটিক্স দফতরে জিজ্ঞাবাদ
 অনলাইন ডেস্ক 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৪০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বলিউডের এই মুহূর্তের সবচেয়ে ‘দামী’ অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের ঘনিষ্ঠ বেশ কয়েক জনকে জেরা করে চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছে ভারতের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)।

এ কারণে শনিবার মাদককাণ্ডে জিজ্ঞাবাদের জন্য এনসিবি দফতরে হাজির হচ্ছেন বলিউডের এ অভিনেত্রী। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

বলিউড তারকা সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে নামী-দামী অনেক তারকারই ডাক পড়ছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থায়।

গোয়েন্দা সংস্থা বলছে, সুশান্তের সাবেক ট্যালেন্ট ম্যানেজার জয়া সাহা, দীপিকার ম্যানেজার কারিশ্মা প্রকাশ এবং দীপিকা নিজেও একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত ছিলেন, যেখানে নিয়মিত মাদক সংক্রান্ত আলোচনা চলত।

এনসিবি ভরছে, জেরায় জয়া জানিয়েছেন ওই গ্রুপের অ্যাডমিন ছিলেন দীপিকাই। জয়া গ্রুপটি তৈরি করেছিলেন এবং মেম্বার ছিলেন কারিশ্মা।

এই তথ্য প্রকাশ্যে আসতেই বহুল চর্চিত ‘ডি’ এবং ‘কে’র মাদক সংক্রান্ত যে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছিল তা যে আদপে দীপিকা এবং করিশ্মারই সেই তথ্য ক্রমশ জোরালো হয়ে উঠছে।

এর আগে প্রায় ৭ ঘণ্টা করিশ্মাকে জেরা করেছে এনসিবি। এ সময় নতুন তথ্য ফাঁস করেছেন কারিশ্মা। শনিবার আবার তাকে ডেকে পাঠিয়েছে এনসিবি। এদিন মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হতে পারে দীপিকা এবং কারিশ্মাকে।