সিরিয়ায় গোপনে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছেন মার্কিন সেনারা
jugantor
সিরিয়ায় গোপনে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছেন মার্কিন সেনারা

  অনলাইন ডেস্ক  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:৪৪:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরিয়ায় মোতায়েন করা মার্কিন সেনারা অতি গোপন ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছে।

এসব ক্ষেপণাস্ত্র ড্রোন থেকে ছোড়ার পর প্রচণ্ড শব্দে বিস্ফোরিত হচ্ছে না, তা ব্লেডের মতো উড়ে গিয়ে লক্ষ্য বস্তুতে আঘাত করছে এবং গোপনেই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হচ্ছে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

আমেরিকা সরকারিভাবে এ ক্ষেপণাস্ত্রকে হেলফায়ার এজিএম-১১৪আর৯এক্স নামকরণ করেছে যাকে সংক্ষেপে আর৯এক্স বলা হয়।

কখনও কখনও এ ক্ষেপণাস্ত্রকে ‘ফ্লাইং জিনশু’ নামেও ডাকা হয়। মার্কিন জয়েন্ট স্পেশাল অপারেশন্স কমান্ডে এ ক্ষেপণাস্ত্রের ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে এবং গুপ্তহত্যার জন্য তা ব্যবহার করা হচ্ছে।

আর৯এক্স ক্ষেপণাস্ত্র ১০০ পাউন্ড ওজনের ওয়ারহেড বহন করে এবং অত্যন্ত দ্রুতগতিতে উড়ে যেতে সক্ষম। এতে ছয়টি ব্লেড থাকে, যা নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে টুকরো টুকরো করে ফেলে। এ ক্ষেপণাস্ত্র ভবনের দেয়ালের মতো শক্ত বাধা ভেদ করতে সক্ষম।

সর্বশেষ গত ১৪ সেপ্টেম্বর সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে আল কায়েদার শীর্ষ কমান্ডার সাইয়াফ আল-তুনসিকে হত্যায় এ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে।

সিরিয়ায় গোপনে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছেন মার্কিন সেনারা

 অনলাইন ডেস্ক 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরিয়ায় মোতায়েন করা মার্কিন সেনারা অতি গোপন ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছে।

এসব ক্ষেপণাস্ত্র ড্রোন থেকে ছোড়ার পর প্রচণ্ড শব্দে বিস্ফোরিত হচ্ছে না,   তা ব্লেডের মতো উড়ে গিয়ে লক্ষ্য বস্তুতে আঘাত করছে এবং গোপনেই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হচ্ছে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

আমেরিকা সরকারিভাবে এ ক্ষেপণাস্ত্রকে হেলফায়ার এজিএম-১১৪আর৯এক্স নামকরণ করেছে যাকে সংক্ষেপে আর৯এক্স বলা হয়।

কখনও কখনও এ ক্ষেপণাস্ত্রকে ‘ফ্লাইং জিনশু’ নামেও ডাকা হয়। মার্কিন জয়েন্ট স্পেশাল অপারেশন্স কমান্ডে এ ক্ষেপণাস্ত্রের ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে এবং গুপ্তহত্যার জন্য তা ব্যবহার করা হচ্ছে।

আর৯এক্স ক্ষেপণাস্ত্র ১০০ পাউন্ড ওজনের ওয়ারহেড বহন করে এবং অত্যন্ত দ্রুতগতিতে উড়ে যেতে সক্ষম। এতে ছয়টি ব্লেড থাকে, যা নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে টুকরো টুকরো করে ফেলে। এ ক্ষেপণাস্ত্র ভবনের দেয়ালের মতো শক্ত বাধা ভেদ করতে সক্ষম।

সর্বশেষ গত ১৪ সেপ্টেম্বর সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে আল কায়েদার শীর্ষ কমান্ডার সাইয়াফ আল-তুনসিকে হত্যায় এ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে।