ভারতে সব কার্যক্রম স্থগিত করল অ্যামনেস্টি
jugantor
ভারতে সব কার্যক্রম স্থগিত করল অ্যামনেস্টি

  অনলাইন ডেস্ক  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:০৬:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতে সব কার্যক্রম স্থগিত করল অ্যামনেস্টি

সরকারি প্রতিশোধের মুখে ভারতে নিজের কার্যক্রম স্থগিত করতে বাধ্য হওয়ার কথা জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। মানবাধিকার সংস্থাটির অভিযোগ, তাদের বিরুদ্ধে সরকার নিপীড়নে মেতে উঠেছে।

অ্যামনেস্টির ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়েছে। কর্মীদের ছাঁটাই, সব প্রচার ও গবেষণা কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে বাধ্য করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত সরকারের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

সংস্থাটির গবেষণা, অ্যাডভোকেসি ও নীতিবিষয়ক জ্যেষ্ঠ পরিচালক রজত খোসলা বলেন, ভারতে আমরা এক নরিজবিহীন পরিস্থিতির মুখোমুখি। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে পরিকল্পিতভাবে সরকার অব্যাহত আক্রমণ, হয়রানি ও নিপীড়ন চালিয়ে যাচ্ছে ভারত সরকার।

এ সংস্থার ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব জুলি ভেরার বলেন, ভারত সরকারের এ ভয়ঙ্কর ও লজ্জাজনক পদক্ষেপের ফলে সেখানে মানবাধিকার বিষয়ক আমাদের গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো আপাতত থমকে গেছে।

‘তবে ভারতে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আমাদের অঙ্গীকার এবং সম্পৃক্ততার অবসান তাতে হয়নি। সামনের দিনগুলোতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল কীভাবে ভারতের মানবাধিকার আন্দোলনে ভূমিকা রাখতে পারে, তা আমরা খুঁজে বের করব।’

এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে লিখেছে, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ভারতের ফরেইন কন্ট্রিবিউশন অ্যাক্টের আওতায় নিবন্ধন নেয়নি- এই যুক্তিতে সরকার তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। ভারতে কোনো এনজিওর বিদেশি তহবিল নিতে গেলে ওই আইনে নিবন্ধিত হতে হয়।

তবে অ্যামনেস্টি দাবি করেছে, ভারতীয় ও আন্তর্জাতিক সব নিয়ম মেনেই তারা সেখানে কাজ করে আসছে।

ভারতে সব কার্যক্রম স্থগিত করল অ্যামনেস্টি

 অনলাইন ডেস্ক 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভারতে সব কার্যক্রম স্থগিত করল অ্যামনেস্টি
ছবি: সংগৃহীত

সরকারি প্রতিশোধের মুখে ভারতে নিজের কার্যক্রম স্থগিত করতে বাধ্য হওয়ার কথা জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। মানবাধিকার সংস্থাটির অভিযোগ, তাদের বিরুদ্ধে সরকার নিপীড়নে মেতে উঠেছে। 

অ্যামনেস্টির ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়েছে। কর্মীদের ছাঁটাই, সব প্রচার ও গবেষণা কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে বাধ্য করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত সরকারের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

সংস্থাটির গবেষণা, অ্যাডভোকেসি  ও নীতিবিষয়ক জ্যেষ্ঠ পরিচালক রজত খোসলা বলেন, ভারতে আমরা এক নরিজবিহীন পরিস্থিতির মুখোমুখি। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে পরিকল্পিতভাবে সরকার অব্যাহত আক্রমণ, হয়রানি ও নিপীড়ন চালিয়ে যাচ্ছে ভারত সরকার।

এ সংস্থার ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব জুলি ভেরার বলেন, ভারত সরকারের এ ভয়ঙ্কর ও লজ্জাজনক পদক্ষেপের ফলে সেখানে মানবাধিকার বিষয়ক আমাদের গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো আপাতত থমকে গেছে। 

‘তবে ভারতে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আমাদের অঙ্গীকার এবং সম্পৃক্ততার অবসান তাতে হয়নি। সামনের দিনগুলোতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল কীভাবে ভারতের মানবাধিকার আন্দোলনে ভূমিকা রাখতে পারে, তা আমরা খুঁজে বের করব।’

এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে লিখেছে, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ভারতের ফরেইন কন্ট্রিবিউশন অ্যাক্টের আওতায় নিবন্ধন নেয়নি- এই যুক্তিতে সরকার তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। ভারতে কোনো এনজিওর বিদেশি তহবিল নিতে গেলে ওই আইনে নিবন্ধিত হতে হয়।

তবে অ্যামনেস্টি দাবি করেছে, ভারতীয় ও আন্তর্জাতিক সব নিয়ম মেনেই তারা সেখানে কাজ করে আসছে।