এবার বাসমতি চাল নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের বিরোধ
jugantor
এবার বাসমতি চাল নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের বিরোধ

  অনলাইন ডেস্ক  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:০৩:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

এবার বাসমতি চাল নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের বিরোধ

স্বাদে-গন্ধে অতুলনীয় বাসমতি চাল নিয়ে এবার নতুন বিরোধে জড়িয়েছে ভারত ও পাকিস্তান।

বাসমতি চালকে ‘ভারতীয় পণ্য’ হিসেবে ঘোষণা দেয়ার জন্য ভারতের পক্ষ থেকে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের কাছে আবেদন করার পর এই বিরোধ সৃষ্টি হয় বলে বিবিসি জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, পাকিস্তানেও এ চাল ব্যাপকহারে উৎপাদিত হওয়ায় ভারতের এই আবেদনে আপত্তি জানিয়েছে দেশটি।

এই চালকে শুধুমাত্র ভারতীয় পণ্য হিসেবে ঘোষণা করা হলে পাকিস্তানি ব্যবসায়ীরা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন বলে এ আবেদনের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

১১ই সেপ্টেম্বর ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অফিসিয়াল জর্নালে ভারতের ওই আবেদনটি প্রকাশিত হয়।

আবেদনে বলা হয়েছে, বাসমতি চাল ভারতীয় উপমহাদেশের একেবারে স্বতন্ত্র একটি চাল। আকারে এটি লম্বাটে। অনন্য স্বাদ ও সুগন্ধের কারণে সারা বিশ্বে ভারতীয় এই চালের সুখ্যাতি রয়েছে।

ভারতের এই আবেদনের পর পাকিস্তানের চাল ব্যবসায়ী ও সরকারের ভেতরে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

কারণ পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর, বালুচিস্তান এবং পাঞ্জাবে উৎপাদিত বাসমতি চালেরও খ্যাতি রয়েছে ইউরোপের বাজারে।

দিল্লিকে এই ট্যাগ দেয়া হলে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে পাকিস্তানের বাসমতি চাল রফতানির বাজারে বড় ধরনের ধ্বস নামবে বলে মনে করছে দেশটির ব্যবসায়ীরা।

খুব শিগগিরই তারা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের কাছে ভারতীয় আবেদনের বিপরীতে পাল্টা আবেদন দায়ের করবেন বলে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

এবার বাসমতি চাল নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের বিরোধ

 অনলাইন ডেস্ক 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
এবার বাসমতি চাল নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের বিরোধ
ছবি: বিবিসি

স্বাদে-গন্ধে অতুলনীয় বাসমতি চাল নিয়ে এবার নতুন বিরোধে জড়িয়েছে ভারত ও পাকিস্তান।

বাসমতি চালকে ‘ভারতীয় পণ্য’ হিসেবে ঘোষণা দেয়ার জন্য ভারতের পক্ষ থেকে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের কাছে আবেদন করার পর এই বিরোধ সৃষ্টি হয় বলে বিবিসি জানিয়েছে। 

খবরে বলা হয়, পাকিস্তানেও এ চাল ব্যাপকহারে উৎপাদিত হওয়ায় ভারতের এই আবেদনে আপত্তি জানিয়েছে দেশটি। 

এই চালকে শুধুমাত্র ভারতীয় পণ্য হিসেবে ঘোষণা করা হলে পাকিস্তানি ব্যবসায়ীরা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন বলে এ আবেদনের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

১১ই সেপ্টেম্বর ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অফিসিয়াল জর্নালে ভারতের ওই আবেদনটি প্রকাশিত হয়। 
 
আবেদনে বলা হয়েছে, বাসমতি চাল ভারতীয় উপমহাদেশের একেবারে স্বতন্ত্র একটি চাল। আকারে এটি লম্বাটে। অনন্য স্বাদ ও সুগন্ধের কারণে সারা বিশ্বে ভারতীয় এই চালের সুখ্যাতি রয়েছে।

ভারতের এই আবেদনের পর পাকিস্তানের চাল ব্যবসায়ী ও সরকারের ভেতরে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

কারণ পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর, বালুচিস্তান এবং পাঞ্জাবে উৎপাদিত বাসমতি চালেরও খ্যাতি রয়েছে ইউরোপের বাজারে।

দিল্লিকে এই ট্যাগ দেয়া হলে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে পাকিস্তানের বাসমতি চাল রফতানির বাজারে বড় ধরনের ধ্বস নামবে বলে মনে করছে দেশটির ব্যবসায়ীরা। 

খুব শিগগিরই তারা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের কাছে ভারতীয় আবেদনের বিপরীতে পাল্টা আবেদন দায়ের করবেন বলে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।