ইরানের ভেতর দিয়ে আর্মেনিয়ায় অস্ত্র নেয়ার খবর প্রত্যাখ্যান তেহরানের
jugantor
ইরানের ভেতর দিয়ে আর্মেনিয়ায় অস্ত্র নেয়ার খবর প্রত্যাখ্যান তেহরানের

  অনলাইন ডেস্ক  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:১০:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের ভেতর দিয়ে আর্মেনিয়ায় সমরাস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম পরিবহন করা হয়েছে বলে কোনো কোনো গণমাধ্যমে যে খবর প্রচার করা হয়েছে, তা মিথ্যা বলে প্রত্যাখ্যান করেছে তেহরান।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে মঙ্গলবার তেহরানে এক সংবাদ সম্মেলনে ওই খবরের সত্যতা প্রত্যাখ্যান করেন। খবর ইরান ডেইলি ও রয়টার্সের।

তিনি বলেন, ইরান ও প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে প্রচলিত বেসামরিক পণ্য পরিবহন একটি স্বাভাবিক ও নিয়মিত ঘটনা। তবে ট্রাকসহ অন্যান্য ভারী যানবাহনে যেসব পণ্য ট্রানজিট রুট হিসেবে ইরানের ভেতর দিয়ে পরিবহন করা হয় তা ঘনিষ্ঠভাবে পর্যবেক্ষণ করে তেহরান।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আরও বলেন, ইরান কোনো অবস্থায়ই তার ভূমি ব্যবহার করে অন্য কোনো দেশে সমরাস্ত্র বা সামরিক সরঞ্জাম বহন করার অনুমতি দেবে না।

রাশিয়া ইরানের আকাশসীমা ব্যবহার করে আর্মেনিয়ায় তিনটি মিগ-২৯ জঙ্গিবিমান পাঠিয়েছে বলে কোনো কোনো গণমাধ্যমে খবর প্রচারিত হওয়ার পর ইরানের এই মুখপাত্র বিষয়টি নিয়ে তার দেশের অবস্থান স্পষ্ট করলেন।

আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের সীমান্তবর্তী নগরনো-কারাবাখ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে রোববার সকাল থেকে দুদেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে নতুন করে সংঘর্ষ শুরু হয়েছে।

আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া উভয়ই ইসলামী ইরানের প্রতিবেশী দেশ। সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছেন।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে উভয়পক্ষের প্রতি যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। ইরান দুদেশকে সংঘর্ষ বন্ধ করে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছে এবং এই বিরোধ নিরসনে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দিয়েছে।

ইরানের ভেতর দিয়ে আর্মেনিয়ায় অস্ত্র নেয়ার খবর প্রত্যাখ্যান তেহরানের

 অনলাইন ডেস্ক 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:১০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের ভেতর দিয়ে আর্মেনিয়ায় সমরাস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম পরিবহন করা হয়েছে বলে কোনো কোনো গণমাধ্যমে যে খবর প্রচার করা হয়েছে, তা মিথ্যা বলে প্রত্যাখ্যান করেছে তেহরান।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে মঙ্গলবার তেহরানে এক সংবাদ সম্মেলনে ওই খবরের সত্যতা প্রত্যাখ্যান করেন। খবর ইরান ডেইলি ও রয়টার্সের।

তিনি বলেন, ইরান ও প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে প্রচলিত বেসামরিক পণ্য পরিবহন একটি স্বাভাবিক ও নিয়মিত ঘটনা। তবে ট্রাকসহ অন্যান্য ভারী যানবাহনে যেসব পণ্য ট্রানজিট রুট হিসেবে ইরানের ভেতর দিয়ে পরিবহন করা হয় তা ঘনিষ্ঠভাবে পর্যবেক্ষণ করে তেহরান।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আরও বলেন, ইরান কোনো অবস্থায়ই তার ভূমি ব্যবহার করে অন্য কোনো দেশে সমরাস্ত্র বা সামরিক সরঞ্জাম বহন করার অনুমতি দেবে না।

রাশিয়া ইরানের আকাশসীমা ব্যবহার করে আর্মেনিয়ায় তিনটি মিগ-২৯ জঙ্গিবিমান পাঠিয়েছে বলে কোনো কোনো গণমাধ্যমে খবর প্রচারিত হওয়ার পর ইরানের এই মুখপাত্র বিষয়টি নিয়ে তার দেশের অবস্থান স্পষ্ট করলেন।

আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের সীমান্তবর্তী নগরনো-কারাবাখ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে রোববার সকাল থেকে দুদেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে নতুন করে সংঘর্ষ শুরু হয়েছে।

আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া উভয়ই ইসলামী ইরানের প্রতিবেশী দেশ। সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছেন।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে উভয়পক্ষের প্রতি যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। ইরান দুদেশকে সংঘর্ষ বন্ধ করে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছে এবং এই বিরোধ নিরসনে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দিয়েছে।

 

 

ঘটনাপ্রবাহ : আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত