বাইডেনের ইনশাআল্লাহ, টুইটারে ঝড়
jugantor
বাইডেনের ইনশাআল্লাহ, টুইটারে ঝড়

  অনলাইন ডেস্ক  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২১:১৩:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

জো বাইডেন

আসন্ন মার্কিন নির্বাচনকে সামনে রেখে বিতর্কে অংশ নিয়েছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেনে। তুমুল বিতর্কের মধ্যে জো বাইডেনের আরবি শব্দ ‘ইনশাআল্লাহ’ উচ্চারণ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

মঙ্গলবার রাতে বির্তকের মধ্যে এই ঘটনা টুইটার ব্যবহারকারীদের অনেকেই ঐতিহাসিক বলে আখ্যা দিয়েছেন।

বিতর্ক অনুষ্ঠানে ডেমোক্রেট প্রার্থী বাইডেন ট্রাম্পকে খোঁচ দিতে ‘ইনশাআল্লাহ’ উচ্চারণ করেছিলেন।

বাইডেন তার বক্তব্যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এ পর্যন্ত তার আয়কর রিটার্ন দাখিল করেছেন কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ক্রিস ওয়ালেস এই রিটার্নের তথ্য প্রকাশের জন্য ট্রাম্পকে নির্দিষ্ট সময়সীমা ঘোষণার জন্য চাপ দেন।

জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘আপনি এটা দেখতে পাবেন।’

বাইডেন তখন জানতে চান, ‘কখন? ইনশাআল্লাহ?’

সোমবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত ১৫ বছরের মধ্যে ১০ বছর ট্রাম্প কোনও আয়কর প্রদান করেননি। খবরে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালে মাত্র ৭৫০ ডলার ও ২০১৭ সালে আরও ৭৫০ ডলার আয়কর প্রদান করেছেন।

মঙ্গলবারের বিতর্কে ট্রাম্প এই প্রতিবেদনের তথ্য নিয়ে আপত্তি তুলেন। তিনি বলেন, মিলিয়ন ডলার কর, মিলিয়ন ডলার আয়কর পরিশোধ করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা বাইডেনের হাস্যরসের মন্তব্য নিয়ে দ্রুতই প্রতিক্রিয়া জানান। অনেকেই এই ঘটনাকে আমেরিকার জন্য ঐতিহাসিক মুহূর্ত বলে আখ্যায়িত করেছেন।

আলজাজিরা

বাইডেনের ইনশাআল্লাহ, টুইটারে ঝড়

 অনলাইন ডেস্ক 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জো বাইডেন
জো বাইডেন। ছবি: আলজাজিরা

আসন্ন মার্কিন নির্বাচনকে সামনে রেখে বিতর্কে অংশ নিয়েছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেনে। তুমুল বিতর্কের মধ্যে জো বাইডেনের আরবি শব্দ ‘ইনশাআল্লাহ’ উচ্চারণ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে।  

মঙ্গলবার রাতে বির্তকের মধ্যে এই ঘটনা টুইটার ব্যবহারকারীদের অনেকেই ঐতিহাসিক বলে আখ্যা দিয়েছেন।

বিতর্ক অনুষ্ঠানে ডেমোক্রেট প্রার্থী বাইডেন ট্রাম্পকে খোঁচ দিতে ‘ইনশাআল্লাহ’ উচ্চারণ করেছিলেন।

বাইডেন তার বক্তব্যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এ পর্যন্ত তার আয়কর রিটার্ন দাখিল করেছেন কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন। 

অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ক্রিস ওয়ালেস এই রিটার্নের তথ্য প্রকাশের জন্য ট্রাম্পকে  নির্দিষ্ট সময়সীমা ঘোষণার জন্য  চাপ দেন।

জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘আপনি এটা দেখতে পাবেন।’

বাইডেন তখন জানতে চান, ‘কখন? ইনশাআল্লাহ?’

সোমবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত ১৫ বছরের মধ্যে ১০ বছর ট্রাম্প কোনও আয়কর প্রদান করেননি। খবরে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালে মাত্র ৭৫০ ডলার ও ২০১৭ সালে আরও ৭৫০ ডলার আয়কর প্রদান করেছেন।

মঙ্গলবারের বিতর্কে ট্রাম্প এই প্রতিবেদনের তথ্য নিয়ে আপত্তি তুলেন। তিনি বলেন, মিলিয়ন ডলার কর, মিলিয়ন ডলার আয়কর পরিশোধ করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা বাইডেনের হাস্যরসের মন্তব্য নিয়ে দ্রুতই প্রতিক্রিয়া জানান। অনেকেই এই ঘটনাকে আমেরিকার জন্য ঐতিহাসিক মুহূর্ত বলে আখ্যায়িত করেছেন।

আলজাজিরা

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন-২০২০