ইসলাম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, ফরাসি প্রেসিডেন্টের ওপর ক্ষুব্ধ এরদোগান
jugantor
ইসলাম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, ফরাসি প্রেসিডেন্টের ওপর ক্ষুব্ধ এরদোগান

  অনলাইন ডেস্ক  

০৭ অক্টোবর ২০২০, ১৬:৪৯:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ইসলাম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, ফরাসি প্রেসিডেন্টের ওপর ক্ষুব্ধ এরদোগান

ইসলাম ধর্ম নিয়ে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনের অবমাননাকর মন্তব্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। ফরাসি প্রেসিডেন্টের এমন মন্তব্যকে খোলাখুলি উস্কানি বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

সম্প্রতি ‘ইসলামী চরমপন্থা’র বিরুদ্ধে ফ্রান্সের সেক্যুলার মূল্যবোধ রক্ষার উদ্দেশ্যে নতুন একটি পরিকল্পনা প্রকাশ করেন ইমানুয়েল ম্যাক্রন।

ফ্রান্সের সেক্যুলারিজমকে রক্ষা করার এক পরিকল্পনা উন্মোচন করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘ইসলাম এমন একটি ধর্ম, যেটি বর্তমান বিশ্বের সব দেশে সংকটে রয়েছে। এটি কেবল আমরা আমাদের দেশে দেখছি- এমনটি নয়।’

ফরাসি প্রেসিডেন্টের এমন মন্তব্যে দেশটির মুসলিমদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়। এরদোগানের মতে, এটা হলো সরাসরি উস্কানি দেয়া।

টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে তিনি বলেন, ‘ইসলাম সংকটে বলে ম্যাক্রন যে শুধু ধর্মকে অশ্রদ্ধা করেছেন তাই নয়, খোলাখুলি উস্কানিও দিয়েছেন। ম্যাক্রন এ কথা বলে তার ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। ইসলামের কাঠামো নিয়ে কথা বলার তিনি কে?

ফরাসি প্রেসিডেন্টকে পরামর্শ দিয়ে এরদোগান বলেন, ম্যাক্রন যে সব বিষয়ে কিছুই জানেন না, সেসব বিষয়ে বলার আগে যেন ভালো করে বিষয়টা জেনে নেন। আমরা চাই তিনি দায়িত্বশীল প্রেসিডেন্টের মতো কাজ করুন। ঔপনিবেশিক গভর্নরের মতো নয়।

ডয়চে ভেলে জানিয়েছে, ম্যাক্রনের পরিকল্পনা হলো, মসজিদে বিদেশি অর্থ আসা নিয়ন্ত্রণ করা এবং শিক্ষা ব্যবস্থারও তদারকি করা।

ম্যাক্রন ও এরদোগানের সম্পর্ক এমনিতেই মধুর নয়। আর্মেনিয়া-আজারবাইজান লড়াই এবং পূর্ব ভূমধ্যসাগর নিয়ে দুই নেতার বিরোধের মধ্যেই এবার ইসলাম নিয়েও তাদের তীব্র মতবিরোধ সামনে এলো।

ইসলাম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, ফরাসি প্রেসিডেন্টের ওপর ক্ষুব্ধ এরদোগান

 অনলাইন ডেস্ক 
০৭ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইসলাম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, ফরাসি প্রেসিডেন্টের ওপর ক্ষুব্ধ এরদোগান
ছবি: ডয়চে ভেলে

ইসলাম ধর্ম নিয়ে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনের অবমাননাকর মন্তব্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। ফরাসি প্রেসিডেন্টের এমন মন্তব্যকে খোলাখুলি উস্কানি বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। 

সম্প্রতি ‘ইসলামী চরমপন্থা’র বিরুদ্ধে ফ্রান্সের সেক্যুলার মূল্যবোধ রক্ষার উদ্দেশ্যে নতুন একটি পরিকল্পনা প্রকাশ করেন ইমানুয়েল ম্যাক্রন। 

ফ্রান্সের সেক্যুলারিজমকে রক্ষা করার এক পরিকল্পনা উন্মোচন করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘ইসলাম এমন একটি ধর্ম, যেটি বর্তমান বিশ্বের সব দেশে সংকটে রয়েছে। এটি কেবল আমরা আমাদের দেশে দেখছি- এমনটি নয়।’

ফরাসি প্রেসিডেন্টের এমন মন্তব্যে দেশটির মুসলিমদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়। এরদোগানের মতে, এটা হলো সরাসরি উস্কানি দেয়া।

টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে তিনি বলেন, ‘ইসলাম সংকটে বলে ম্যাক্রন যে শুধু ধর্মকে অশ্রদ্ধা করেছেন তাই নয়, খোলাখুলি উস্কানিও দিয়েছেন। ম্যাক্রন এ কথা বলে তার ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। ইসলামের কাঠামো নিয়ে কথা বলার তিনি কে?

ফরাসি প্রেসিডেন্টকে পরামর্শ দিয়ে এরদোগান বলেন, ম্যাক্রন যে সব বিষয়ে কিছুই জানেন না, সেসব বিষয়ে বলার আগে যেন ভালো করে বিষয়টা জেনে নেন। আমরা চাই তিনি দায়িত্বশীল প্রেসিডেন্টের মতো কাজ করুন। ঔপনিবেশিক গভর্নরের মতো নয়।

ডয়চে ভেলে জানিয়েছে, ম্যাক্রনের পরিকল্পনা হলো, মসজিদে বিদেশি অর্থ আসা নিয়ন্ত্রণ করা এবং শিক্ষা ব্যবস্থারও তদারকি করা।

ম্যাক্রন ও এরদোগানের সম্পর্ক এমনিতেই মধুর নয়। আর্মেনিয়া-আজারবাইজান লড়াই এবং পূর্ব ভূমধ্যসাগর নিয়ে দুই নেতার বিরোধের মধ্যেই এবার ইসলাম নিয়েও তাদের তীব্র মতবিরোধ সামনে এলো।