আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ পুতিনের
jugantor
আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ পুতিনের

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ অক্টোবর ২০২০, ১৫:৫৯:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ পুতিনের

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন শুক্রবার শান্তি আলোচনার জন্য মস্কো সফরে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, মানবিক কারণে নাগোরনো-কারাবাখে যুদ্ধ বন্ধ করা উচিত। বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এমন তথ্য মিলেছে।

আজারবাইজান ও জাতিগত আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে চলা যুদ্ধ বন্ধের কোনো লক্ষণ না দেখা দেয়ার পর পুতিন এমন আমন্ত্রণ জানালেন।

সেখানে এ লড়াইয়ে ইতোমধ্যে কয়েকশ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে।

ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে পুতিন বলেন, ৯ অক্টোবর মস্কো সফরে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে।

ক্রেমলিনের ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট মরদেহ এবং বন্দিবিনিময়সহ বিভিন্ন মানবিক কারণে নাগোরনো-কারাবাখে যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছেন।

এদিকে লড়াই অব্যাহত থাকায় ইরাভান এ দুই দেশের শীর্ষ কূটনীতিকদের মধ্যে কোনো আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে আসছেন।

আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ পুতিনের

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ পুতিনের
ছবি: এএফপি

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন শুক্রবার শান্তি আলোচনার জন্য মস্কো সফরে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। 

তিনি বলেন, মানবিক কারণে নাগোরনো-কারাবাখে যুদ্ধ বন্ধ করা উচিত। বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এমন তথ্য মিলেছে।

আজারবাইজান ও জাতিগত আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে চলা যুদ্ধ বন্ধের কোনো লক্ষণ না দেখা দেয়ার পর পুতিন এমন আমন্ত্রণ জানালেন। 

সেখানে এ লড়াইয়ে ইতোমধ্যে কয়েকশ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে।

ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে পুতিন বলেন, ৯ অক্টোবর মস্কো সফরে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে।

ক্রেমলিনের ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট মরদেহ এবং বন্দিবিনিময়সহ বিভিন্ন মানবিক কারণে নাগোরনো-কারাবাখে যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছেন।

এদিকে লড়াই অব্যাহত থাকায় ইরাভান এ দুই দেশের শীর্ষ কূটনীতিকদের মধ্যে কোনো আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে আসছেন।