প্রথমবারের মতো গোলটেবিল বৈঠকে আজারবাইজান-আর্মেনিয়া
jugantor
প্রথমবারের মতো গোলটেবিল বৈঠকে আজারবাইজান-আর্মেনিয়া

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ অক্টোবর ২০২০, ২২:৪৩:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার মধ্যস্থতায় মস্কোয় বহুল আলোচিত আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার বৈঠক। ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

নাগরনো-কারাবাখ নিয়ে শীর্ষ কূটনীতিক পর্যায়ের প্রথমবারের মতো আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে গোলটেবিল বৈঠক শুরু হয়েছে। শুক্রবার রাশিয়ার রাজধানীর মস্কোয় বহুল আলোচিত ওই বৈঠকটি শুরু হয়।

আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার বহুল আলোচিত এ বৈঠকের ছবি নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে প্রকাশ করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাকারোভা। তিনি ওই ছবির ক্যাপশনে রুশ ভাষায় লেখেন ‘শুরু হয়েছে’।

আর্মেনিয়ার সঙ্গে শান্তি আলোচনা প্রসঙ্গে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ বলেছেন, আমরা আলোচনার জন্য প্রস্তুত। কিন্তু কোনো দেশের প্রভাবে আর্মেনিয়াকে কোনো ছাড় দেয়া হলে তা মেনে নেয়া হবে না।

মস্কোতে শান্তি আলোচনার জন্য আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের বৈঠকের আগে শুক্রবার জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আর্মেনিয়াকে শান্তিপূর্ণ উপায়ে দ্বন্দ্ব ও সংঘাত নিরসনের শেষ সুযোগ দেয়া হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ।

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যা সমাধানে আরও একটা সুযোগ দিতে চাই। এটাই তাদের জন্য শেষ সুযোগ। তিনি বলেন, আমরা আমাদের ভূমিতে যেকোনো উপায়ে ফিরে যাব। এটা তাদের জন্য ঐতিহাসিক সুযোগ।’

এর আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের আহ্বানে শান্তি আলোচনার জন্য রাজি হয় আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া। রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে যুদ্ধরত ওই দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা অংশ অংশ নেবেন। খবর এএফপির।

এর আগে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন শান্তি আলোচনার জন্য যুদ্ধরত আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে মস্কো সফরের আমন্ত্রণ জানান।

তিনি বলেন, মানবিক কারণে নাগোরনো-কারাবাখে যুদ্ধ বন্ধ করা উচিত।

আজারবাইজান ও জাতিগত আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে চলা যুদ্ধ বন্ধের কোনো লক্ষণ না দেখা দেয়ার পর পুতিন এমন আমন্ত্রণ জানালেন।

প্রথমবারের মতো গোলটেবিল বৈঠকে আজারবাইজান-আর্মেনিয়া

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ অক্টোবর ২০২০, ১০:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রাশিয়ার মধ্যস্থতায় মস্কোয় বহুল আলোচিত আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার বৈঠক। ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত
রাশিয়ার মধ্যস্থতায় মস্কোয় বহুল আলোচিত আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার বৈঠক। ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

নাগরনো-কারাবাখ নিয়ে শীর্ষ কূটনীতিক পর্যায়ের প্রথমবারের মতো আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে গোলটেবিল বৈঠক শুরু হয়েছে। শুক্রবার রাশিয়ার রাজধানীর মস্কোয় বহুল আলোচিত ওই বৈঠকটি শুরু হয়।

আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার বহুল আলোচিত এ বৈঠকের ছবি নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে প্রকাশ করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাকারোভা। তিনি ওই ছবির ক্যাপশনে রুশ ভাষায় লেখেন ‘শুরু হয়েছে’।

আর্মেনিয়ার সঙ্গে শান্তি আলোচনা প্রসঙ্গে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ বলেছেন, আমরা আলোচনার জন্য প্রস্তুত। কিন্তু কোনো দেশের প্রভাবে আর্মেনিয়াকে কোনো ছাড় দেয়া হলে তা মেনে নেয়া হবে না।

মস্কোতে শান্তি আলোচনার জন্য আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের বৈঠকের আগে শুক্রবার জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আর্মেনিয়াকে শান্তিপূর্ণ উপায়ে দ্বন্দ্ব ও সংঘাত নিরসনের শেষ সুযোগ দেয়া হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ।

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যা সমাধানে আরও একটা সুযোগ দিতে চাই। এটাই তাদের জন্য শেষ সুযোগ। তিনি বলেন, আমরা আমাদের ভূমিতে যেকোনো উপায়ে ফিরে যাব। এটা তাদের জন্য ঐতিহাসিক সুযোগ।’

এর আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের আহ্বানে শান্তি আলোচনার জন্য রাজি হয় আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া। রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে যুদ্ধরত ওই দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা অংশ অংশ নেবেন। খবর এএফপির।

এর আগে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন শান্তি আলোচনার জন্য যুদ্ধরত আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে মস্কো সফরের আমন্ত্রণ জানান।

তিনি বলেন, মানবিক কারণে নাগোরনো-কারাবাখে যুদ্ধ বন্ধ করা উচিত।

আজারবাইজান ও জাতিগত আর্মেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে চলা যুদ্ধ বন্ধের কোনো লক্ষণ না দেখা দেয়ার পর পুতিন এমন আমন্ত্রণ জানালেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত