আজারবাইজানকে সমর্থন জানিয়ে যা বলল কাতার
jugantor
আজারবাইজানকে সমর্থন জানিয়ে যা বলল কাতার

  অনলাইন ডেস্ক  

১৩ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৩৫:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

আজারবাইজানকে সমর্থন জানিয়েছে কাতার

বিরোধীয় নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে প্রতিবেশী আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে গত মাসের শেষ দিক থেকে যুদ্ধ শুরু হয়েছে। চলমান এ যুদ্ধে আজারবাইজানের আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি সমর্থন জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেল সমৃদ্ধ ধনী দেশ কাতার।

মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে আজারবাইজানের সংবাদমাধ্যম আজভিশন। সোমবার বাকুতে নিযুক্ত কাতারের রাষ্ট্রদূত ফয়সাল বিন আবদুল্লাহ আল-হেনজাব গানজা শহর পরিদর্শন করেন।
এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমরা গানজা পরিদর্শন করেছি।

বেসামরিক নাগরিকদের হামলায় লক্ষ্যবস্তু করায় নিন্দা জানাচ্ছে কাতার। আমি পুনর্ব্যক্ত করছি কাতার ভ্রাতৃপূর্ণ আজারবাইজানের আঞ্চলিক অখণ্ডতা এবং সার্বভৌমত্বের প্রতি সমর্থন জানাচ্ছে।

কাতারের রাষ্ট্রদূত বলেন, শুধু আরব দেশ বলেই নয়, সব সভ্য দেশের উচিত বেসামরিক নাগরিকদের হামলার লক্ষ্যবস্তু বানানোর বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া। আমরা চাই এই সংঘাতের শান্তিপূর্ণ সমাধান, যা বছরের পর বছর ধরে চলছে।

২৭ সেপ্টেম্বর থেকে বিরোধীয় নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান নতুন করে যুদ্ধে জড়ায়। পরবর্তীতে ১০ অক্টোবর রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে ম্যারথন আলোচনা হয়।

এতে উভয় পক্ষ মানবিক কারণে সাময়িক যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়। এ যুদ্ধবিরতিতে দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধবন্দিসহ অন্যান্য বন্দি বিনিময় ও মৃতদেহ হস্তান্তরের বিষয়ে উভয় দেশ সম্মত হয়।

শনিবার থেকে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যুদ্ধবিরতির কয়েক মিনিটের মধ্যেই আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান পরস্পরকে সাময়িক যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘেনের জন্য অভিযুক্ত করে।

কারাবাখ অঞ্চলটি আন্তর্জাতিকভাবে আজারবাইজানের ভূখণ্ড হিসেবে স্বীকৃত। তবে ওই অঞ্চলটি জাতিগত আর্মেনীয়রা ১৯৯০’র দশক থেকে নিয়ন্ত্রণ করছে। ওই দশকেই আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের সঙ্গে যুদ্ধে ৩০ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়।

আজারবাইজানকে সমর্থন জানিয়ে যা বলল কাতার

 অনলাইন ডেস্ক 
১৩ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আজারবাইজানকে সমর্থন জানিয়েছে কাতার
ছবি: সংগৃহীত

বিরোধীয় নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে প্রতিবেশী আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে গত মাসের শেষ দিক থেকে যুদ্ধ শুরু হয়েছে। চলমান এ যুদ্ধে আজারবাইজানের আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি সমর্থন জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেল সমৃদ্ধ ধনী দেশ কাতার। 

মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে আজারবাইজানের সংবাদমাধ্যম আজভিশন। সোমবার বাকুতে নিযুক্ত কাতারের রাষ্ট্রদূত ফয়সাল বিন আবদুল্লাহ আল-হেনজাব গানজা শহর পরিদর্শন করেন।  
এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমরা গানজা পরিদর্শন করেছি।  

বেসামরিক নাগরিকদের হামলায় লক্ষ্যবস্তু করায় নিন্দা জানাচ্ছে কাতার। আমি পুনর্ব্যক্ত করছি কাতার ভ্রাতৃপূর্ণ আজারবাইজানের আঞ্চলিক অখণ্ডতা এবং সার্বভৌমত্বের প্রতি সমর্থন জানাচ্ছে।  

কাতারের রাষ্ট্রদূত বলেন, শুধু আরব দেশ বলেই নয়, সব সভ্য দেশের উচিত বেসামরিক নাগরিকদের হামলার লক্ষ্যবস্তু বানানোর বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া। আমরা চাই এই সংঘাতের শান্তিপূর্ণ সমাধান, যা বছরের পর বছর ধরে চলছে। 

২৭ সেপ্টেম্বর থেকে বিরোধীয় নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান নতুন করে যুদ্ধে জড়ায়। পরবর্তীতে ১০ অক্টোবর রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে ম্যারথন আলোচনা হয়।

এতে উভয় পক্ষ মানবিক কারণে সাময়িক যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়। এ যুদ্ধবিরতিতে দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধবন্দিসহ অন্যান্য বন্দি বিনিময় ও মৃতদেহ হস্তান্তরের বিষয়ে উভয় দেশ সম্মত হয়।

শনিবার থেকে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যুদ্ধবিরতির কয়েক মিনিটের মধ্যেই আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান পরস্পরকে সাময়িক যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘেনের জন্য অভিযুক্ত করে।

কারাবাখ অঞ্চলটি আন্তর্জাতিকভাবে আজারবাইজানের ভূখণ্ড হিসেবে স্বীকৃত। তবে ওই অঞ্চলটি জাতিগত আর্মেনীয়রা ১৯৯০’র দশক থেকে নিয়ন্ত্রণ করছে। ওই দশকেই আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের সঙ্গে যুদ্ধে ৩০ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়।

 

ঘটনাপ্রবাহ : আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত

আরও খবর