একজন পর্যটকের জন্য খোলা হল প্রাচীন পর্যটন কেন্দ্র
jugantor
একজন পর্যটকের জন্য খোলা হল প্রাচীন পর্যটন কেন্দ্র

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৩ অক্টোবর ২০২০, ২০:৩০:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

একজন পর্যটকের জন্য খোলা হল প্রাচীন পর্যটন কেন্দ্র

মাত্র একজন পর্যটকের জন্য মাচু পিচু পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেয়ার বিরল ঘটনা ঘটিয়েছে পেরু। সৌভাগ্যবান সেই জাপানি ব্যক্তির নাম জেসি কাতাইয়ামা ।

সোমবার কেবল তাকে দেখানোর জন্য খুলে দেয়া হয় প্রাচীন ইনকা সভ্যতার কেন্দ্রটি। ভ্রমণপিপাসুদের কাছে পেরুর মাচু পিচু অন্যতম আকর্ষণীয় স্থান।

মার্চ মাসে কাতাইয়ামা পেরু গেলেও করোনা মহামারীর ধাক্কায় বন্ধ হয়ে যায় পেরু ও জাপানের মধ্যকার বিমান যোগাযোগ। একই কারণে বন্ধ হয়ে যায় মাচু পিচুও।

প্রায় সাত মাস পেরুতে আটকে থাকার পর কাতাইয়ামা যাতে মাচু পিচু দেখে দেশে ফিরতে পারেন সে ব্যবস্থা করে পেরু। এটি দেখতে পেরে তিনি খুবই খুশি।

বিবিসি জানায়, আটকা পড়া পর্যটক কাতাইয়ামা পেরুর সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয়ের কাছে মাচু পিচু দেখার সুযোগ চেয়ে বিশেষ আবেদন করেন।

মন্ত্রণালয় তার আবেদনে সাড়া দিয়ে বিশেষ ব্যবস্থায় তাকে এই ঐতিহ্যবাহী স্থান পরিদর্শনের অনুমতি দেয়। গত শনিবার কাতাইয়ামা মাচু পিচু ভ্রমণ করেছেন।

একজন পর্যটকের জন্য খোলা হল প্রাচীন পর্যটন কেন্দ্র

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৩ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
একজন পর্যটকের জন্য খোলা হল প্রাচীন পর্যটন কেন্দ্র
ছবি: সিএনএন

মাত্র একজন পর্যটকের জন্য মাচু পিচু পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেয়ার বিরল ঘটনা ঘটিয়েছে পেরু। সৌভাগ্যবান সেই  জাপানি ব্যক্তির নাম জেসি কাতাইয়ামা । 

সোমবার কেবল তাকে দেখানোর জন্য খুলে দেয়া হয় প্রাচীন ইনকা সভ্যতার কেন্দ্রটি। ভ্রমণপিপাসুদের কাছে পেরুর মাচু পিচু অন্যতম আকর্ষণীয় স্থান। 

মার্চ মাসে কাতাইয়ামা পেরু গেলেও করোনা মহামারীর ধাক্কায় বন্ধ হয়ে যায় পেরু ও জাপানের মধ্যকার বিমান যোগাযোগ। একই কারণে বন্ধ হয়ে যায় মাচু পিচুও। 

প্রায় সাত মাস পেরুতে আটকে থাকার পর কাতাইয়ামা যাতে মাচু পিচু দেখে দেশে ফিরতে পারেন সে ব্যবস্থা করে পেরু। এটি দেখতে পেরে তিনি খুবই খুশি।

বিবিসি জানায়, আটকা পড়া পর্যটক কাতাইয়ামা পেরুর সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয়ের কাছে মাচু পিচু দেখার সুযোগ চেয়ে বিশেষ আবেদন করেন।

মন্ত্রণালয় তার আবেদনে সাড়া দিয়ে বিশেষ ব্যবস্থায় তাকে এই ঐতিহ্যবাহী স্থান পরিদর্শনের অনুমতি দেয়। গত শনিবার কাতাইয়ামা মাচু পিচু ভ্রমণ করেছেন।