সৌদি আরবও ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করবে: পম্পেও
jugantor
সৌদি আরবও ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করবে: পম্পেও

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ অক্টোবর ২০২০, ১৭:০৫:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদি ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সৌদি আরবও ইসরাইলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপন করবে বলে আশা করছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।তিনি বলেন, আমাদের প্রত্যাশা সৌদি আরব ইসরাইলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়টি বিবেচনা করবে।

বুধবার সৌদির পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদের সঙ্গে এক আলোচনায় তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও ইসরাইল, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের মধ্যকার সম্পর্ক স্বাভাবিকতার জন্য আগস্টে স্বাক্ষরিত বিতর্কিত আব্রাহাম চুক্তির অংশ হিসেবে ওই অঞ্চলটিতে কূটনীতিতে অংশ নেয়ার জন্য সৌদি আরবকে আহ্বান জানান।

আমি আশাকরি সৌদি আরব ফিলিস্তিনি পক্ষকে ইসরাইলের সঙ্গে ফের সংলাপ ও আলোচনার জন্য উৎসাহ দেবে, বলেন পম্পেও।

আলোচনায় পম্পেও মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘকালীন অবস্থানের বিষয়টি পুনর্ব্যক্ত করেছেন। তেহরান এই অঞ্চলে খারাপ একটি শক্তি হিসেবেও আখ্যায়িত করেছেন।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল উৎপাদনকারী সৌদির আরামকো কোম্পানিতে ড্রোন দিয়ে হামলার বিষয়ে ইরানকে দায়ী করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

ইয়েনি শাফাক

সৌদি আরবও ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করবে: পম্পেও

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ অক্টোবর ২০২০, ০৫:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সৌদি ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সৌদি ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ফাইল ছবি

সৌদি আরবও ইসরাইলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপন করবে বলে আশা করছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তিনি বলেন, আমাদের প্রত্যাশা সৌদি আরব ইসরাইলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়টি বিবেচনা করবে।

বুধবার সৌদির পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদের সঙ্গে এক আলোচনায় তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।    

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও ইসরাইল, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের মধ্যকার সম্পর্ক স্বাভাবিকতার জন্য আগস্টে স্বাক্ষরিত বিতর্কিত আব্রাহাম চুক্তির অংশ হিসেবে ওই অঞ্চলটিতে কূটনীতিতে অংশ নেয়ার জন্য সৌদি আরবকে আহ্বান জানান।

আমি আশাকরি সৌদি আরব ফিলিস্তিনি পক্ষকে ইসরাইলের সঙ্গে ফের সংলাপ ও আলোচনার জন্য উৎসাহ দেবে, বলেন পম্পেও। 

আলোচনায় পম্পেও মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘকালীন অবস্থানের বিষয়টি পুনর্ব্যক্ত করেছেন। তেহরান এই অঞ্চলে খারাপ একটি শক্তি হিসেবেও আখ্যায়িত করেছেন। 

বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল উৎপাদনকারী সৌদির আরামকো কোম্পানিতে ড্রোন দিয়ে হামলার বিষয়ে ইরানকে দায়ী করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।    

ইয়েনি শাফাক
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : আরব আমিরাত-ইসরাইল সম্পর্ক