বলিভিয়ায় নির্বাসিত মোরালেসের প্রার্থী নিরঙ্কুশ জয়ের পথে
jugantor
বলিভিয়ায় নির্বাসিত মোরালেসের প্রার্থী নিরঙ্কুশ জয়ের পথে

  অনলাইন ডেস্ক  

২০ অক্টোবর ২০২০, ১০:১০:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের পথে রয়েছে নির্বাসিত সাবেক প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেসের দল মুভমেন্ট ফর সোশ্যালিজম পার্টি বা এমএএস।

ভোট গণনা এখনও শেষ না হলেও এরই মধ্যে সোমবার প্রকাশিত এক্সিট পোল বা বুথফেরত জরিপে দেখা যাচ্ছে– এমএএস পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ৫৭ বছর বয়সী লুইজ আরসে ৫২ দশমিক ৪ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। খবর আলজাজিরার।

লুইজ আরসে পূর্বসূরি ইভো মোরালেসের মন্ত্রিসভায় অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। লুইজ আরসের প্রধান প্রতিপক্ষ মধ্যপন্থী সিটিজেনস কমিউনিটির নেতা ও সাবেক প্রেসিডেন্ট কার্লোস মেসা পেয়েছেন ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ ভোট।

অপর প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ৪১ বছর বয়সী দক্ষিণপন্থী জাতীয়তাবাদী লুইজ কামাচো পেয়েছেন ১৪ দশমিক ১ শতাংশ ভোট।

২০১৯ সালের অক্টোবরে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ ওঠার পর বলিভিয়ায় শুরু হয় সহিংস বিক্ষোভ। এর জেরে একপর্যায়ে সেনাবাহিনীর চাপের মুখে নির্বাসনে যেতে বাধ্য হন বামপন্থী নেতা ও দেশটির প্রথম আদিবাসী প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস।

পরে অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেন কনজারভেটিভ সিনেটর জেনাইন আনিয়েজ। তবে ওই প্রক্রিয়াকে অভ্যুত্থান হিসেবে আখ্যায়িত করেন মোরালেস সমর্থকরা।

এবারের নির্বাচনে ইভো মোরালেসকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এখন তার দলের প্রার্থী লুইজ আরসে হতে যাচ্ছেন দেশটির পরবর্তী প্রেসিডেন্ট।

বিভিন্ন স্থানে চালানো বুথফেরত জরিপের ফলে প্রায় একই রকম চিত্র পাওয়া গেছে। ফলে আনুষ্ঠানিক ফলেও আরসেই নির্বাচিত হবেন এটি প্রায় নিশ্চিত।

বলিভিয়ায় নির্বাসিত মোরালেসের প্রার্থী নিরঙ্কুশ জয়ের পথে

 অনলাইন ডেস্ক 
২০ অক্টোবর ২০২০, ১০:১০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের পথে রয়েছে নির্বাসিত সাবেক প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেসের দল মুভমেন্ট ফর সোশ্যালিজম পার্টি বা এমএএস।

ভোট গণনা এখনও শেষ না হলেও এরই মধ্যে সোমবার প্রকাশিত এক্সিট পোল বা বুথফেরত জরিপে দেখা যাচ্ছে– এমএএস পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ৫৭ বছর বয়সী লুইজ আরসে ৫২ দশমিক ৪ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। খবর আলজাজিরার।

লুইজ আরসে পূর্বসূরি ইভো মোরালেসের মন্ত্রিসভায় অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। লুইজ আরসের প্রধান প্রতিপক্ষ মধ্যপন্থী সিটিজেনস কমিউনিটির নেতা ও সাবেক প্রেসিডেন্ট কার্লোস মেসা পেয়েছেন ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ ভোট।

অপর প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ৪১ বছর বয়সী দক্ষিণপন্থী জাতীয়তাবাদী লুইজ কামাচো পেয়েছেন ১৪ দশমিক ১ শতাংশ ভোট।

২০১৯ সালের অক্টোবরে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ ওঠার পর বলিভিয়ায় শুরু হয় সহিংস বিক্ষোভ। এর জেরে একপর্যায়ে সেনাবাহিনীর চাপের মুখে নির্বাসনে যেতে বাধ্য হন বামপন্থী নেতা ও দেশটির প্রথম আদিবাসী প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস।

পরে অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেন কনজারভেটিভ সিনেটর জেনাইন আনিয়েজ। তবে ওই প্রক্রিয়াকে অভ্যুত্থান হিসেবে আখ্যায়িত করেন মোরালেস সমর্থকরা।

এবারের নির্বাচনে ইভো মোরালেসকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এখন তার দলের প্রার্থী লুইজ আরসে হতে যাচ্ছেন দেশটির পরবর্তী প্রেসিডেন্ট।

বিভিন্ন স্থানে চালানো বুথফেরত জরিপের ফলে প্রায় একই রকম চিত্র পাওয়া গেছে। ফলে আনুষ্ঠানিক ফলেও আরসেই নির্বাচিত হবেন এটি প্রায় নিশ্চিত।