নাইজেরিয়ায় পুলিশি নৃশংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভে এলোপাতাড়ি গুলি
jugantor
নাইজেরিয়ায় পুলিশি নৃশংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভে এলোপাতাড়ি গুলি

  অনলাইন ডেস্ক  

২১ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৯:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নাইজেরিয়ায় পুলিশি নৃশংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভে এলোপাতাড়ি গুলি

নাইজেরিয়ায় পুলিশের নৃশংসতার প্রতিবাদে বিক্ষোভে রক্তের বন্যা বইয়ে দেয়া হয়েছে। বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়েছে সেনাবাহিনী। যাতে বহু লোকজন হতাহত হয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে– দেশজুড়ে কারফিউ জারি থাকলেও বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

স্পেশাল অ্যান্টি-রোবারি স্কোয়াড (সার্স) হিসেবে পরিচিত পুলিশের একটি ইউনিটের অপহরণ, হয়রানি ও লুটপাটের বিরুদ্ধে গত দুই সপ্তাহ ধরে চলছে এ প্রতিবাদ।

মঙ্গলবার ২৪ ঘণ্টার কারফিউ জারি ও দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী আকিনবোসোলা ওগুনসানইয়া বলেন, লেক্কি টোলগেট শহরে বাতি বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভকারীদের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়া হয়েছে।

তিনি বলেন, সেনাবাহিনী আমাদের সমালোচনা করে এবং গুলি করতে শুরু করে। তারা গুলি করছিলেন, তারা সরাসরি গুলি করছিলেন, একেবারে আমাদের দিকে বন্দুক তাক করে, যাতে বহু লোক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আমি কোনোমতে বেঁচে ফিরে আসতে পেরেছি।

আকিনবোসোলা আরও বলেন, সড়কের অপর পাশে ব্যারিকেড দেয়া থাকায় কোনো অ্যাম্বুলেন্স আসতে পারছিল না।

টেম্বল ওনানুগবো নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, বাড়ি থেকে আমি গুলির শব্দ শুনতে পেয়েছি। ১৫ থেকে ৩০ মিনিট পর্যন্ত একটানা গুলি চলেছে।

ঘটনাস্থল থেকে ফোনে তিনি বলেন, যখন আমরা আহতদের সহায়তায় এগিয়ে আসি, তখন বহু মানুষকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেছি। তবে হতাহতের বিষয়টি এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি সিএনএন।

লেক্কি টোল গেটের বিক্ষোভ ছিল শান্তিপূর্ণ। তারা অবস্থান কর্মসূচি গ্রহণ করে, জাতীয় সংগীত পরিবেশন করে এবং প্রার্থনার মাধ্যমে নিজেদের প্রতিবাদ জানাচ্ছিলেন।

মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টির নাইজেরিয়ার মুখপাত্র ইসা সানুসি বলেন, নিরাপত্তার বাহিনীর সাধারণ মানুষকে হত্যা করেছে।

গত ১১ অক্টোবর সার্স নামে ওই পুলিশের ইউনিট ভেঙে দিয়ে নতুন একটি ইউনিট গঠন করা হয়েছে। কিন্তু পুলিশের নিপীড়ন থেকে আরও সুরক্ষা দাবি করছিলেন বিক্ষোভকারীরা।

নাইজেরিয়ায় পুলিশি নৃশংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভে এলোপাতাড়ি গুলি

 অনলাইন ডেস্ক 
২১ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নাইজেরিয়ায় পুলিশি নৃশংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভে এলোপাতাড়ি গুলি
ছবি: এএফপি

নাইজেরিয়ায় পুলিশের নৃশংসতার প্রতিবাদে বিক্ষোভে রক্তের বন্যা বইয়ে দেয়া হয়েছে। বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়েছে সেনাবাহিনী। যাতে বহু লোকজন হতাহত হয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে– দেশজুড়ে কারফিউ জারি থাকলেও বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। 

স্পেশাল অ্যান্টি-রোবারি স্কোয়াড (সার্স) হিসেবে পরিচিত পুলিশের একটি ইউনিটের অপহরণ, হয়রানি ও লুটপাটের বিরুদ্ধে গত দুই সপ্তাহ ধরে চলছে এ প্রতিবাদ।

মঙ্গলবার ২৪ ঘণ্টার কারফিউ জারি ও দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী আকিনবোসোলা ওগুনসানইয়া বলেন, লেক্কি টোলগেট শহরে বাতি বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভকারীদের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়া হয়েছে।

তিনি বলেন, সেনাবাহিনী আমাদের সমালোচনা করে এবং গুলি করতে শুরু করে। তারা গুলি করছিলেন, তারা সরাসরি গুলি করছিলেন, একেবারে আমাদের দিকে বন্দুক তাক করে, যাতে বহু লোক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আমি কোনোমতে বেঁচে ফিরে আসতে পেরেছি।

আকিনবোসোলা আরও বলেন, সড়কের অপর পাশে ব্যারিকেড দেয়া থাকায় কোনো অ্যাম্বুলেন্স আসতে পারছিল না।

টেম্বল ওনানুগবো নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, বাড়ি থেকে আমি গুলির শব্দ শুনতে পেয়েছি। ১৫ থেকে ৩০ মিনিট পর্যন্ত একটানা গুলি চলেছে।

ঘটনাস্থল থেকে ফোনে তিনি বলেন, যখন আমরা আহতদের সহায়তায় এগিয়ে আসি, তখন বহু মানুষকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেছি। তবে হতাহতের বিষয়টি এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি সিএনএন।

লেক্কি টোল গেটের বিক্ষোভ ছিল শান্তিপূর্ণ। তারা অবস্থান কর্মসূচি গ্রহণ করে, জাতীয় সংগীত পরিবেশন করে এবং প্রার্থনার মাধ্যমে নিজেদের প্রতিবাদ জানাচ্ছিলেন।

মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টির নাইজেরিয়ার মুখপাত্র ইসা সানুসি বলেন, নিরাপত্তার বাহিনীর সাধারণ মানুষকে হত্যা করেছে।

গত ১১ অক্টোবর সার্স নামে ওই পুলিশের ইউনিট ভেঙে দিয়ে নতুন একটি ইউনিট গঠন করা হয়েছে। কিন্তু পুলিশের নিপীড়ন থেকে আরও সুরক্ষা দাবি করছিলেন বিক্ষোভকারীরা।