আফগানিস্তানে আল কায়েদা নেতা আল-মাসরি নিহত
jugantor
আফগানিস্তানে আল কায়েদা নেতা আল-মাসরি নিহত

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৪:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

আফগানিস্তানে আল কায়েদা নেতা আল-মাসরি নিহত

আবু মুহসিন আল-মাসরি নামে আল কায়েদার এক জ্যেষ্ঠ নেতাকে হত্যা করেছে আফগান নিরাপত্তা বাহিনী। যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো (এফবিআই) বহু বছর ধরে তাকে খুঁজছিল বলে দাবি করা হচ্ছে।

শনিবার এক টুইটবার্তায় আফগানিস্তান নিরাপত্তা অধিদফতর এমন তথ্য দিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন তথ্য মিলেছে।

আল-মাসরি আল কায়েদার সেকেন্ড-ইন-কমান্ড ছিলেন বলে ধারণা। যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (এফবিআই) মোস্ট ওয়ান্টেড সন্ত্রাসী তালিকায় তার নাম ছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল কাউন্টার-টেররিজম সেন্টারের প্রধান ক্রিস মিলার এক বিবৃতিতে আল-মাসরি নিহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, যুদ্ধক্ষেত্র থেকে তার অপসারণ সন্ত্রাসী সংগঠনটির জন্য বড় ধরনের বিপর্যয়।

মার্কিন নাগরিকদের হত্যার ষড়যন্ত্র ও বিদেশি একটি সন্ত্রাসী সংগঠনকে বিভিন্ন উপাদান জুগিয়ে সমর্থন দেয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে আল-মাসরির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছিল।

মাসরির মৃত্যুর বিষয়ে মন্তব্যের জন্য করা অনুরোধ এফবিআই প্রত্যাখ্যান করেছে।

এফবিআইয়ের তথ্যানুযায়ী, আল কায়েদার এ গুরুত্বপূর্ণ নেতা মিসরীয় নাগরিক এবং তিনি হুসাম আব্দ আল রউফ নামও ব্যবহার করতেন।

আফগানিস্তানে আল কায়েদা নেতা আল-মাসরি নিহত

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আফগানিস্তানে আল কায়েদা নেতা আল-মাসরি নিহত
ছবি: সংগৃহীত

আবু মুহসিন আল-মাসরি নামে আল কায়েদার এক জ্যেষ্ঠ নেতাকে হত্যা করেছে আফগান নিরাপত্তা বাহিনী। যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো (এফবিআই) বহু বছর ধরে তাকে খুঁজছিল বলে দাবি করা হচ্ছে।

শনিবার এক টুইটবার্তায় আফগানিস্তান নিরাপত্তা অধিদফতর এমন তথ্য দিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন তথ্য মিলেছে।

আল-মাসরি আল কায়েদার সেকেন্ড-ইন-কমান্ড ছিলেন বলে ধারণা। যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (এফবিআই) মোস্ট ওয়ান্টেড সন্ত্রাসী তালিকায় তার নাম ছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল কাউন্টার-টেররিজম সেন্টারের প্রধান ক্রিস মিলার এক বিবৃতিতে আল-মাসরি নিহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, যুদ্ধক্ষেত্র থেকে তার অপসারণ সন্ত্রাসী সংগঠনটির জন্য বড় ধরনের বিপর্যয়।

মার্কিন নাগরিকদের হত্যার ষড়যন্ত্র ও বিদেশি একটি সন্ত্রাসী সংগঠনকে বিভিন্ন উপাদান জুগিয়ে সমর্থন দেয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে আল-মাসরির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছিল।

মাসরির মৃত্যুর বিষয়ে মন্তব্যের জন্য করা অনুরোধ এফবিআই প্রত্যাখ্যান করেছে।

এফবিআইয়ের তথ্যানুযায়ী, আল কায়েদার এ গুরুত্বপূর্ণ নেতা মিসরীয় নাগরিক এবং তিনি হুসাম আব্দ আল রউফ নামও ব্যবহার করতেন।