৬০ মিনিটের সাক্ষাৎকারে ১৬টি মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প
jugantor
৬০ মিনিটের সাক্ষাৎকারে ১৬টি মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ অক্টোবর ২০২০, ১৪:০২:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

  ৬০ মিনিটের সাক্ষাৎকারে ১৬টি মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিবিএস নিউজের ‘সিক্সটি মিনিটস’ অনুষ্ঠানে ১৬টি মিথ্যা বা বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিয়েছেন। ২৫ অক্টোবর প্রচারিত ৬০ মিনিটের সাক্ষাৎকারটি বিশ্লেষণ করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী টেলিভিশন সিএনএন এ তথ্য জানিয়েছে।

মার্কিন নাগরিকদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয় ‘সিক্সটি মিনিটস’ অনুষ্ঠানটি। এতে দেশটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের আনা হয়। তাদের নানা বিষয়ে সরাসরি প্রশ্ন করা হয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সামনে রেখে সম্প্রতি মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সসহ ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেন ও তার রানিংমেট কমলা হ্যারিসের সাক্ষাৎকারও প্রচার করে সিবিএস নিউজ।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০ অক্টোবর সাক্ষাৎকারটি ধারণ করার সময় সিবিএস নিউজ ও তাদের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান সিক্সটি মিনিটসকে ‘পক্ষপাতদুষ্ট এবং অভদ্র’ বলে উল্লেখ করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। পরে সাক্ষাৎকার শেষ না করেই তিনি উঠে পড়েন।

সিক্সটি মিনিটস অনুষ্ঠানের জনপ্রিয় উপস্থাপক সাংবাদিক লেসলে স্টাহল প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন। সাক্ষাৎকারে দেখা যায়- লেসলে স্টাহল প্রশ্ন করেন এক বিষয়ে, ট্রাম্প সেটি ঘুরিয়ে অন্য প্রসঙ্গে নিয়ে যান। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী জো বাইডেনের বিরুদ্ধে প্রশ্নের বাইরে গিয়ে জনসভায় ভাষণ দেয়ার মতো করে কথা বলতে থাকেন। ট্রাম্প বারবার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

সাংবাদিক লেসলে স্টাহল বারবার ট্রাম্পকে তার প্রশ্নে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করলে তর্কটি ভিন্ন পর্যায়ে চলে যায়। ট্রাম্প ব্যক্তিগত আক্রমণ করে বসেন। পরে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাক্ষাৎকার শেষ না করেই উঠে পড়েন। ট্রাম্প বারবার অভিযোগ করেন, তার প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনকে কখনই কঠিন প্রশ্ন করা হয় না। সব কঠিন প্রশ্ন রাখা হয় তার জন্য। জো বাইডেনকে জিজ্ঞেস করা হয়, কোন আইসক্রিম পছন্দ আপনার? অথচ আমাকে কঠিন কঠিন বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়।

সাংবাদিক লেসলে স্টাহল একের পর এক সুনির্দিষ্ট প্রশ্ন করতে থাকলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বিরক্ত হন। একপর্যায়ে তিনি ‘যথেষ্ট হয়েছে’ বলে সাক্ষাৎকার থেকে উঠে যান।

সিবিএস নিউজে ২৫ অক্টোবর সাক্ষাৎকারটি প্রচার হলেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার কাছে থাকা সাক্ষাৎকারটি ২২ অক্টোবর বিকালে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করেন। সেখানে ৩৮ মিনিটের ভিডিও দেখা গেছে।

এর পর সিবিএস নিউজ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, সাক্ষাৎকারটি এভাবে প্রকাশ করে হোয়াইট হাউস তাদের প্রতিশ্রুতি এবং দীর্ঘদিনের রীতি ভঙ্গ করেছে। এ কারণে সিক্সটি মিনিটস অনুষ্ঠানে পুরো সাক্ষাৎকার প্রকাশ থেকে বিরত রাখা যাবে না।

২৫ অক্টোবর সিএবিএস নিউজে প্রচারিত সাক্ষাৎকারে কোভিড-১৯ মোকাবেলায় গৃহীত পদক্ষেপ, নমুনা পরীক্ষা, ভাইরাস শেষ হয়ে যাচ্ছে, অ্যান্থনি ফাউসিকে নিয়ে ট্রাম্পের মন্তব্য, মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা নিয়ে ট্রাম্পের দেয়া তথ্য বিভ্রান্তিমূলক এবং অসত্য বলে সিএনএন তাদের বিশ্লেষণে উল্লেখ করেছে। ট্রাম্প দাবি করেন, করোনা শেষ হয়ে যাচ্ছে। তার সরকারের সফল পদক্ষেপে করোনা মোকাবেলা সহজ হয়েছে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে টেস্ট বাড়ানোর কারণে করোনা রোগী বেশি ধরা পড়ছে। তবে মৃত্যু কমে এসেছে।

সিবিএস নিউজের লেসলে স্টাহল কোভিড-১৯ মোকাবেলা নিয়ে ট্রাম্পকে শুরুতেই প্রশ্ন করেন। মাস্ক পরা, সামাজিক ব্যবধান মেনে না চলা এবং এ নিয়ে দেশের জনগণকে নির্দেশনা না দেয়ার কথা ওঠে। ট্রাম্পের দাবি করা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি—এসবের যথার্থতা নিয়েও প্রশ্ন চলে আসে। এসব বাদ দিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বারবার জো বাইডেনের ছেলের দুর্নীতি নিয়ে সাংবাদিকরা কেন কথা বলছে না—এ নিয়ে অনুযোগ করতে থাকেন।

মিশিগানের গভর্নর গ্রিচেন হুইটমার সম্পর্কে করা উক্তি, ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনের ছেলের দুর্নীতির তথ্য, কর্মসংস্থান, দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা নিয়েও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দেয়া তথ্য অসত্য বলে জানিয়েছে সিএনএন।

৬০ মিনিটের সাক্ষাৎকারে ১৬টি মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ অক্টোবর ২০২০, ০২:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
  ৬০ মিনিটের সাক্ষাৎকারে ১৬টি মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প
ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিবিএস নিউজের ‘সিক্সটি মিনিটস’ অনুষ্ঠানে ১৬টি মিথ্যা বা বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিয়েছেন। ২৫ অক্টোবর প্রচারিত ৬০ মিনিটের সাক্ষাৎকারটি বিশ্লেষণ করে যুক্তরাষ্ট্রের  প্রভাবশালী টেলিভিশন সিএনএন এ তথ্য জানিয়েছে।   

মার্কিন নাগরিকদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয় ‘সিক্সটি মিনিটস’ অনুষ্ঠানটি। এতে দেশটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের আনা হয়। তাদের নানা বিষয়ে সরাসরি প্রশ্ন করা হয়। 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সামনে রেখে সম্প্রতি মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সসহ ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেন ও তার রানিংমেট কমলা হ্যারিসের সাক্ষাৎকারও প্রচার করে সিবিএস নিউজ।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০ অক্টোবর সাক্ষাৎকারটি ধারণ করার সময় সিবিএস নিউজ ও তাদের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান সিক্সটি মিনিটসকে ‘পক্ষপাতদুষ্ট এবং অভদ্র’ বলে উল্লেখ করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। পরে সাক্ষাৎকার শেষ না করেই তিনি উঠে পড়েন।

সিক্সটি মিনিটস অনুষ্ঠানের জনপ্রিয় উপস্থাপক সাংবাদিক লেসলে স্টাহল প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন। সাক্ষাৎকারে দেখা যায়- লেসলে স্টাহল প্রশ্ন করেন এক বিষয়ে, ট্রাম্প সেটি ঘুরিয়ে অন্য প্রসঙ্গে নিয়ে যান। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী জো বাইডেনের বিরুদ্ধে প্রশ্নের বাইরে গিয়ে জনসভায় ভাষণ দেয়ার মতো করে কথা বলতে থাকেন। ট্রাম্প বারবার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

সাংবাদিক লেসলে স্টাহল বারবার ট্রাম্পকে তার প্রশ্নে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করলে তর্কটি ভিন্ন পর্যায়ে চলে যায়। ট্রাম্প ব্যক্তিগত আক্রমণ করে বসেন। পরে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাক্ষাৎকার শেষ না করেই উঠে পড়েন। ট্রাম্প বারবার অভিযোগ করেন, তার প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনকে কখনই কঠিন প্রশ্ন করা হয় না। সব কঠিন প্রশ্ন রাখা হয় তার জন্য। জো বাইডেনকে জিজ্ঞেস করা হয়, কোন আইসক্রিম পছন্দ আপনার? অথচ আমাকে কঠিন কঠিন বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়।

সাংবাদিক লেসলে স্টাহল একের পর এক সুনির্দিষ্ট প্রশ্ন করতে থাকলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বিরক্ত হন। একপর্যায়ে তিনি ‘যথেষ্ট হয়েছে’ বলে সাক্ষাৎকার থেকে উঠে যান।

সিবিএস নিউজে ২৫ অক্টোবর সাক্ষাৎকারটি প্রচার হলেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার কাছে থাকা সাক্ষাৎকারটি ২২ অক্টোবর বিকালে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করেন। সেখানে ৩৮ মিনিটের ভিডিও দেখা গেছে।

এর পর সিবিএস নিউজ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, সাক্ষাৎকারটি এভাবে প্রকাশ করে হোয়াইট হাউস তাদের প্রতিশ্রুতি এবং দীর্ঘদিনের রীতি ভঙ্গ করেছে। এ কারণে সিক্সটি মিনিটস অনুষ্ঠানে পুরো সাক্ষাৎকার প্রকাশ থেকে বিরত রাখা যাবে না।

২৫ অক্টোবর সিএবিএস নিউজে প্রচারিত সাক্ষাৎকারে কোভিড-১৯ মোকাবেলায় গৃহীত পদক্ষেপ, নমুনা পরীক্ষা, ভাইরাস শেষ হয়ে যাচ্ছে, অ্যান্থনি ফাউসিকে নিয়ে ট্রাম্পের মন্তব্য, মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা নিয়ে ট্রাম্পের দেয়া তথ্য বিভ্রান্তিমূলক এবং অসত্য বলে সিএনএন তাদের বিশ্লেষণে উল্লেখ করেছে। ট্রাম্প দাবি করেন, করোনা শেষ হয়ে যাচ্ছে। তার সরকারের সফল পদক্ষেপে করোনা মোকাবেলা সহজ হয়েছে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে টেস্ট বাড়ানোর কারণে করোনা রোগী বেশি ধরা পড়ছে। তবে মৃত্যু কমে এসেছে।

সিবিএস নিউজের লেসলে স্টাহল কোভিড-১৯ মোকাবেলা নিয়ে ট্রাম্পকে শুরুতেই প্রশ্ন করেন। মাস্ক পরা, সামাজিক ব্যবধান মেনে না চলা এবং এ নিয়ে দেশের জনগণকে নির্দেশনা না দেয়ার কথা ওঠে। ট্রাম্পের দাবি করা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি—এসবের যথার্থতা নিয়েও প্রশ্ন চলে আসে। এসব বাদ দিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বারবার জো বাইডেনের ছেলের দুর্নীতি নিয়ে সাংবাদিকরা কেন কথা বলছে না—এ নিয়ে অনুযোগ করতে থাকেন।

মিশিগানের গভর্নর গ্রিচেন হুইটমার সম্পর্কে করা উক্তি, ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনের ছেলের দুর্নীতির তথ্য, কর্মসংস্থান, দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা নিয়েও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দেয়া তথ্য অসত্য বলে জানিয়েছে সিএনএন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন-২০২০