বিজেপির সাবেক মন্ত্রীর ৩ বছরের কারাদণ্ড
jugantor
বিজেপির সাবেক মন্ত্রীর ৩ বছরের কারাদণ্ড

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ অক্টোবর ২০২০, ১৭:৫১:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

বিজেপির সাবেক মন্ত্রীর ৩ বছরের কারাদণ্ড

ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দিলীপ রায়কে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির আদালত। কয়লা ব্লক বন্টন দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তাকে এ দণ্ড দেয়া হয়।

সোমবার দিল্লির বিশেষ সিবিআই আদালত এই সাজা ঘোষণা করেছে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে। ওই মামলায় জড়িত আরও দুই জনকেও তিন বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

সাজা ঘোষণার পর বিশেষ বিচারক ভারত প্রশার দণ্ডিত তিন জনের প্রত্যেককে ১০ লাখ রুপি করে জরিমানা করেছেন।

বিজেপির অটল বিহারী বাজপেয়ী সরকারের আমলে কয়লা বিষয়ক মন্ত্রী দিলীপের বিরুদ্ধে ১৯৯৯ সালে ঝাড়খন্ড রাজ্যের কয়লার ব্লক বন্টন সংক্রান্ত একটি মামলায় ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে।

এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক শোরগোলের পর বাজপেয়ীর এনডিএ সরকার সিবিআইকে অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব দেয়।

মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা খুঁজে পাওয়ায় গ্রেফতার হন দিলীপ। দীর্ঘ দিন বিচার চলার পর চলতি মাসের প্রথমদিকে ফৌজদারি অপরাধসহ ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় দোষী সাব্যস্ত হন তিনি।

দিলীপের পাশাপাশি তার অধীনস্ত মন্ত্রণালয়ের দুইজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাও দোষী সাব্যস্ত হন।

বিজেপির সাবেক মন্ত্রীর ৩ বছরের কারাদণ্ড

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বিজেপির সাবেক মন্ত্রীর ৩ বছরের কারাদণ্ড
ছবি: আনন্দবাজার পত্রিকা

ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দিলীপ রায়কে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির আদালত। কয়লা ব্লক বন্টন দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তাকে এ দণ্ড দেয়া হয়।  

সোমবার দিল্লির বিশেষ সিবিআই আদালত এই সাজা ঘোষণা করেছে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে। ওই মামলায় জড়িত আরও দুই জনকেও তিন বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

সাজা ঘোষণার পর বিশেষ বিচারক ভারত প্রশার দণ্ডিত তিন জনের প্রত্যেককে ১০ লাখ রুপি করে জরিমানা করেছেন।

বিজেপির অটল বিহারী বাজপেয়ী সরকারের আমলে কয়লা বিষয়ক মন্ত্রী দিলীপের বিরুদ্ধে ১৯৯৯ সালে ঝাড়খন্ড রাজ্যের কয়লার ব্লক বন্টন সংক্রান্ত একটি মামলায় ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে।

এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক শোরগোলের পর বাজপেয়ীর এনডিএ সরকার সিবিআইকে অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব দেয়।
 
মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা খুঁজে পাওয়ায় গ্রেফতার হন দিলীপ। দীর্ঘ দিন বিচার চলার পর চলতি মাসের প্রথমদিকে ফৌজদারি অপরাধসহ ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় দোষী সাব্যস্ত হন তিনি। 

দিলীপের পাশাপাশি তার অধীনস্ত মন্ত্রণালয়ের দুইজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাও দোষী সাব্যস্ত হন।