শার্লি হেবদোকে ‘স্কাউন্ড্রেল’ বললেন এরদোগান
jugantor
শার্লি হেবদোকে ‘স্কাউন্ড্রেল’ বললেন এরদোগান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:৫৪:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান ফ্রান্সের বিতর্কিত ব্যঙ্গাত্মক সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন শার্লি হেবদোকে ‘স্কাউন্ড্রেল’ আখ্যা দিয়েছেন।

ওই পত্রিকায় ছাপা মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর কার্টুনকে 'জঘন্য আক্রমণ' বলে বর্ণনা করেছেন তিনি। বুধবার দলীয় কর্মীদের সঙ্গে এক আলোচনায় এসব কথা বলেছেন তিনি। খবর ডয়েচে ভেলের।

শার্লি হেবদোর সর্বশেষ সংখ্যার প্রচ্ছদে গত ২১ অক্টোবর এরদোগানের ব্যঙ্গচিত্র চাপা হয়। ২৭ অক্টোবর শার্লি হেবদোর ওই সংখ্যাটি অনলাইনে প্রকাশ করা হয়।

এর প্রচ্ছদে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান একটি সাদা টি-শার্ট এবং অন্তর্বাস পরে বসে আছেন। পাশে হিজাব পরা এক নারী মদের পসরা সাজিয়ে অর্ধনগ্ন অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছেন। কার্টুনচিত্রের টাইটেলে বলা হয়– ‘এরদোগান: একান্তে তিনি খুবই মজার’।

এরদোগান জানিয়েছেন, তার যে কার্টুন ছাপা হয়েছে, তা তিনি দেখেননি। তবে বিষয়টি জানেন। 'আমার জঘন্য কার্টুন করেছে বলে আমার রাগ ও দুঃখ হয়নি, এ মিডিয়া আমাদের প্রিয় মহানবীর (সা.) কার্টুন ছাপার ঔদ্ধত্য দেখিয়েছিল বলে আমি ক্ষুব্ধ।

এরদোগান বলেন, যে স্কাউন্ড্রেলরা আমাদের প্রিয় মহানবীকে (সা.) নিয়ে ওই ধরনের কাজ করতে পারে, তাদের সম্পর্কে আমার কিছুই বলার নেই।

তুরস্কের প্রেসিডেন্টের যোগাযোগবিষয়ক পরিচালক ফাহরেত্তিন আলতুন বলেন, বাকস্বাধীনতার নামে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ তার মুসলিমবিরোধী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছেন।

ফ্রান্সে মতপ্রকাশের স্বাধীনতাবিষয়ক এক ক্লাসে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর কার্টুন দেখানোর কারণে এক শিক্ষককে হত্যার ঘটনায় ফ্রান্সজুড়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া হয়।

দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ‘মৌলবাদী ইসলাম’র বিপরীতে দেশের ধর্মনিরপেক্ষ মূল্যবোধ সমুন্নত রাখার পক্ষে জোরালো অবস্থান নেন। ‘ফ্রান্স ব্যঙ্গচিত্র দেখানো বন্ধ করবে না’ বলেও জানান তিনি।

এ ঘটনায় ফ্রান্সের লাখ লাখ মুসলিমকে অবজ্ঞা করার শামিল বলে মন্তব্য করেন এরদোগান। তিনি বলেন, ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার। বিরোধের জেরে জনগণের প্রতি ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেন তিনি।

শার্লি হেবদোকে ‘স্কাউন্ড্রেল’ বললেন এরদোগান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান ফ্রান্সের বিতর্কিত ব্যঙ্গাত্মক সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন শার্লি হেবদোকে ‘স্কাউন্ড্রেল’ আখ্যা দিয়েছেন।

ওই পত্রিকায় ছাপা মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর কার্টুনকে 'জঘন্য আক্রমণ' বলে বর্ণনা করেছেন তিনি। বুধবার দলীয় কর্মীদের সঙ্গে এক আলোচনায় এসব কথা বলেছেন তিনি। খবর ডয়েচে ভেলের।

শার্লি হেবদোর সর্বশেষ সংখ্যার প্রচ্ছদে গত ২১ অক্টোবর এরদোগানের ব্যঙ্গচিত্র চাপা হয়। ২৭ অক্টোবর শার্লি হেবদোর ওই সংখ্যাটি অনলাইনে প্রকাশ করা হয়।

এর প্রচ্ছদে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান একটি সাদা টি-শার্ট এবং অন্তর্বাস পরে বসে আছেন। পাশে হিজাব পরা এক নারী মদের পসরা সাজিয়ে অর্ধনগ্ন অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছেন। কার্টুনচিত্রের টাইটেলে বলা হয়– ‘এরদোগান: একান্তে তিনি খুবই মজার’।  

এরদোগান জানিয়েছেন, তার যে কার্টুন ছাপা হয়েছে, তা তিনি দেখেননি। তবে বিষয়টি জানেন। 'আমার জঘন্য কার্টুন করেছে বলে আমার রাগ ও দুঃখ হয়নি, এ মিডিয়া আমাদের প্রিয় মহানবীর (সা.) কার্টুন ছাপার ঔদ্ধত্য দেখিয়েছিল বলে আমি ক্ষুব্ধ।

এরদোগান বলেন, যে স্কাউন্ড্রেলরা আমাদের প্রিয় মহানবীকে (সা.) নিয়ে ওই ধরনের কাজ করতে পারে, তাদের সম্পর্কে আমার কিছুই বলার নেই।

তুরস্কের প্রেসিডেন্টের যোগাযোগবিষয়ক পরিচালক ফাহরেত্তিন আলতুন বলেন, বাকস্বাধীনতার নামে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ তার মুসলিমবিরোধী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছেন।

ফ্রান্সে মতপ্রকাশের স্বাধীনতাবিষয়ক এক ক্লাসে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর কার্টুন দেখানোর কারণে এক শিক্ষককে হত্যার ঘটনায় ফ্রান্সজুড়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া হয়।

দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ‘মৌলবাদী ইসলাম’র বিপরীতে দেশের ধর্মনিরপেক্ষ মূল্যবোধ সমুন্নত রাখার পক্ষে জোরালো অবস্থান নেন। ‘ফ্রান্স ব্যঙ্গচিত্র দেখানো বন্ধ করবে না’ বলেও জানান তিনি।

এ ঘটনায় ফ্রান্সের লাখ লাখ মুসলিমকে অবজ্ঞা করার শামিল বলে মন্তব্য করেন এরদোগান। তিনি বলেন, ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার। বিরোধের জেরে জনগণের প্রতি ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেন তিনি।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ফ্রান্সে ইসলাম অবমাননা