‘হেঁটে হেঁটে’ চলে গেল ৫ তলা ভবন! (ভিডিও)
jugantor
‘হেঁটে হেঁটে’ চলে গেল ৫ তলা ভবন! (ভিডিও)

  অনলাইন ডেস্ক  

৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৬:১৪:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

হেঁটে হেঁটে অন্যস্থানে চলে গেল বিশালাকার পাঁচতলা ভবন। না হলিউড সিনেমার বা ডিজনিপওয়াল্টের কোনো এনিমেশন নয়। বাস্তবেই এই অসাধ্যকে সাধন করেছে চীনের প্রকৌশলীরা।

পাঁচতলা ভবনের সেই হেঁটে চলার দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল।

ভিডিওতে দেখা গেছে, ভবনের নিচে অসংখ্য রোবটিং চাকা, যা ভবনকে দ্রুত অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সিএনএস জানিয়েছে, চীনের সাংহাইয়ের পূর্বাঞ্চলীয় হুয়াংপু জেলার বাসিন্দারা চলতি মাসের শুরুতে এই অভাবনীয় ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে। সয়ংক্রিয় যন্ত্রের ওপর ভর করে তাদের সামনে দিয়েই ইমারতটি ‘হেঁটে চলা’ যায়।

ভবনকে এভাবে অন্যত্র সরানোর বিষয়ে জানা গেছে, এটি মূলত ৮৫ বছর পুরনো একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়। তবে শহরের নতুন নকশার কারণে ভবনটি সেখানে আর রাখা যাচ্ছিল না। কিন্তু ঐতিহাসিক স্থাপনাটি সুরক্ষার করতে আগ্রহী ছিল কর্তৃপক্ষ। ফনে ভবনের পুরোটা মাটি থেকে তুলে নতুন জায়গায় স্থানান্তর করা হয়েছে। এই কাজে ওয়াকিং মেশিন নামে একটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে।

সাংহাই এভোলিউশন শিফট নামের কোম্পানি ২০১৮ সালে এই প্রযুক্তি উদ্ভাবন করে।

এর প্রধান কারিগরি সুপারভাইজার ল্যান উজি বলেন, পাঁচ তলা ভবনের নিচে ২০০টি ‘মোবাইল সাপোর্ট’ বসানো হয়। এগুলো রোবটের পায়ের মতো। এটি দুই অংশে বিভক্ত। একটি উপরে উঠলে আরেকটি নিচে নামে। ঠিক মানুষ যেভাবে হাঁটে। এগুলোতে যুক্ত করা সেন্সর দিয়ে ভবনকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

ভিডিওতে পাঁচতলা ভবনের হেঁটে যাওয়া দেখুন -


‘হেঁটে হেঁটে’ চলে গেল ৫ তলা ভবন! (ভিডিও)

 অনলাইন ডেস্ক 
৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৪:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হেঁটে হেঁটে অন্যস্থানে চলে গেল বিশালাকার পাঁচতলা ভবন। না হলিউড সিনেমার বা ডিজনিপওয়াল্টের কোনো এনিমেশন নয়। বাস্তবেই এই অসাধ্যকে সাধন করেছে চীনের প্রকৌশলীরা।

পাঁচতলা ভবনের সেই হেঁটে চলার দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল।

ভিডিওতে দেখা গেছে, ভবনের নিচে অসংখ্য রোবটিং চাকা, যা ভবনকে দ্রুত অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছে। 

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সিএনএস জানিয়েছে, চীনের সাংহাইয়ের পূর্বাঞ্চলীয় হুয়াংপু জেলার বাসিন্দারা চলতি মাসের শুরুতে এই অভাবনীয় ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে। সয়ংক্রিয় যন্ত্রের ওপর ভর করে তাদের সামনে দিয়েই ইমারতটি  ‘হেঁটে চলা’ যায়।

 ভবনকে এভাবে অন্যত্র সরানোর বিষয়ে জানা গেছে, এটি মূলত ৮৫ বছর পুরনো একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়। তবে শহরের নতুন নকশার কারণে ভবনটি সেখানে আর রাখা যাচ্ছিল না। কিন্তু ঐতিহাসিক স্থাপনাটি সুরক্ষার করতে আগ্রহী ছিল কর্তৃপক্ষ। ফনে ভবনের পুরোটা মাটি থেকে তুলে নতুন জায়গায় স্থানান্তর করা হয়েছে। এই কাজে ওয়াকিং মেশিন নামে একটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। 

সাংহাই এভোলিউশন শিফট নামের কোম্পানি ২০১৮ সালে এই প্রযুক্তি উদ্ভাবন করে। 

এর প্রধান কারিগরি সুপারভাইজার ল্যান উজি বলেন, পাঁচ তলা ভবনের নিচে  ২০০টি ‘মোবাইল সাপোর্ট’ বসানো হয়। এগুলো রোবটের পায়ের মতো। এটি দুই অংশে বিভক্ত। একটি উপরে উঠলে আরেকটি নিচে নামে। ঠিক মানুষ যেভাবে হাঁটে। এগুলোতে যুক্ত করা সেন্সর দিয়ে ভবনকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

ভিডিওতে পাঁচতলা ভবনের হেঁটে যাওয়া দেখুন -