ইহুদিবিদ্বেষ: জেরেমি করবিনকে লেবার পার্টি থেকে বহিষ্কার
jugantor
ইহুদিবিদ্বেষ: জেরেমি করবিনকে লেবার পার্টি থেকে বহিষ্কার

  অনলাইন ডেস্ক  

৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৭:২১:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ইহুদিবিদ্বেষ: জেরেমি করবিনকে লেবার পার্টি থেকে বহিষ্কার

যুক্তরাজ্যের বিরোধীদল লেবার পার্টির সাবেক নেতা জেরেমি করবিনকে তার দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

দলের নেতেৃত্ব দেয়ার সময়ে ইহুদিবিদ্বেষ মোকাবেলায় এই বামপন্থী রাজনীতিবিদের ভূমিকা নিয়ে একটি প্রতিবেদনের পর তার মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত এসেছে।

মিডলইস্ট আই ও গার্ডিয়ানের খবরে এমন তথ্য মিলেছে।

বৃহস্পতিবার দ্য ইক্যুয়ালিটি অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস কমিশন (ইএইচআরসি) এক প্রতিবেদনে বলছে, দলের ভেতরে ইহুদিবিদ্বেষের অভিযোগ নিয়ে লেবার পার্টির পদক্ষেপ ছিল বেআইনি।

পরবর্তীতে করবিন জানান, আমি এই সুপারিশগুলো গ্রহণ করলেও সব তথ্য মেনে নিচ্ছি না। দলের ভেতরে ইহুদিবিদ্বেষের মাত্রাকে বাড়িয়ে বলা হচ্ছে বলে তিনি জোর দাবি করেন।

লেবার পার্টির মুখপাত্র বলেন, আজ তিনি যে মন্তব্য করেছেন এবং পরবর্তীতে তাদের প্রত্যাহার করে নিতে ব্যর্থ হওয়ায় দল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

২০১৯ সালের মে মাসে শুরু করা এক তদন্তে ইএইচআরসি জানিয়েছে, বামপন্থী করবিনের নেতৃত্বাধীন দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল যে দলটিতে প্রাতিষ্ঠানিকভাবেই ইহুদিবিদ্বেষ রয়েছে।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তারা আরও জানায়, ইহুদিবিদ্বেষ বন্ধে লেবার পার্টির নেতৃত্বের মারাত্মক ব্যর্থতা আমরা শনাক্ত করতে পেরেছি। এমনকি ইহুদিবিদ্বেষের অভিযোগ মোকাবেলায় অপর্যাপ্ত ব্যবস্থা ছিল।

জেরেমি করবিন দীর্ঘদিন ধরেই ফিলিস্তিনিদের অধিকারের প্রতি সমর্থন জানিয়ে আসছিলেন।

ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস ও লেবাননের মিলিশিয়া গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর সঙ্গে তার অতীতে বৈঠক হয়েছিল। যে কারণে তার ভেতরে ইহুদিদের বিরদ্ধে পক্ষপাত রয়েছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।

করবিন বলেন, দলের ভেতরে ও বাইরে থেকে আমাদের বিরোধীরা রাজনৈতিক কারণে সমস্যাটির মাত্রা নাটকীয়ভাবে বাড়িয়ে বলছে। অধিকাংশ গণমাধ্যমও ঠিক একই কাজ করেছে।

তাকে কেবল বহিষ্কার করেই ক্ষান্ত হয়নি তার দল, তার লেবার হুইপও সরিয়ে নেয়া হয়েছে। অর্থাৎ হাউস অব কমনসে লেবার পার্টির আইনপ্রণেতা হিসেবে কোনো ভোটে তিনি অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

ইহুদিবিদ্বেষ: জেরেমি করবিনকে লেবার পার্টি থেকে বহিষ্কার

 অনলাইন ডেস্ক 
৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৫:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইহুদিবিদ্বেষ: জেরেমি করবিনকে লেবার পার্টি থেকে বহিষ্কার
ব্রিটেনের সাবেক বিরোধীদলীয় নেতা জেরেমি করবিন। ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাজ্যের বিরোধীদল লেবার পার্টির সাবেক নেতা জেরেমি করবিনকে তার দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

দলের নেতেৃত্ব দেয়ার সময়ে ইহুদিবিদ্বেষ মোকাবেলায় এই বামপন্থী রাজনীতিবিদের ভূমিকা নিয়ে একটি প্রতিবেদনের পর তার মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত এসেছে।

মিডলইস্ট আই ও গার্ডিয়ানের খবরে এমন তথ্য মিলেছে।

বৃহস্পতিবার দ্য ইক্যুয়ালিটি অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস কমিশন (ইএইচআরসি) এক প্রতিবেদনে বলছে, দলের ভেতরে ইহুদিবিদ্বেষের অভিযোগ নিয়ে লেবার পার্টির পদক্ষেপ ছিল বেআইনি।

পরবর্তীতে করবিন জানান, আমি এই সুপারিশগুলো গ্রহণ করলেও সব তথ্য মেনে নিচ্ছি না। দলের ভেতরে ইহুদিবিদ্বেষের মাত্রাকে বাড়িয়ে বলা হচ্ছে বলে তিনি জোর দাবি করেন। 

লেবার পার্টির মুখপাত্র বলেন, আজ তিনি যে মন্তব্য করেছেন এবং পরবর্তীতে তাদের প্রত্যাহার করে নিতে ব্যর্থ হওয়ায় দল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

২০১৯ সালের মে মাসে শুরু করা এক তদন্তে ইএইচআরসি জানিয়েছে, বামপন্থী করবিনের নেতৃত্বাধীন দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল যে দলটিতে প্রাতিষ্ঠানিকভাবেই ইহুদিবিদ্বেষ রয়েছে।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তারা আরও জানায়, ইহুদিবিদ্বেষ বন্ধে লেবার পার্টির নেতৃত্বের মারাত্মক ব্যর্থতা আমরা শনাক্ত করতে পেরেছি। এমনকি ইহুদিবিদ্বেষের অভিযোগ মোকাবেলায় অপর্যাপ্ত ব্যবস্থা ছিল।

জেরেমি করবিন দীর্ঘদিন ধরেই ফিলিস্তিনিদের অধিকারের প্রতি সমর্থন জানিয়ে আসছিলেন।

ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস ও লেবাননের মিলিশিয়া গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর সঙ্গে তার অতীতে বৈঠক হয়েছিল। যে কারণে তার ভেতরে ইহুদিদের বিরদ্ধে পক্ষপাত রয়েছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।

করবিন বলেন, দলের ভেতরে ও বাইরে থেকে আমাদের বিরোধীরা রাজনৈতিক কারণে সমস্যাটির মাত্রা নাটকীয়ভাবে বাড়িয়ে বলছে। অধিকাংশ গণমাধ্যমও ঠিক একই কাজ করেছে।

তাকে কেবল বহিষ্কার করেই ক্ষান্ত হয়নি তার দল, তার লেবার হুইপও সরিয়ে নেয়া হয়েছে। অর্থাৎ হাউস অব কমনসে লেবার পার্টির আইনপ্রণেতা হিসেবে কোনো ভোটে তিনি অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।