পম্পেওর অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শনে ফিলিস্তিনিদের ক্ষোভ
jugantor
পম্পেওর অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শনে ফিলিস্তিনিদের ক্ষোভ

  অনলাইন ডেস্ক  

১৪ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৮:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও আসন্ন মধ্যপ্রাচ্য সফরে একটি অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শনের যে পরিকল্পনা করেছেন তার ঘোর বিরোধিতা করেছে ফিলিস্তিন।

ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মাদ শাতাইয়্যাহ এবং ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন- হামাস পম্পেওর পরিকল্পিত ওই সফরের তীব্র বিরোধিতা করেছে। খবর আল জাজিরার।

শাতাইয়্যাহ শুক্রবার পশ্চিম তীরের রামাল্লাহ শহরে সফররত বুলগেরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী একাতেরিনা জাখারিয়েভা’র সঙ্গে সাক্ষাতে বলেন, পম্পেওর পরিকল্পিত সফর অনুষ্ঠিত হলে অবৈধ ইহুদি বসতিগুলোকে বৈধতা দেয়া হবে এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের একটি ভয়ঙ্কর উদাহরণ তৈরি হবে।

মাইক পম্পেও আগামী সপ্তাহে জর্দান নদীর পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড জবরদখল করে নির্মিত ইহুদি বসতি ‘স্যাগোট’ পরিদর্শন করবেন বলে কথা রয়েছে।

এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে তা হবে কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে প্রথমবারের মতো কোনো অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শন।

১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে জর্দান নদীর পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম আল-কুদস দখল করে নেয় ইহুদিবাদী ইসরাইল। তখন থেকে এ পর্যন্ত দখলীকৃত ওই ভূখণ্ডে অন্তত ২৩০টি অবৈধ ইহুদি বসতি নির্মাণ করেছে তেল আবিব। এস বসতিতে বর্তমানে ছয় লাখের বেশি ইসরাইলি বসবাস করে।

পম্পেওর অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শনে ফিলিস্তিনিদের ক্ষোভ

 অনলাইন ডেস্ক 
১৪ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও আসন্ন মধ্যপ্রাচ্য সফরে একটি অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শনের যে পরিকল্পনা করেছেন তার ঘোর বিরোধিতা করেছে ফিলিস্তিন।

ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মাদ শাতাইয়্যাহ এবং ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন- হামাস পম্পেওর পরিকল্পিত ওই সফরের তীব্র বিরোধিতা করেছে। খবর আল জাজিরার।

শাতাইয়্যাহ শুক্রবার পশ্চিম তীরের রামাল্লাহ শহরে সফররত বুলগেরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী একাতেরিনা জাখারিয়েভা’র সঙ্গে সাক্ষাতে বলেন, পম্পেওর পরিকল্পিত সফর অনুষ্ঠিত হলে অবৈধ ইহুদি বসতিগুলোকে বৈধতা দেয়া হবে এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের একটি ভয়ঙ্কর উদাহরণ তৈরি হবে।

মাইক পম্পেও আগামী সপ্তাহে জর্দান নদীর পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড জবরদখল করে নির্মিত ইহুদি বসতি ‘স্যাগোট’ পরিদর্শন করবেন বলে কথা রয়েছে।

এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে তা হবে কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে প্রথমবারের মতো কোনো অবৈধ ইহুদি বসতি পরিদর্শন।

১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে জর্দান নদীর পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম আল-কুদস দখল করে নেয় ইহুদিবাদী ইসরাইল। তখন থেকে এ পর্যন্ত দখলীকৃত ওই ভূখণ্ডে অন্তত ২৩০টি অবৈধ ইহুদি বসতি নির্মাণ করেছে তেল আবিব। এস বসতিতে বর্তমানে ছয় লাখের বেশি ইসরাইলি বসবাস করে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ