কারাবাখ নিয়ে তুরস্কের সাফাই গাইলেন পুতিন
jugantor
কারাবাখ নিয়ে তুরস্কের সাফাই গাইলেন পুতিন

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ নভেম্বর ২০২০, ১৮:৫২:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

এরদোগান ও পুতিন

বিরোধীয় নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে তুরস্কের সাফাই গেয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেছেন, আজারবাইজানকে সমর্থন দিয়ে তুরস্ক আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেনি।

মঙ্গলবার রাশিয়া ২৪ নিউজ চ্যানেলকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি এ কথা বলেন। মস্কো প্রেসিডেন্ট বলেন, বাকু তাদের ভূখণ্ড পুনরায় দাবি করেছে এবং তাদের অধিকার রয়েছে তুরস্কসহ যে কোনো পরামর্শক পছন্দ করতে।

তিন বলেন, কারাবাখ ইস্যুতে তুরস্কের পদক্ষেপগুলো যে কোনো উপায়ে যোগ্য হতে পারে, তবে তুরস্ক আন্তর্জাতিক আইন লঙ্গনের বিষয়ে অভিযুক্ত নয়।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, নাগোরনো-কারাবাখ সমস্যা নিয়ে তুরস্ক শুরু থেকে মিনস্ক গ্রুপের সদস্য ছিল, তবে কখনোই সহ-সভাপতির মর্যাদা দেয়া হয় নাই।

পুতিন স্বীকার করেন রাশিয়া ও তুরস্ক প্রায়শই ভিন্ন অবস্থানে থাকে, তবে কূটনৈতিক উপায়ে উভয় দেশে সমঝোতায় পৌঁছতে সক্ষম হয়।

গত ১০ নভেম্বর রাশিয়ার সঙ্গে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া চুক্তি করে। চুক্তির অংশ হিসেবে কারাবাখে আগামী ৫ বছর রাশিয়ার সেনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে থাকবে। এতে মস্কোর ১৯৬০ সেনা নাগোরনো-কারাবাখে দায়িত্ব পালন করবে।

ইয়েনি শাফাক

কারাবাখ নিয়ে তুরস্কের সাফাই গাইলেন পুতিন

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ নভেম্বর ২০২০, ০৬:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
এরদোগান ও পুতিন
এরদোগান ও পুতিন। ফাইল ছবি

বিরোধীয় নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে তুরস্কের সাফাই গেয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেছেন, আজারবাইজানকে সমর্থন দিয়ে তুরস্ক আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেনি। 

মঙ্গলবার রাশিয়া ২৪ নিউজ চ্যানেলকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি এ কথা বলেন। মস্কো প্রেসিডেন্ট বলেন, বাকু তাদের ভূখণ্ড পুনরায় দাবি করেছে এবং তাদের অধিকার রয়েছে তুরস্কসহ যে কোনো পরামর্শক পছন্দ করতে। 

তিন বলেন, কারাবাখ ইস্যুতে তুরস্কের পদক্ষেপগুলো যে কোনো উপায়ে যোগ্য হতে পারে, তবে তুরস্ক আন্তর্জাতিক আইন লঙ্গনের বিষয়ে অভিযুক্ত নয়। 

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, নাগোরনো-কারাবাখ সমস্যা নিয়ে তুরস্ক শুরু থেকে মিনস্ক গ্রুপের সদস্য ছিল, তবে কখনোই সহ-সভাপতির মর্যাদা দেয়া হয় নাই।

পুতিন স্বীকার করেন রাশিয়া ও তুরস্ক প্রায়শই ভিন্ন অবস্থানে থাকে, তবে কূটনৈতিক উপায়ে উভয় দেশে সমঝোতায় পৌঁছতে সক্ষম হয়।

গত ১০ নভেম্বর রাশিয়ার সঙ্গে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া চুক্তি করে। চুক্তির অংশ হিসেবে কারাবাখে আগামী ৫ বছর রাশিয়ার সেনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে থাকবে। এতে মস্কোর ১৯৬০ সেনা নাগোরনো-কারাবাখে দায়িত্ব পালন করবে। 

ইয়েনি শাফাক

 

ঘটনাপ্রবাহ : আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত