আজারবাইজানকে একটি জেলা হস্তান্তর করল আর্মেনিয়া
jugantor
আজারবাইজানকে একটি জেলা হস্তান্তর করল আর্মেনিয়া

  অনলাইন ডেস্ক  

২০ নভেম্বর ২০২০, ১৮:২২:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

৩০ বছর পর নিজেদের ভূমি ফিরে পাওয়ায় আজারবাইজানজুড়ে বিজয় উল্লাস। ছবি: এএফপি

৩০ বছর পর নিজেদের ভূমি আর্মেনিয়ার দখলদারদের কাছ থেকে ফিরে পেয়েছে আজারবাইজান। শুক্রবার আর্মেনিয়ার বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কাছ থেকে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী নাগরনো কারাবাখ বুঝে পেয়েছে। ইতিমধ্যে সীমান্তবর্তী জেলায় প্রবেশ করেছে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী। খবর এএফপির।

আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, আজারবাইজানের সেনারা আঘদাম জেলা বুঝে পেয়েছে। আর্মেনিয়ার দখলে থাকা আরও দুটি জেলা আজারবাইজানকে হস্তান্তর করা হবে।

বৃহস্পতিবার এএফপির সাংবাদিক ওই এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখেন, আর্মেনিয়ার সেনারা আঘদামের নিজেদের হেডকোয়ার্টার্স ভেঙেচুরে একাকার করে ফেলছে। এই শহরে তারা গত তিন দশকে তারা এসব প্রতিষ্ঠা করেছিল।

ওই এলাকার ৪০ বছর বয়সী এক ইলেক্ট্রিক মিস্ত্রির সঙ্গে কথা বলেন এএফপির সাংবাদিক। গাজিক গ্রিগোরায়ান নামের ওই ব্যক্তি তখন নিজের বাড়ি ভেঙে ফেলেছিলেন।

ওই আর্মেনিয়ান ইলেক্ট্রিক মিস্ত্রি বলেন, ‘এখানে আমি রান্নাঘর করার পরিকল্পনা করেছিলাম। কিন্তু যেহেতু এখান থেকে চলে যেতে হবে তাই এখন আমি সব ভেঙে চুরমার করে ফেলছি’।

আর্মেনিয়া বিদায় নেয়ার সময় ওই এলাকা পুরোপুরিভাবে ধ্বংস করে দেয়ার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ বলেছেন, তারা ‘বন্য শত্রু’। শুক্রবার টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে আজারবাইজান প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, আর্মেনিয়ানরা নিজেদের চরিত্র বিশ্ববাসীর কাছে প্রকাশ করেছে।

আজারবাইজানকে একটি জেলা হস্তান্তর করল আর্মেনিয়া

 অনলাইন ডেস্ক 
২০ নভেম্বর ২০২০, ০৬:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
৩০ বছর পর নিজেদের ভূমি ফিরে পাওয়ায় আজারবাইজানজুড়ে বিজয় উল্লাস। ছবি: এএফপি
৩০ বছর পর নিজেদের ভূমি ফিরে পাওয়ায় আজারবাইজানজুড়ে বিজয় উল্লাস। ছবি: এএফপি

৩০ বছর পর নিজেদের ভূমি আর্মেনিয়ার দখলদারদের কাছ থেকে ফিরে পেয়েছে আজারবাইজান।  শুক্রবার আর্মেনিয়ার বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কাছ থেকে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী নাগরনো কারাবাখ বুঝে পেয়েছে।  ইতিমধ্যে সীমান্তবর্তী জেলায় প্রবেশ করেছে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী। খবর এএফপির।

আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, আজারবাইজানের সেনারা আঘদাম জেলা বুঝে পেয়েছে।  আর্মেনিয়ার দখলে থাকা আরও দুটি জেলা আজারবাইজানকে হস্তান্তর করা হবে। 

বৃহস্পতিবার এএফপির সাংবাদিক ওই এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখেন, আর্মেনিয়ার সেনারা আঘদামের নিজেদের হেডকোয়ার্টার্স ভেঙেচুরে একাকার করে ফেলছে। এই শহরে তারা গত তিন দশকে তারা এসব প্রতিষ্ঠা করেছিল। 

ওই এলাকার ৪০ বছর বয়সী এক ইলেক্ট্রিক মিস্ত্রির সঙ্গে কথা বলেন এএফপির সাংবাদিক।  গাজিক গ্রিগোরায়ান নামের ওই ব্যক্তি তখন নিজের বাড়ি ভেঙে ফেলেছিলেন। 

ওই আর্মেনিয়ান ইলেক্ট্রিক মিস্ত্রি বলেন, ‘এখানে আমি রান্নাঘর করার পরিকল্পনা করেছিলাম।  কিন্তু যেহেতু এখান থেকে চলে যেতে হবে তাই এখন আমি সব ভেঙে চুরমার করে ফেলছি’। 

আর্মেনিয়া বিদায় নেয়ার সময় ওই এলাকা পুরোপুরিভাবে ধ্বংস করে দেয়ার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ বলেছেন, তারা ‘বন্য শত্রু’। শুক্রবার টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে আজারবাইজান প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, আর্মেনিয়ানরা নিজেদের চরিত্র বিশ্ববাসীর কাছে প্রকাশ করেছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত