ইরানকে চাপে ফেলতে মধ্যপ্রাচ্যে বি-৫২ বোমারু বিমান মোতায়েন
jugantor
ইরানকে চাপে ফেলতে মধ্যপ্রাচ্যে বি-৫২ বোমারু বিমান মোতায়েন

  অনলাইন ডেস্ক  

২২ নভেম্বর ২০২০, ১৬:৫৯:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

বি-৫২ বোমারু বিমান

ইরানকে চাপে ফেলতে মধ্যপ্রাচ্যে বি-৫২ বোমারু বিমান মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ট্রাম্প প্রশাসন আফগানিস্তান ও ইরাক থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়ার কয়েকদিনের মধ্যে শনিবার এ বোমারু বিমান মোতায়েন করা হয়। খবর-ফক্স নিউজ।

আমেরিকার নর্থ ড্যাকোটার একটি বিমানঘাঁটি থেকে দুটি বোমারু বিমান মধ্যপ্রাচ্যে পাঠানো হয় এবং এসব বিমান শনিবার মধ্যপ্রাচ্যে টহল দিয়েছে।

বিমানবাহিনীর ৯ম কমান্ডার লেফট্যানেন্ট জেনারেল জর্জ গুইলট বলেন, স্বল্পসময়ের নোটিশে মার্কিন বাহিনী বিশ্বের যেকোনো জায়গায় বিমান শক্তি মোতায়েন করার ক্ষমতা রাখে।

মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ড এক বিবৃতিতে দাবি করেছে, স্বল্প সময়ে এই মিশন পরিচালনা করা হয়েছে এবং এর উদ্দেশ্য হচ্ছে আগ্রাসন প্রতিরোধ ও মার্কিন মিত্রদেরকে আশ্বস্ত করা।

‘এই মিশনের মাধ্যমে বিমানের ক্রুরা মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুট ও কমান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সিস্টেমের সঙ্গে পরিচিত হয়ে উঠবেন এবং তারা যে কোনো হুমকি নস্যাৎ করার সক্ষমতা অর্জন করবেন। ’

এর আগে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আফগানিস্তান ও ইরাক থেকে দুই হাজার ৫০০ সেনাকে ফিরিয়ে আনা হবে। মধ্য জানুয়ারিতে তারা ফিরবে।

ইরানকে চাপে ফেলতে মধ্যপ্রাচ্যে বি-৫২ বোমারু বিমান মোতায়েন

 অনলাইন ডেস্ক 
২২ নভেম্বর ২০২০, ০৪:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বি-৫২ বোমারু বিমান
বি-৫২ বোমারু বিমান। ফাইল ছবি

ইরানকে চাপে ফেলতে মধ্যপ্রাচ্যে বি-৫২ বোমারু বিমান মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ট্রাম্প প্রশাসন আফগানিস্তান ও ইরাক থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়ার কয়েকদিনের মধ্যে শনিবার এ বোমারু বিমান মোতায়েন করা হয়। খবর-ফক্স নিউজ। 

আমেরিকার নর্থ ড্যাকোটার একটি বিমানঘাঁটি থেকে দুটি বোমারু বিমান মধ্যপ্রাচ্যে পাঠানো হয় এবং এসব বিমান শনিবার মধ্যপ্রাচ্যে টহল দিয়েছে।

বিমানবাহিনীর ৯ম কমান্ডার লেফট্যানেন্ট জেনারেল জর্জ গুইলট বলেন, স্বল্পসময়ের নোটিশে মার্কিন বাহিনী বিশ্বের যেকোনো জায়গায় বিমান শক্তি মোতায়েন করার ক্ষমতা রাখে। 

মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ড এক বিবৃতিতে দাবি করেছে, স্বল্প সময়ে এই মিশন পরিচালনা করা হয়েছে এবং এর উদ্দেশ্য হচ্ছে আগ্রাসন প্রতিরোধ ও মার্কিন মিত্রদেরকে আশ্বস্ত করা।

‘এই মিশনের মাধ্যমে বিমানের ক্রুরা মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুট ও কমান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সিস্টেমের সঙ্গে পরিচিত হয়ে উঠবেন এবং তারা যে কোনো হুমকি নস্যাৎ করার সক্ষমতা অর্জন করবেন। ’

এর আগে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আফগানিস্তান ও ইরাক থেকে দুই হাজার ৫০০ সেনাকে ফিরিয়ে আনা হবে। মধ্য জানুয়ারিতে তারা ফিরবে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট