সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘সশস্ত্র বাহিনী দিবস’ পালিত
jugantor
সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘সশস্ত্র বাহিনী দিবস’ পালিত

  ফারুক হিমেল, কোরিয়া থেকে  

২৩ নভেম্বর ২০২০, ২২:২৭:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

যথাযথ মর্যাদায় সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২০’ পালন করা হয়। কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে অনুষ্ঠানটি সীমিত পরিসরে পালন করা হয়।

দিবসের কর্মসূচির প্রারম্ভে দেশের সার্বিক কল্যাণ ও সমৃদ্ধি এবং সশস্ত্র বাহিনীর উত্তরোত্তর অগ্রগতি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।
সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২০ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত বাণীসমূহ পাঠ করা হয়। অনুষ্ঠানে সশস্ত্র বাহিনীর ওপর নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।
রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম তার বক্তব্যে স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মত্যাগকারী সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এছাড়া স্বাধীনতার পর একটি আধুনিক ও চৌকস সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তোলার জন্য মজবুত ভিত্তি স্থাপনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসামান্য অবদানের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন।

তিনি উল্লেখ করেন, দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার মহান দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায়, বেসামরিক প্রশাসনকে সহযোগিতাসহ জাতি গঠনমূলক কর্মকাণ্ডে সশস্ত্র বাহিনী প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছেন। তিনি সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২০ উপলক্ষে সশস্ত্র বাহিনীর সব সদস্যকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান।

সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘সশস্ত্র বাহিনী দিবস’ পালিত

 ফারুক হিমেল, কোরিয়া থেকে 
২৩ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যথাযথ মর্যাদায় সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২০’ পালন করা হয়। কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে অনুষ্ঠানটি সীমিত পরিসরে পালন করা হয়। 

দিবসের কর্মসূচির প্রারম্ভে দেশের সার্বিক কল্যাণ ও সমৃদ্ধি এবং সশস্ত্র বাহিনীর উত্তরোত্তর অগ্রগতি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। 
সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২০ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত বাণীসমূহ পাঠ করা হয়। অনুষ্ঠানে সশস্ত্র বাহিনীর ওপর নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। 
রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম তার বক্তব্যে স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মত্যাগকারী সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এছাড়া স্বাধীনতার পর একটি আধুনিক ও চৌকস সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তোলার জন্য মজবুত ভিত্তি স্থাপনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসামান্য অবদানের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। 

তিনি উল্লেখ করেন, দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার মহান দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায়, বেসামরিক প্রশাসনকে সহযোগিতাসহ জাতি গঠনমূলক কর্মকাণ্ডে সশস্ত্র বাহিনী প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছেন। তিনি সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২০ উপলক্ষে সশস্ত্র বাহিনীর সব সদস্যকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান।