ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরকারী ৩ জন বাইডেনের সম্ভাব্য মন্ত্রিসভায়
jugantor
ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরকারী ৩ জন বাইডেনের সম্ভাব্য মন্ত্রিসভায়

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৪৬:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আনুষ্ঠানিকভাবে তার সম্ভাব্য মন্ত্রিসভার ছয় সদস্যের নাম ঘোষণা করেছেন।

এদের মধ্যে অ্যান্টনি ব্লিংকেন, জন কেরি ও জ্যাক সুলিভান সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার শাসনামলে ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতায় স্বাক্ষর করেছিলেন। খবর সিএনএন ও বিবিসির।

ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরকারী সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিকে জলবায়ুবিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধির দায়িত্ব দিয়েছেন জো বাইডেন।

নির্বাচনী প্রচারাভিযানের সময় বাইডেন বলেছিলেন, তিনি ক্ষমতা হাতে পাওয়ার প্রথম দিনই আমেরিকাকে প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরিয়ে নেবেন।

বারাক ওবামার শাসনামলের সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন বাইডেন প্রশাসনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন এবং জ্যাক সুলিভান পেয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার দায়িত্ব।

ব্লিংকেন ও সুলিভান দুজনই ২০১৫ সালে জন কেরির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পদস্থ কর্মকর্তা হিসেবে ইরানের সঙ্গে ছয় জাতিগোষ্ঠীর পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরের আলোচনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন।

জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সোমবার তার মন্ত্রিসভার ছয় সদস্যের নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করে বলেন, আমি এমন একটি টিম নিয়ে কাজ করতে চাই যারা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমেরিকার ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করতে আমাকে সাহায্য করবেন।

জো বাইডেনের মন্ত্রিসভার অপর তিন সদস্য হলেন অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রী আলেজান্দার মায়োরকাস, জাতিসংঘে আমেরিকার স্থায়ী প্রতিনিধি লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড এবং জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার পরিচালক অ্যাভরিল হাইনেস।

তবে বাইডেন এমন সময় তার সম্ভাব্য মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করলেও ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও তার নির্বাচনী দল এখন পর্যন্ত সাম্প্রতিক নির্বাচনের ফল মেনে নেয়নি।

তারা বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে কথিত নির্বাচনী জালিয়াতি ও কারচুপির অভিযোগ উত্থাপন করেছেন। এসব অভিযোগের সব এরই মধ্যে খারিজ হয়ে গেলেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বিষয়টি নিয়ে সুপ্রিমকোর্ট পর্যন্ত যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন।

ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরকারী ৩ জন বাইডেনের সম্ভাব্য মন্ত্রিসভায়

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৪৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আনুষ্ঠানিকভাবে তার সম্ভাব্য মন্ত্রিসভার ছয় সদস্যের নাম ঘোষণা করেছেন।

এদের মধ্যে অ্যান্টনি ব্লিংকেন, জন কেরি ও জ্যাক সুলিভান সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার শাসনামলে ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতায় স্বাক্ষর করেছিলেন। খবর সিএনএন ও বিবিসির।

ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরকারী সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিকে জলবায়ুবিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধির দায়িত্ব দিয়েছেন জো বাইডেন।

নির্বাচনী প্রচারাভিযানের সময় বাইডেন বলেছিলেন, তিনি ক্ষমতা হাতে পাওয়ার প্রথম দিনই আমেরিকাকে প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরিয়ে নেবেন।

বারাক ওবামার শাসনামলের সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন বাইডেন প্রশাসনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন এবং জ্যাক সুলিভান পেয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার দায়িত্ব।

ব্লিংকেন ও সুলিভান দুজনই ২০১৫ সালে জন কেরির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পদস্থ কর্মকর্তা হিসেবে ইরানের সঙ্গে ছয় জাতিগোষ্ঠীর পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরের আলোচনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন।

জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সোমবার তার মন্ত্রিসভার ছয় সদস্যের নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করে বলেন, আমি এমন একটি টিম নিয়ে কাজ করতে চাই যারা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আমেরিকার ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করতে আমাকে সাহায্য করবেন।

জো বাইডেনের মন্ত্রিসভার অপর তিন সদস্য হলেন অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রী আলেজান্দার মায়োরকাস, জাতিসংঘে আমেরিকার স্থায়ী প্রতিনিধি লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড এবং জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার পরিচালক অ্যাভরিল হাইনেস।

তবে বাইডেন এমন সময় তার সম্ভাব্য মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করলেও ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও তার নির্বাচনী দল এখন পর্যন্ত সাম্প্রতিক নির্বাচনের ফল মেনে নেয়নি।

তারা বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে কথিত নির্বাচনী জালিয়াতি ও কারচুপির অভিযোগ উত্থাপন করেছেন। এসব অভিযোগের সব এরই মধ্যে খারিজ হয়ে গেলেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বিষয়টি নিয়ে সুপ্রিমকোর্ট পর্যন্ত যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ইরানের পরমাণু সমঝোতা