যুবরাজ-নেতানিয়াহুর বৈঠকের কথা অস্বীকার সৌদির
jugantor
যুবরাজ-নেতানিয়াহুর বৈঠকের কথা অস্বীকার সৌদির

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২০, ১৩:১১:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

যুবরাজ-নেতানিয়াহুর বৈঠকের কথা অস্বীকার সৌদির

বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সৌদি আরব সফর ও দেশটির কার্যত শাসক যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে গোপন বৈঠক নিয়ে গণমাধ্যমের খবর অস্বীকার করেছে রিয়াদ।

এমন কোনো বৈঠক হয়নি বলে দাবি করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ। এক টুইটবার্তায় এই বৈঠকের কথা অস্বীকার করেছেন তিনি।

গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রোববার গোপনে সৌদি আরব সফর করে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এবং রিয়াদ সফরে থাকা মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সঙ্গে বৈঠক করেছেন নেতানিয়াহু।

নেতানিয়াহুর মন্ত্রিসভা এবং লিকুদ পার্টির এক সদস্য সোমবার ওই খবর নিশ্চিতও করেন। তবে তবে এ বিষয়টি নিয়ে নীরব ছিল নেতানিয়াহুর কার্যালয়, জেরুজালেমের মার্কিন দূতাবাস কিংবা সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।

এবার যুবরাজ সালমান এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর বৈঠকে কোনও ইসরাইলি কর্মকর্তার যোগ দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করলেন প্রিন্স ফয়সাল।

এক টুইটে তিনি লেখেন, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সাম্প্রতিক সফরের সময় যুবরাজের সঙ্গে ইসরাইলি কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠক হওয়ার দাবি করে যে খবর প্রকাশ পেয়েছে তা আমি দেখেছি। এ ধরনের কোনও বৈঠকই হয়নি। বৈঠকে কেবল আমেরিকান ও সৌদি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের সঙ্গে আরব রাষ্ট্রগুলোর সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে চাপ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন এবং সুদান এরই মধ্যে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে শান্তি চুক্তি সই করেছে। অন্য আরব দেশগুলোকেও এপথে আনার চেষ্টা চলছে।

যুবরাজ-নেতানিয়াহুর বৈঠকের কথা অস্বীকার সৌদির

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২০, ০১:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
যুবরাজ-নেতানিয়াহুর বৈঠকের কথা অস্বীকার সৌদির
ছবি: সংগৃহীত

বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সৌদি আরব সফর ও দেশটির কার্যত শাসক যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে গোপন বৈঠক নিয়ে গণমাধ্যমের খবর অস্বীকার করেছে রিয়াদ।

এমন কোনো বৈঠক হয়নি বলে দাবি করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ। এক টুইটবার্তায় এই বৈঠকের কথা অস্বীকার করেছেন তিনি।

গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রোববার গোপনে সৌদি আরব সফর করে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এবং রিয়াদ সফরে থাকা মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সঙ্গে বৈঠক করেছেন নেতানিয়াহু।

নেতানিয়াহুর মন্ত্রিসভা এবং লিকুদ পার্টির এক সদস্য সোমবার ওই খবর নিশ্চিতও করেন। তবে তবে এ বিষয়টি নিয়ে নীরব ছিল নেতানিয়াহুর কার্যালয়, জেরুজালেমের মার্কিন দূতাবাস কিংবা সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।

এবার যুবরাজ সালমান এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর বৈঠকে কোনও ইসরাইলি কর্মকর্তার যোগ দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করলেন প্রিন্স ফয়সাল।

এক টুইটে তিনি লেখেন, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সাম্প্রতিক সফরের সময় যুবরাজের সঙ্গে ইসরাইলি কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠক হওয়ার দাবি করে যে খবর প্রকাশ পেয়েছে তা আমি দেখেছি। এ ধরনের কোনও বৈঠকই হয়নি। বৈঠকে কেবল আমেরিকান ও সৌদি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের সঙ্গে আরব রাষ্ট্রগুলোর সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে চাপ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন এবং সুদান এরই মধ্যে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে শান্তি চুক্তি সই করেছে। অন্য আরব দেশগুলোকেও এপথে আনার চেষ্টা চলছে।