পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যায় ক্ষোভে ফুঁসছেন ইরানিরা
jugantor
পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যায় ক্ষোভে ফুঁসছেন ইরানিরা

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:২২:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যায় ক্ষোভে ফুঁসছেন ইরানিরা

পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদেহকে নৃশংস হত্যার ঘটনায় ইরানের জনগণের মধ্যে ‘ব্যাপক ক্ষোভ’ বিরাজ করছে।

এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ইরান সরকারের পাশাপাশি দেশটির জনগণও ব্যাপক ক্ষুব্ধ বলে মার্কিন নিউজ চ্যানেল সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

সিএনএনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ফ্রেডেরিক পেল্টনের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরানিরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন ফাখরিজাদেহ হত্যাকাণ্ডে ইসরাইল সরাসরি জড়িত।

যুক্তরাষ্ট্র, ইসরাইল ও মধ্যপ্রাচ্যে তাদের কোনো কোনো মিত্রের সমন্বয়ে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে এ পরমাণু বিজ্ঞানীকে হত্যা করা হয়েছে।

ইরান সরকার এ হত্যার বদলা নেয়ার কথা বলেছে। এটিকে মার্কিন ও ইসরাইলি ষড়যন্ত্র হিসেবে উল্লেখ করেছেন দেশটির নেতারা।

শুক্রবার তেহরানের কাছে গুপ্ত হামলার শিকার হয়ে মারা যান পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদেহ।

এ হত্যাকাণ্ডের জন্য ইরানের দীর্ঘদিনের শত্রু ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদকে দায়ী করেছে ইরানের রাজনৈতিক নেতা ও সামরিক বাহিনী।

ইসরাইলি ও পশ্চিমা বহু সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, গত রোববার সৌদি আরবের নিওম শহরে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এবং ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর মধ্যে গোপন বৈঠক হয়েছে।

খবরে বলা হয়, ওই বৈঠকে ইরান নিয়ে তাদের দুদেশের উদ্বেগের বিষয়টি আলোচনায় স্থান পায়। ফলে ফাখরিজাদেহ হত্যাকাণ্ডে ওই বৈঠকের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

ইসরাইল ও সৌদি আরব দুই দেশই ইরানের পারমাণবিক সক্ষমতা অর্জনের ঘোরবিরোধী।

পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যায় ক্ষোভে ফুঁসছেন ইরানিরা

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:২২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পরমাণু বিজ্ঞানী হত্যায় ক্ষোভে ফুঁসছেন ইরানিরা
ছবি: হুরিয়াত ডেইলি

পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদেহকে নৃশংস হত্যার ঘটনায় ইরানের জনগণের মধ্যে ‘ব্যাপক ক্ষোভ’ বিরাজ করছে।  

এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ইরান সরকারের পাশাপাশি দেশটির জনগণও ব্যাপক ক্ষুব্ধ বলে মার্কিন নিউজ চ্যানেল সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।   

সিএনএনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ফ্রেডেরিক পেল্টনের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরানিরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন ফাখরিজাদেহ হত্যাকাণ্ডে ইসরাইল সরাসরি জড়িত। 

যুক্তরাষ্ট্র, ইসরাইল ও মধ্যপ্রাচ্যে তাদের কোনো কোনো মিত্রের সমন্বয়ে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে এ পরমাণু বিজ্ঞানীকে হত্যা করা হয়েছে।

ইরান সরকার এ হত্যার বদলা নেয়ার কথা বলেছে। এটিকে মার্কিন ও ইসরাইলি ষড়যন্ত্র হিসেবে উল্লেখ করেছেন দেশটির নেতারা। 

শুক্রবার তেহরানের কাছে গুপ্ত হামলার শিকার হয়ে মারা যান পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদেহ। 

এ হত্যাকাণ্ডের জন্য ইরানের দীর্ঘদিনের শত্রু ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদকে দায়ী করেছে ইরানের রাজনৈতিক নেতা ও সামরিক বাহিনী। 

ইসরাইলি ও পশ্চিমা বহু সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, গত রোববার সৌদি আরবের নিওম শহরে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এবং ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর মধ্যে গোপন বৈঠক হয়েছে। 

খবরে বলা হয়, ওই বৈঠকে ইরান নিয়ে তাদের দুদেশের উদ্বেগের বিষয়টি আলোচনায় স্থান পায়। ফলে ফাখরিজাদেহ হত্যাকাণ্ডে ওই বৈঠকের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়।  

ইসরাইল ও সৌদি আরব দুই দেশই ইরানের পারমাণবিক সক্ষমতা অর্জনের ঘোরবিরোধী।
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : ইরানের পরমাণু বিজ্ঞানীকে হত্যা