সোমালিয়া থেকে সব সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ ট্রাম্পের
jugantor
সোমালিয়া থেকে সব সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ ট্রাম্পের

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯:২৮:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

সোমালিয়া থেকে সব সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ ট্রাম্পের

পূর্ব আফ্রিকার দেশ সোমালিয়ায় থাকা সব মার্কিন সেনা সদস্যকে দেশে ফিরিয়ে আনতে মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগনকে নির্দেশ দিয়েছেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

২০২১ সালের ১৫ জানুয়ারির মধ্যে সেনা প্রত্যাহারের কাজ শেষ করতে হবে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে প্রতিরক্ষা দফতর।

২০ জানুয়ারি ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শেষ দিন। তার আগে সেনা ফেরানোর কাজ শেষ করে যেতে চান তিনি।

সোমালিয়ায় উগ্র-সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আশ-শাবাবের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্থানীয় সামরিক বাহিনীকে সহযোগিতা করার জন্য গত এক দশকের বেশি সময় ধরে দেশটিতে ৭শ সেনা মোতায়েন রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র।

এসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য সোমালিয়ার স্থানীয় সামরিক বাহিনীকে মার্কিন সেনারা প্রশিক্ষণ দিচ্ছে বলে দাবি ওয়াশিংটনের। ওই অঞ্চলে সন্ত্রাসীগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে মার্কিন বিমান বাহিনী বেশ কিছু অভিযানও চালিয়েছে।

পেন্টাগনের বিবৃতিতে বলা হয়, সোমালিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করা হচ্ছে তার অর্থ এই নয় যে মার্কিন নীতিতে কোনো পরিবর্তন এসেছে।

সেনা প্রত্যাহারের পরও সোমালিয়ায় সন্ত্রাসবাদ-বিরোধী অভিযান চালাতে পারবে যুক্তরাষ্ট্র এবং যে কোনো হুমকির ব্যাপারে আগেভাগেই সতর্কতামূলক তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে তারা।

এর আগে গত মাসে এক ঘোষণায় জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে দুই হাজার এবং ইরাক থেকে ৫শ সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

সোমালিয়া থেকে সব সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ ট্রাম্পের

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৭:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সোমালিয়া থেকে সব সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ ট্রাম্পের
ছবি: বিবিসি

পূর্ব আফ্রিকার দেশ সোমালিয়ায় থাকা সব মার্কিন সেনা সদস্যকে দেশে ফিরিয়ে আনতে মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগনকে নির্দেশ দিয়েছেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

২০২১ সালের ১৫ জানুয়ারির মধ্যে সেনা প্রত্যাহারের কাজ শেষ করতে হবে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে প্রতিরক্ষা দফতর। 

২০ জানুয়ারি ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শেষ দিন। তার আগে সেনা ফেরানোর কাজ শেষ করে যেতে চান তিনি। 

সোমালিয়ায় উগ্র-সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আশ-শাবাবের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্থানীয় সামরিক বাহিনীকে সহযোগিতা করার জন্য গত এক দশকের বেশি সময় ধরে দেশটিতে ৭শ সেনা মোতায়েন রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। 

এসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য সোমালিয়ার স্থানীয় সামরিক বাহিনীকে মার্কিন সেনারা প্রশিক্ষণ দিচ্ছে বলে দাবি ওয়াশিংটনের। ওই অঞ্চলে সন্ত্রাসীগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে মার্কিন বিমান বাহিনী বেশ কিছু অভিযানও চালিয়েছে।

পেন্টাগনের বিবৃতিতে বলা হয়, সোমালিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করা হচ্ছে তার অর্থ এই নয় যে মার্কিন নীতিতে কোনো পরিবর্তন এসেছে। 

সেনা প্রত্যাহারের পরও সোমালিয়ায় সন্ত্রাসবাদ-বিরোধী অভিযান চালাতে পারবে যুক্তরাষ্ট্র এবং যে কোনো হুমকির ব্যাপারে আগেভাগেই সতর্কতামূলক তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে তারা। 

এর আগে গত মাসে এক ঘোষণায় জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে দুই হাজার এবং ইরাক থেকে ৫শ সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। 

 
আরও খবর