আমার দলেই কেউ কেউ আমার মৃত্যু কামনা করে: মমতা
jugantor
আমার দলেই কেউ কেউ আমার মৃত্যু কামনা করে: মমতা

  অনলাইন ডেস্ক  

০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০:৪১:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নিজের দল তৃণমূল কংগ্রেসের অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার রাজ্য বিধানসভার আসন্ন নির্বাচন নিয়ে নিজ দলের সাংসদ, বিধায়ক, মন্ত্রীসহ প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন মমতা। সেখানে তিনি ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, ‘কেউ কেউ আমার মৃত্যু কামনা করছে। আমি মারা গেলে আমার চেয়ারে বসবেন। কিন্তু মৃত্যু কারও হাতে নেই।’

মমতার এ কথা শুনে তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত কেঁদে ফেলেন।

ওই বৈঠকে তৃণমূলের কলকাতার কালীঘাটের কার্যালয়েদলের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের শীর্ষ নেতারাউপস্থিত ছিলেন।

রাজ্য বিধানসভার নির্বাচন হতে পারে আগামী বছরের এপ্রিল-মে মাসে। রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভা আসনে ভোট হবে। বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে মমতার এ বৈঠকে তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীও উপস্থিত ছিলেন।

মমতা বলেন, ‘এবার নির্বাচনে আমাদের জিততে হবে। লড়তে হবে। আবার আমাদের ক্ষমতায় আসতে হবে। এই রাজ্যের মানুষ তো আমাদের পাশে আছে। তৃণমূল একুশেতে এই রাজ্যের ক্ষমতায় থাকার হ্যাটট্রিক করবে।’

বৈঠকে দলের নেতাদের উদ্দেশে মমতা বলেন, ‘দলের বিরোধীদের নিয়ে কোনো সমঝোতা নয়। যারাই বিরোধিতা করবেন, তাদেরই দলে ঠাঁই হবে না। ভালো না লাগলে এখনই ছেড়ে যান দল। যারা সাহস নিয়ে দল করতে পারবেন, তারাই থাকুন। দলবিরোধীদের দল থেকে অবিলম্বে তাড়িয়ে দিন।’

মমতার বক্তব্যের পর দলীয় তৃণমূল সভাপতি সুব্রত বক্সী বলেন, ‘আপনি আমাদের নেত্রী। আপনি চিরকাল আমাদের নেত্রী থাকবেন। আমাদের পথ দেখাবেন। দলকে দিশা দেখাবেন।’

আমার দলেই কেউ কেউ আমার মৃত্যু কামনা করে: মমতা

 অনলাইন ডেস্ক 
০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

নিজের দল তৃণমূল কংগ্রেসের অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  শুক্রবার রাজ্য বিধানসভার আসন্ন নির্বাচন নিয়ে নিজ দলের সাংসদ, বিধায়ক, মন্ত্রীসহ প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন মমতা।  সেখানে তিনি ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, ‘কেউ কেউ আমার মৃত্যু কামনা করছে। আমি মারা গেলে আমার চেয়ারে বসবেন। কিন্তু মৃত্যু কারও হাতে নেই।’

মমতার এ কথা শুনে তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত কেঁদে ফেলেন।

ওই বৈঠকে তৃণমূলের কলকাতার কালীঘাটের কার্যালয়ে দলের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

রাজ্য বিধানসভার নির্বাচন হতে পারে আগামী বছরের এপ্রিল-মে মাসে। রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভা আসনে ভোট হবে। বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে মমতার এ বৈঠকে তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীও উপস্থিত ছিলেন।

মমতা বলেন, ‘এবার নির্বাচনে আমাদের জিততে হবে। লড়তে হবে। আবার আমাদের ক্ষমতায় আসতে হবে। এই রাজ্যের মানুষ তো আমাদের পাশে আছে। তৃণমূল একুশেতে এই রাজ্যের ক্ষমতায় থাকার হ্যাটট্রিক করবে।’

বৈঠকে দলের নেতাদের উদ্দেশে মমতা বলেন, ‘দলের বিরোধীদের নিয়ে কোনো সমঝোতা নয়।  যারাই বিরোধিতা করবেন, তাদেরই দলে ঠাঁই হবে না। ভালো না লাগলে এখনই ছেড়ে যান দল।  যারা সাহস নিয়ে দল করতে পারবেন, তারাই থাকুন।  দলবিরোধীদের দল থেকে অবিলম্বে তাড়িয়ে দিন।’

মমতার বক্তব্যের পর দলীয় তৃণমূল সভাপতি সুব্রত বক্সী বলেন, ‘আপনি আমাদের নেত্রী।  আপনি চিরকাল আমাদের নেত্রী থাকবেন।  আমাদের পথ দেখাবেন। দলকে দিশা দেখাবেন।’