বুকে চাপ দিয়ে হাতি শাবককে সারিয়ে তুললেন ত্রাণকর্মী, ভিডিও ভাইরাল
jugantor
বুকে চাপ দিয়ে হাতি শাবককে সারিয়ে তুললেন ত্রাণকর্মী, ভিডিও ভাইরাল

  অনলাইন ডেস্ক  

২৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৪:৪৭:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

ছবি সংগৃহীত

থাইল্যান্ডে সড়ক পার হওয়ার সময় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় অজ্ঞান হয়ে যাওয়া একটি হাতি শাবককে সারিয়ে তুলেছেন এক ত্রাণকর্মী। শ্বাস-প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে পড়া শাবকটির বুকে চাপ দিয়ে (কার্ডিও-পালমোনারি রিসাসিটেশন-সিপিআর) বাঁচিয়ে তোলেন ওই ত্রাণকর্মী। তার নাম মানা শ্রিভাতে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে মানা শ্রিভাতে জানান, তার চাকরিজীবনে অনেক মানুষের ওপর সিপিআর ব্যবহার করেছেন। কিন্তু হাতির ওপর কখনই এ চিকিৎসা পদ্ধতি প্রয়োগ করেননি।

সিপিআর দিয়ে বাচ্চা হাতিকে সারিয়ে তোলা মানা শ্রিভাতের সেই ভিডিও ইতিমধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, অন্ধকার এক রাস্তার একপাশে পড়ে থাকা বাচ্চা হাতির ওপর তিনি দুই হাত দিয়ে চাপ দিয়ে যাচ্ছেন।

এভাবে ১০ মিনিট চাপ দেয়ার পর একসময় জ্ঞান ফিরে আসে হাতি শাবকটির। কিছু সময় পর উঠে দাঁড়ায় সে।

থাইল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলীয় চানথাবুরি প্রদেশে একদল বুনো হাতির সঙ্গে শাবকটি রাস্তা অতিক্রম করার চেষ্টা করছিল।

ওই ভিডিওতে আরও দেখা গেছে, কয়েকজন মানুষ মোটরসাইকেল আরোহীকে চিকিৎসা দেয়ার চেষ্টা করছে। তবে তার আঘাত গুরুতর ছিল না।

গত ২৬ বছর ধরে ত্রাণকর্মী হিসেবে কাজ করছেন মানা। তিনি রয়টার্সকে বলেন, ঘটনাটি গত রোববার রাতের দিকে ঘটে। সে সময় তিনি ডিউটিতে ছিলেন না।

তিনি বলেন, আমার প্রকৃতিই হচ্ছে মানুষের জীবন বাঁচানো। কিন্তু পুরো সময়টা আমি খুব ভয়ের মধ্যে ছিলাম। কারণ বাচ্চাটির মা এবং অন্য হাতিগুলো বাচ্চাটিকে ডাকছিল।

তিনি আরও বলেন, হাতির হৃৎপিণ্ডের অবস্থান কোথায় আমি কিছুটা ধারণা করে নিয়েছিলাম। মানুষের হৃৎপিণ্ড এবং অনলাইনে একটি ভিডিও ক্লিপ দেখে আমার এ ধারণা তৈরি হয়েছিল।

সিপিআর দেয়ার পরে বাচ্চা হাতিটি যখন নড়াচড়া শুরু করে, তখন আনন্দে আমি প্রায় কেঁদেই ফেলেছিলাম।

১০ মিনিট পর হাতিটি উঠে দাঁড়ানোর পর তাকে চিকিৎসার জন্য একটি সেবাকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসা শেষে তাকে আবার দুর্ঘটনার জায়গায় ফেরত আনা হয়, যাতে সে তার মায়ের সঙ্গে মিলিত হতে পারে।

বাচ্চা হাতিটি ফিরে আসার পর মায়ের ডাক শুনে অন্য হাতিরাও সেখানে ছুটে আসে বলেও জানান তিনি।

তথ্যসূত্র: বিবিসি বাংলা

বুকে চাপ দিয়ে হাতি শাবককে সারিয়ে তুললেন ত্রাণকর্মী, ভিডিও ভাইরাল

 অনলাইন ডেস্ক 
২৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

থাইল্যান্ডে সড়ক পার হওয়ার সময় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় অজ্ঞান হয়ে যাওয়া একটি হাতি শাবককে সারিয়ে তুলেছেন এক ত্রাণকর্মী। শ্বাস-প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে পড়া শাবকটির বুকে চাপ দিয়ে (কার্ডিও-পালমোনারি রিসাসিটেশন-সিপিআর) বাঁচিয়ে তোলেন ওই ত্রাণকর্মী। তার নাম মানা শ্রিভাতে। 

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে মানা শ্রিভাতে জানান, তার চাকরিজীবনে অনেক মানুষের ওপর সিপিআর ব্যবহার করেছেন। কিন্তু হাতির ওপর কখনই এ চিকিৎসা পদ্ধতি প্রয়োগ করেননি।

সিপিআর দিয়ে বাচ্চা হাতিকে সারিয়ে তোলা মানা শ্রিভাতের সেই ভিডিও ইতিমধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। 

ভিডিওতে দেখা গেছে, অন্ধকার এক রাস্তার একপাশে পড়ে থাকা বাচ্চা হাতির ওপর তিনি দুই হাত দিয়ে চাপ দিয়ে যাচ্ছেন।

এভাবে ১০ মিনিট চাপ দেয়ার পর একসময় জ্ঞান ফিরে আসে হাতি শাবকটির। কিছু সময় পর উঠে দাঁড়ায় সে। 

থাইল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলীয় চানথাবুরি প্রদেশে একদল বুনো হাতির সঙ্গে শাবকটি রাস্তা অতিক্রম করার চেষ্টা করছিল।

ওই ভিডিওতে আরও দেখা গেছে, কয়েকজন মানুষ মোটরসাইকেল আরোহীকে চিকিৎসা দেয়ার চেষ্টা করছে। তবে তার আঘাত গুরুতর ছিল না।

গত ২৬ বছর ধরে ত্রাণকর্মী হিসেবে কাজ করছেন মানা। তিনি রয়টার্সকে বলেন, ঘটনাটি গত রোববার রাতের দিকে ঘটে। সে সময় তিনি ডিউটিতে ছিলেন না।

তিনি বলেন, আমার প্রকৃতিই হচ্ছে মানুষের জীবন বাঁচানো। কিন্তু পুরো সময়টা আমি খুব ভয়ের মধ্যে ছিলাম। কারণ বাচ্চাটির মা এবং অন্য হাতিগুলো বাচ্চাটিকে ডাকছিল।

তিনি আরও বলেন, হাতির হৃৎপিণ্ডের অবস্থান কোথায় আমি কিছুটা ধারণা করে নিয়েছিলাম। মানুষের হৃৎপিণ্ড এবং অনলাইনে একটি ভিডিও ক্লিপ দেখে আমার এ ধারণা তৈরি হয়েছিল।

সিপিআর দেয়ার পরে বাচ্চা হাতিটি যখন নড়াচড়া শুরু করে, তখন আনন্দে আমি প্রায় কেঁদেই ফেলেছিলাম।

১০ মিনিট পর হাতিটি উঠে দাঁড়ানোর পর তাকে চিকিৎসার জন্য একটি সেবাকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসা শেষে তাকে আবার দুর্ঘটনার জায়গায় ফেরত আনা হয়, যাতে সে তার মায়ের সঙ্গে মিলিত হতে পারে।

বাচ্চা হাতিটি ফিরে আসার পর মায়ের ডাক শুনে অন্য হাতিরাও সেখানে ছুটে আসে বলেও জানান তিনি। 

 

তথ্যসূত্র: বিবিসি বাংলা
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন