দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা পৌঁছাল ফ্রান্সে
jugantor
দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা পৌঁছাল ফ্রান্সে

  অনলাইন ডেস্ক  

০১ জানুয়ারি ২০২১, ১৮:৫৬:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ফ্রান্স

দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা ফ্রান্সে এক ব্যক্তির শরীরে পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার ফ্রান্সের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন রূপের করোনা শনাক্তের ঘটনা প্যারিসে এটিই প্রথম। দেশটির এক নাগরিক সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ফিরে আসেন। তার শরীরে করোনার নতুন স্ট্রেইন শনাক্ত হয়েছে। তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা বলছেন, ভাইরাসের এই বৈশিষ্ট্য বা ভ্যারিয়ান্টটি দ্রুত ছড়ায় এবং দেশটির অনেক এলাকায় এর সংক্রমণও বেশি দেখা যাচ্ছে।

বিবিসি জানিয়েছে, এই ভ্যারিয়ান্টটি নিয়ে এখনো বিশ্লেষণ চলছে। তবে এখনো পর্যন্ত যে তথ্য পাওয়া গেছে, তাতে দেখা যাচ্ছে যে এটি অতি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন স্ট্রেইন পাওয়ার পর ৫০টিরও বেশি দেশ ব্রিটেনের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকায়ও নতুন ধরনের করোনা শনাক্ত হয়। এটি যুক্তরাজ্যে পাওয়া নতুন ধরনের করোনার সঙ্গে মিল নেই। ফলে এটি নিয়েও মানুষের মধ্যে আতঙ্ক থাকছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা পৌঁছাল ফ্রান্সে

 অনলাইন ডেস্ক 
০১ জানুয়ারি ২০২১, ০৬:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফ্রান্স
ফাইল ছবি

দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা ফ্রান্সে এক ব্যক্তির শরীরে পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার ফ্রান্সের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। 

মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন রূপের করোনা শনাক্তের ঘটনা প্যারিসে এটিই প্রথম। দেশটির এক নাগরিক সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ফিরে আসেন। তার শরীরে করোনার নতুন স্ট্রেইন শনাক্ত হয়েছে। তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।    

দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা বলছেন, ভাইরাসের এই বৈশিষ্ট্য বা ভ্যারিয়ান্টটি দ্রুত ছড়ায় এবং দেশটির অনেক এলাকায় এর সংক্রমণও বেশি দেখা যাচ্ছে।

বিবিসি জানিয়েছে, এই ভ্যারিয়ান্টটি নিয়ে এখনো বিশ্লেষণ চলছে। তবে এখনো পর্যন্ত যে তথ্য পাওয়া গেছে, তাতে দেখা যাচ্ছে যে এটি অতি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।  

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন স্ট্রেইন পাওয়ার পর ৫০টিরও বেশি দেশ ব্রিটেনের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকায়ও নতুন ধরনের করোনা শনাক্ত হয়। এটি যুক্তরাজ্যে পাওয়া নতুন ধরনের করোনার সঙ্গে মিল নেই। ফলে এটি নিয়েও মানুষের মধ্যে আতঙ্ক থাকছে। 

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস