জামিন পাচ্ছেন না অ্যাসাঞ্জ
jugantor
জামিন পাচ্ছেন না অ্যাসাঞ্জ

  অনলাইন ডেস্ক  

০৬ জানুয়ারি ২০২১, ২১:২৩:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ

উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে জামিন দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে লন্ডনের একটি আদালত।

বুধবার লন্ডনের ওয়েস্ট মিনস্টারের ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের বিচারক ভ্যানেসা ব্যারাইটসার এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন বিষয় বিবেচনায় নিয়ে আমি এই বিষয়ে নিশ্চিত যে অ্যাসাঞ্জকে ছেড়ে দেওয়া হলে আপিলের শুনানি শুরুর পর তিনি আদালতের কাছ আত্মসমর্পণ করবেন না।’ এর পেছনে তিনি যুক্তি তুলে ধরে তিনি বলেন, এই আপিলে কী সিদ্ধান্ত আসবে, তা এখনো নিশ্চিত নয়।

যদিও এই বিচারকই গত সোমবার এক আদেশে বলেছেন, অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেওয়া উচিত হবে না। অ্যাসাঞ্জের মানসিক স্বাস্থ্য পরিস্থিতি ও তার ‘আত্মহত্যা করার’ ঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে একটি রুল দেন আদালত।

২০০৬ সালে উইকিলিকস নামের ওয়েবসাইটটি চালু করেন অ্যাসাঞ্জ। এই সাইটে তিনি একের পর এক গোপন মার্কিন নথিপত্র প্রকাশ করতে থাকেন।

২০১০ সালের জুলাইয়ে উইকিলিকস আফগানিস্তানে মার্কিন অভিযানের প্রায় ৭০ হাজার শ্রেণিবদ্ধ নথি প্রকাশ করেছিল। এসব তথ্য পরে বিশ্ব গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।

এ কারণে বিব্রত যুক্তরাষ্ট্র তার ওপর ক্ষুব্ধ হয়। এর পর থেকে গ্রেফতার এড়াতে সাত বছর ধরে ব্রিটেনের ইকুয়েডর দূতাবাসে রাজনৈতিক আশ্রয়ে ছিলেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ।

গত বছরের ১১ এপ্রিল লন্ডন পুলিশ উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে গ্রেফতার করে। বর্তমানে লন্ডনে তার বিচার চলছে।

যুক্তরাষ্ট্র অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে গুপ্তচর আইন লঙ্ঘন ও সরকারি কম্পিউটারে হ্যাকিংসহ ১৮টি অভিযোগ এনেছে। দোষ প্রমাণিত হলে উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতাকে কয়েক দশক কারাগারে কাটাতে হতে পারে।

অ্যাসাঞ্জকে বিচারের মুখোমুখি করতে যুক্তরাষ্ট্র শুরু থেকেই তাকে হস্তান্তরের জন্য চাপ প্রয়োগ করে আসছে। তবে অ্যাসাঞ্জ এর বিরুদ্ধে লড়ছেন এবং এ মামলা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে বর্ণনা করেছেন।

সূত্র: রয়টার্স ও বিবিসি

জামিন পাচ্ছেন না অ্যাসাঞ্জ

 অনলাইন ডেস্ক 
০৬ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ
জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। ফাইল ছবি

উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে জামিন দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে লন্ডনের একটি আদালত। 

বুধবার লন্ডনের ওয়েস্ট মিনস্টারের ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের বিচারক ভ্যানেসা ব্যারাইটসার এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন।  

তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন বিষয় বিবেচনায় নিয়ে আমি এই বিষয়ে নিশ্চিত যে অ্যাসাঞ্জকে ছেড়ে দেওয়া হলে আপিলের শুনানি শুরুর পর তিনি আদালতের কাছ আত্মসমর্পণ করবেন না।’ এর পেছনে তিনি যুক্তি তুলে ধরে তিনি বলেন, এই আপিলে কী সিদ্ধান্ত আসবে, তা এখনো নিশ্চিত নয়।

যদিও এই বিচারকই গত সোমবার এক আদেশে বলেছেন, অ্যাসাঞ্জকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেওয়া উচিত হবে না। অ্যাসাঞ্জের মানসিক স্বাস্থ্য পরিস্থিতি ও তার ‘আত্মহত্যা করার’ ঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে একটি রুল দেন আদালত।

২০০৬ সালে উইকিলিকস নামের ওয়েবসাইটটি চালু করেন অ্যাসাঞ্জ। এই সাইটে তিনি একের পর এক গোপন মার্কিন নথিপত্র প্রকাশ করতে থাকেন।

২০১০ সালের জুলাইয়ে উইকিলিকস আফগানিস্তানে মার্কিন অভিযানের প্রায় ৭০ হাজার শ্রেণিবদ্ধ নথি প্রকাশ করেছিল। এসব তথ্য পরে বিশ্ব গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।

এ কারণে বিব্রত যুক্তরাষ্ট্র তার ওপর ক্ষুব্ধ হয়। এর পর থেকে গ্রেফতার এড়াতে সাত বছর ধরে ব্রিটেনের ইকুয়েডর দূতাবাসে রাজনৈতিক আশ্রয়ে ছিলেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ।

গত বছরের ১১ এপ্রিল লন্ডন পুলিশ উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে গ্রেফতার করে। বর্তমানে লন্ডনে তার বিচার চলছে।

যুক্তরাষ্ট্র অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে গুপ্তচর আইন লঙ্ঘন ও সরকারি কম্পিউটারে হ্যাকিংসহ ১৮টি অভিযোগ এনেছে। দোষ প্রমাণিত হলে উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতাকে কয়েক দশক কারাগারে কাটাতে হতে পারে।

অ্যাসাঞ্জকে বিচারের মুখোমুখি করতে যুক্তরাষ্ট্র শুরু থেকেই তাকে হস্তান্তরের জন্য চাপ প্রয়োগ করে আসছে। তবে অ্যাসাঞ্জ এর বিরুদ্ধে লড়ছেন এবং এ মামলা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে বর্ণনা করেছেন।

সূত্র: রয়টার্স ও বিবিসি